সত্য বলা, চলা ও প্রচারই হোক বিসর্গের ভাষা...

ami nesa

wemgwj­vwni ingvwb‡i ivnxg

Avgiv bvixiv †hgb GK R‡bi ¯¿x Avevi Ab¨ w`‡K A‡b‡Ki gv | gv‡qiv †hfv‡e
mš—vb‡K wk¶v w`‡e mš—vb †mfv‡e M‡o DV‡e Ges jvwjZ n‡e| Z‡e wKQz wKQz †¶‡Î Gi e¨wZµg n‡Z cv‡i| mykxjv gv mš—vb‡K mywk¶v †`Iqvi ciI wKQz mš—v‡bi gvby‡li mfve _v‡Kbv|Gi KviY nq‡Zvev Avj­vni B”Qv, b‡Zvev Lvivc †Rbv‡imb †_‡K Lvivc wKQz wb‡q Avmv| ZviciI Avgv‡`i gv n‡Z n‡e wewe nv‡Rivi gZ | hv‡K Zvi ¯^vgx Beivwng Av. GKwU `y‡ai wkïmn Rbgvbenxb wKQz cvwb I Lvbv w`‡q GKv †d‡j G‡mwQ‡jb| Zv‡K †i‡L ¯^vgx hLb P‡j hvw”Q‡jb, ZLb wewe nv‡Riv ïay wR‡Äm K‡iwQ‡jb wcÖq ¯^vgx ! GUv wK Avj­vni ûKzg? Beivwng Av. Bkvivq ïay nu¨v e‡jwQ‡jb| wewe nv‡Riv Gici Avi GKwU cÖkœ-I K‡ibwb| wKš‘ gv nv‡Riv wZwb‡Zv bex wQ‡jbbv ev Avj­vni mv‡_ Zvi mivmwi K_vI nqwb| GUv‡K †g‡b wb‡qwQ‡jb GRb¨ ‡h, Avj­vni cÖwZ wQj Zvi cÖMvp wek¦m Ges wZwb wQ‡jb ¯^vgxi AbyivMx ¯¿x|

আপনার রেটিং: None

আমরা সর্বদা হুযুগী বাঙালি মুসলিম জাতি!!!

বাংলাদেশ!বিশ্বের জনবহুল মুসলিম দেশের মধ্যে একটি৷এ দেশে প্রায় ৯০%মুসলিম৷বেশিরভাগ মুসলিমই ধর্মপ্রাণ৷ধর্মের বই এরা না পড়লেও ধর্মকে বেগতিক বিশ্বাস করে এবং মানে৷ আর প্রায় অধিকাংশ মুসলিমের ঘরে একটি করে কুরআন রয়েছে তাকের পরে পবিত্র কাপড় দিয়ে বাধা৷সময় পেলে একদিন হয়তো পড়ে সুর করে অর্থ বিহীন কয় লাইন, তারপর শেষ করে দু-তিনটা চুমা দিয়ে জায়গার মাল জায়গায় রেখে দেই৷প্রতিটা হরফে দশ নেকি, বহুৎ পড়েছি,বহুৎ নেকী জোগাড় করে ফেলাইছি৷প্রায় মাস-বছর খানিক আর পড়া লাগবে না৷জান্নাত হাতছানি দিয়ে ডাকছে,আমারে আর ঠেকায় কে?
___বলি, কুরআন কি আল্লাহ খতম দেওয়ার জন্য,পানি পড়া,তাবিজের জন্য পাঠিয়েছে?
এটার মর্মার্থ বুঝা লাগবে না গজমূর্খ৷
কুরআন আল্লাহর কথা,তিনি কি বলছেন,সেটা ভাল করে বোঝাই তোমার কাজ,এটাই কুরআনের হক৷ এটাই একজন মুসলিমের প্রধান দায়িত্ব৷
আসল কথায় আসি-আজ আমরা মুসলমান ইসলাম,কুরআন,হাদিস থেকে অনেক দূরে সরে গিয়েছি,ভাল করে আর বুঝতে চাই না,অন্য বিষয় নিয়ে পড়ে আছি৷
এজন্য এ বিষয়ে কেউ ভুল বললেও আর ভুল ধরতে পারিনা,কিছু বলতেও পারিনা৷
কারণ?কারণ একটাই এ বিষয়ে ভাল জানিনা,পড়ি নাই৷ শুধু লোক মুখে শুনেছি,তাই মানি৷

ছবি: 
আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 3.5 (2টি রেটিং)

ঠেলার নাম বাবাজি।

এবার মাইনকার চিপায় পড়েছে ইজরাইল।

পিলিস্তিনের পাশাপাশি এবার সিরিয়া ও লেবানন থেকে রকেট হামলা ইজরাইলীদের উপর।
ইহুদিবাদী ইসরাইলের
ভেতরে সিরিয়া ও লেবানন থেকে রকেট
হামলা শুরু হয়েছে।
এতে ইসরাইলের বিশাল এলাকা কেঁপে ওঠে।
সিরিয়া থেকে ছোঁড়া রকেট
আঘাত হেনেছে ইসরাইলের
দখলে থাকা গোলান মালভূমিতে।
আর লেবানন
থেকে ছোঁড়া ক্ষেপণাস্ত্র আঘাত
হানে অধিকৃত ফিলিস্তিনের
আপার গ্যালিলিতে।
ইসরাইলের সেনাবাহিনী বলেছে,
সিরিয়া থেকে কমপক্ষে পাঁচটি রকেট
আঘাত হানে গোলান মালভূমির
কয়েক জায়গায়।
ইসরাইলি সেনাবাহিনীর এক
মুখপাত্র বলেছে, কারা এই রকেট
ছুঁড়েছে তা নিশ্চিত নয় এবং তাদের
সেনারা কোনো জবাব দেয় নি।
হেতে আরো কয়, গতরাত দেড়টার
দিকে চালানো হামলায়
কোনো ক্ষয়ক্ষতি হয় নি। এদিকে,
শনিবার শেষ বেলায় লেবানন
থেকে উত্তর ইসরাইলে রকেট
হামলা হয়েছে। তবে কেউ এর দায়
স্বীকার করে নি। হামলার পর ওই
এলাকায় ইসরাইলের হেলিকপ্টার
ঘোরাঘুরি করতে দেখা গেছে বলে সংবাদ মাধ্যম জানায়।।

ছবি: 
আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 5 (টি রেটিং)

বন্ধু

বন্ধু তোকে আকাশ দেবো,
দেবো ভোরের পাখি|
তোর ছবিটা বুকের ভিতর যতন করে রাখি|

তুইযে আমার চিরসাথী,
আমার আপনজন|
সকাল-সাঝে তোকেই আমার ভীষণ প্রয়োজন|

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 4 (টি রেটিং)

বিবিসির পক্ষপাত

বিবিসি বাংলা ইসরাঈলের গনহত্যাকে আড়াল করছে যারা গনহত্যার শিকার সেই ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ যুদ্ধাদের বলছে জঙ্গি।নিরপেক্ষতার মুখোষ পড়ে বিবিসি মানুষকে ধোকা দিচ্ছে।বিবিসির বাংলাদেশ সংলাপে যত অতিথিকে আমন্ত্রন জানানো হয়েছিল তাদের বেশির ভাগই হচ্ছে কমিউনিস্ট ও সেকুলার পন্থি বুদ্ধিজীবি।বাংলাদেশে বিরাট সংখ্যক মানুষ ইসলামি মূল্যবোধে বিশ্বাসী।তাদের পক্ষে যারা সেসব বুদ্ধিজীবিকে বিবিসি বাংলাদেশ সংলাপে ডাকেনি।ফিলিস্তিনি ইরাক আফগান যুদ্ধের সময় বিবিসির সংবাদ ছিল আগ্রাসী বাহিনির পক্ষে।সেসব যুদ্ধে মিথ্যা সংবাদ দিয়ে বিবিসি জনগনকে বিভ্রান্ত করেছিল।সাম্রাজ্যবাদী লুটেরা পশ্চিমা খুনি বাহিনি ইরাক ফিলিস্তিন আফগানিস্তানে যে গনহত্যা চালিয়েছিল বিবিসি তা প্রচার না করে গোপন করে।তুরস্ক ইউক্রেন ভারত স্পেন শ্রীলংকার বিছিন্নতাবাদী সন্ত্রাসী সংগঠনকে বিবিসি বলে বিদ্রোহী অথবা গেরিলা সংগঠন।কিন্তু ফিলিস্তিনির স্বাধীনতাকামী হামাসকে বলে জঙ্গি সংগঠন।এই যে বিবিসির দ্বিমুখি নীতি তাতেই প্রমানিত হয় বিবিসি পক্ষপাতদুষ্ট।সেকুলার বুদ্ধিজীবিদের কথিত নিরপেক্ষ রাজনৈতিক বিশ্লেষক সাজিয়ে বিবিসি মানুষকে ধোকা দিচ্ছে।এক পক্ষকে কাছে টেনে তারা

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 4 (টি রেটিং)

হেরেম নয়,হারাম শরীফ বলি|

আমাদের দেশের অধিকাংশ মানুষ পবিত্র বাইতুল্লাহ শরীফকে 'হারাম শরীফ' না বলে 'হেরেম শরীফ' বলে থাকেন| তারা মনে করে এতো বড় সম্মানিত আল্লাহর ঘরকে কিভাবে হারাম বলবো| হারাম বলতে সংকোচ বোধ করেন| তাদের বুঝা উচিৎ শব্দটি হেরেম নয় 'হারাম শরীফ|' কোরানে ২০ জায়গায় 'আল-মাসজিদুল হারাম' বলে উল্লেখ করা হয়েছে| সুতরাং স্বয়ং আল্লাহ যেখানে হারাম বলেছেন সেখানে আমাদের সংকোচ বোধ করার কোন কারণ নেই| বরং যারা হেরেম বলে থাকেন তাদেরই লজ্জা পাওয়া উচিৎ কেননা হেরেম বলা হয় রাজ-বাদশাদের বালাখানাকে যেখানে তারা ফূর্তি করে| মসজিদ কি ফূর্তির জায়গা?

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 5 (2টি রেটিং)

সহায়তা চাই

Amar
Bangla Normal ফন্ট থেকে কিভাবে SutonnyMJ বা Unicode -এ রূপা্ন্তর করা
যায়। অথবা Amar Bangla Normal ফন্ট ব্যবহার করে বিজয় কিবোর্ডে কি ভাবে লেখা
যায়। কারও জানা থাকলে জানাবেন।

আপনার রেটিং: None

-: প্রচ্ছদ আহ্বান :-

বইয়ের নাম: সমন্বয়, বইয়ের ধরন: কাব্য গ্রন্থ। (এখনও লেখা জমা নেওয়া হচ্ছে)
"সমন্বয়" একটি নতুন বইয়ের নাম যার লেখক সংখ্যা প্রায় ৭০ জন। বইটিতে থাকবে ছড়া ও কবিতা। লেখা সংগ্রহ এবং বাছায় কাজ দ্রুত গতিতে চলছে।

বইটির জন্য একটি প্রচ্ছদ
আহ্বান করা হচ্ছে। যারা প্রচ্ছদ শিল্পে নিজের নাম লিখাতে চান তারা ডিজাইন
পাঠিয়ে দিতে পারেন। আমাদের বইটি নভেম্বর মাসে প্রকাশিত হবে।
বইটি সম্পাদনা করবেন- মো. আহসান হাবীব ও মোহাম্মদ মিয়াজী।

আগ্রহী ডিজাইনারা ডিজাইন পাঠাবেন অক্টবর মাসের ৩১ তারিখ পর্যন্ত যে কোন সময়।

ডিজাইন আমাদের ফেজবুক পেজে পোস্ট করবেন এবং সফট কপি ইমেইল এ পাঠাবেন।
আপনাদের ডিজাইন হতে ডিজাইন বাছায় করার পর অক্টবর ৭ তারিখে সেরা ডিজাইন
প্রকাশ করা হবে।

যোগাযোগ-
প্রকাশক
সৃষ্টি প্রকাশনী
Mobile: +8801557864260
E-mail: sristyprokashoni@yahoo.com

ছবি: 
আপনার রেটিং: None

তরুণ লেখকদের বই প্রকাশ সংক্রান্ত একটি ঘোষনা

নতুন লেখকদের অনুরোধ ও আগ্রহের ভিত্তিতে সৃষ্টি প্রকাশনীর উদ্যোগে (প্রথম
কাব্য গ্রন্থ “অদম্য তারুণ্য” প্রকাশ কাল একুশে বই মেলা-২০১৪) একটি কবিতা
সংকলন বের করার প্রস্তুতি চলছে। বইটির নাম নির্ধারণ করা হয়েছে "সমন্বয়" পৃষ্ঠা সংখ্যা ৮০ (৫ ফর্মা), লেখক থাকবেন প্রায় ৭০ জন।
বইটি যৌথ ভাবে সম্পাদনা করবেন মোহাম্মদ মিয়াজী ও মো. আহ্সান হাবীব।
আপনি লেখা জমা দিতে আগ্রহী হলে, একসাথে ৫টি কবিতা বা ছড়া জমা দিবেন।
কবিতার আকার হতে হবে সর্বোচ্চ ২২ লাইনের। লেখা পাঠাতে পারবেন
sristyprokashoni@yahoo.com ই-মেইলটিতে অথবা সরাসরি জমা নিচের ঠিকানা
দুইটিতে:-

সৃষ্টি প্রকাশনী
আমিন বিশ্বাস প্লাজা
বসুন্দিয়া মোড় বাস স্ট্যান্ড
যশোর সদর, যশোর।

খান লাইব্রেরী
২১৩/২১৪, হাজী আহসান উল্লাহ সুপার মার্কেট
শেখেরটেক, আদাবর, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭।

শর্তঃ
১। লেখা হতে হবে অশ্লীলতা বিবর্জিত।

ছবি: 
আপনার রেটিং: None

¤ পড়ুন , পিতা মাতার সাথে ভাল ব্যবহার করতে শিখুন ¤

¤ পড়ুন , পিতা মাতার সাথে ভাল ব্যবহার করতে শিখুন ¤
আমরা অনেকেই আছি যাদের পিতা-মাতার বয়স হয়েছে , শারীরিক শক্তিও কমে গেছে ।
আমরা যখন বাবা-মাকে নিয়ে রাস্তা দিয়ে হাটি তখন আমাদের হাটার সময় বাবা-মা অনেক পেছনে পড়ে যায় । অথবা বাবা-মা আস্তে আস্তে হাটে ।
কিন্তু আমাদের গায়ে শক্তি থাকায় আমরা অনেক আগে চলে আসি ।
ঠিক তখনি পেছনে তাকিয়ে যখন দেখি মা অথবা বাবা অনেক পেছনে তখনি ধমক দিয়ে বলি "গায়ে জোড় নেই জোরে হাটতে পারোনা ? "
এখন মনে করার চেষ্টা করুন আপনার ছোট বেলার কথা , যখন আপনি খুব ছোট ছিলেন , এক পা , দু পা করে ছোট ছোট পা ফেলে আস্তে আস্তে হাটতেন তখন আপনার মা এবং বাবা আপনার দু হাতে ধরে আস্তে আস্তে আপনার সাথেও ছোট ছোট পা ফেলে হাটতেন আর আপনিও তাদের আঙ্গুলে ধরে হাটতে শিখেছেন ।
এখন হয়তো বলতে পারেন , "টাশকি বাবা , আপনিও কি আপনার মা বাবা আস্তে আস্তে হাটলে ধমক দেন ? "
না , আমি কখনোই এমন খারাপ আচরনটি আমার মা বাবার সাথে করিনি ।

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 5 (টি রেটিং)
Syndicate content