ব্লগসমূহ

মডারেটরের দৃষ্টি আকর্ষণ: একই লেখা পরপর তিনবার পোস্ট করা প্রসঙ্গে

আমাদের কোন কোন ব্লগার আছেন, যারা একই বিষয় নিয়ে ঘন ঘন লেখা পোস্ট করে ব্লগের প্রথম পেজটা ভর্তি করে ফেলেন। একই বিষয় বা একই কথা ঘুরিয়ে ফিরিয়ে বারবার লিখলেও সেটা গ্রহণযোগ্য। কিন্তু হুবহু একই লেখা যদি পরপর তিনবার পোস্ট করা হয়, সেটা অন্যান্য ব্লগারের জন্য এক বিঘ্নকারী উপাদানই (disturbing element) বটে। আমাদের ব্লগার ভাইয়েরা কি লেখা এডিট করতে জানেন না? অবশ্য যদি কখনো ব্লগ পোস্ট করবার সময়ে ইন্টারনেট সংযোগে সমস্যার কারণে সেভ বাটনে বারবার চাপ দিতে গিয়ে একই লেখা একাধিকবার পোস্ট করে বসেন, তাহলে ভুল ধরা পড়বার সাথে সাথে ব্লগারগণের নিজ দায়িত্বেই ডুপ্লিকেট পোস্টগুলো মুছে দেয়া উচিত। আর তারা তা না করলে ব্লগের মডারেটরই হস্তক্ষেপ করে অতিরিক্ত ও রিপিটেড পোস্টগুলো মুছে দিতে পারেন। এছাড়া একই লেখকের একাধিক নাম ব্যবহারকেও নিয়ন্ত্রণ করতে পারলে ভালো হয়।
আপনার রেটিং: None

মগবাজার উড়াল সড়কে বদলে গেছে রাজধানীর চিত্র

বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের চাকরিজীবী মোস্তফা কামাল। থাকেন বনানীতে। অফিস মতিঝিলে। প্রতিদিন সকালে কাজী নজরুল ইসলাম সড়ক ব্যবহার করে অফিস যেতে যেতে দুই ঘণ্টা, কখনো বা তার চেয়ে বেশি। ফেরার পথে সময় লাগে আরও বেশি। আট ঘণ্টা অফিস করে যতটা না ক্লান্ত হতেন, তার চেয়ে বেশি ক্লান্তি লাগত পথের যানজট। - See more

ছবি: 
আপনার রেটিং: None

মগবাজার উড়াল সড়কে বদলে গেছে রাজধানীর চিত্র

বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের চাকরিজীবী মোস্তফা কামাল। থাকেন বনানীতে। অফিস মতিঝিলে। প্রতিদিন সকালে কাজী নজরুল ইসলাম সড়ক ব্যবহার করে অফিস যেতে যেতে দুই ঘণ্টা, কখনো বা তার চেয়ে বেশি। ফেরার পথে সময় লাগে আরও বেশি। আট ঘণ্টা অফিস করে যতটা না ক্লান্ত হতেন, তার চেয়ে বেশি ক্লান্তি লাগত পথের যানজট। - See more

ছবি: 
আপনার রেটিং: None

মগবাজার উড়াল সড়কে বদলে গেছে রাজধানীর চিত্র

বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের চাকরিজীবী মোস্তফা কামাল। থাকেন বনানীতে। অফিস মতিঝিলে। প্রতিদিন সকালে কাজী নজরুল ইসলাম সড়ক ব্যবহার করে অফিস যেতে যেতে দুই ঘণ্টা, কখনো বা তার চেয়ে বেশি। ফেরার পথে সময় লাগে আরও বেশি। আট ঘণ্টা অফিস করে যতটা না ক্লান্ত হতেন, তার চেয়ে বেশি ক্লান্তি লাগত পথের যানজট। - See more

ছবি: 
আপনার রেটিং: None

চালু হলো দেশের প্রথম ডিটিএইচ সেবা রিয়েলভিউ

 

আপনার রেটিং: None

খাদ্য পুষ্টি বিষয়ক গান

কোন বাড়ির বৌগো তুমি

রান্ধো ভালো তরকারি,  তরকারি

যাইও না ভুলিয়া তুমি

কথা কিছু দরকারি।।

ধোয়ার পরে কাটো সবজি বড় বড় করে

খাদ্য পুষ্টি যায় চলিয়া ধুইলে কাটার পরে, বৌরে

ধুইলে কাটার পরে।  

অধিক তাপে অল্প সময় ঢাকিয়া রান্ধন সারি

যাই ওনা ভুলিয়া তুমি.. ..

কোন বাড়ির বৌগো তুমি

রান্ধো ভালো তরকারি,  তরকারি

যাইও না ভুলিয়া তুমি

কথা কিছু দরকারি।।

ও বৌ তুমি খাদ্য মন্ত্রী!  পুষ্টি তোমার হাতে

গুন বিচারে খাদ্য বানাও,  মাড় ফেলোনা ভাতের, বৌরে

মাড় ফেলোনা ভাতের

বসতবাড়ির টাটকা সবজি আমরা ফলাতে পারি ।। 

যাইওনা ভুলিয়া তুমি .. .. 

কোন বাড়ির বৌগো তুমি

রান্ধো ভালো তরকারি,  তরকারি

ছবি: 
আপনার রেটিং: None

বাংলার ইতিহাসের কিছু দুর্লভ তথ্য (কিছু চিঠি)

বাংলার ইতিহাসের কিছু দুর্লভ তথ্য (কিছু চিঠি) 

https://youtu.be/PwDovh65pdI

আপনার রেটিং: None

একনেকে ৭ হাজার কোটি টাকার ৯ প্রকল্প অনুমোদন

এশিয়ান হাইওয়ের সঙ্গে নিরাপদ যোগাযোগ ব্যবস্থা
নিশ্চিতকরণ এবং ভারতের মধ্যে উচ্চ সম্ভাবনাময় অর্থনৈতিক জোন তৈরির সুযোগ সৃষ্টির
লক্ষ্যে ‘ক্রসবর্ডার নেটওয়ার্ক
ইম্প্রুভমেন্ট প্রজেক্ট (বাংলাদেশ)’ উন্নয়ন প্রকল্পের
চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক)। এই
প্রকল্পের মোট ব্যয় নির্ধারণ করা হয়েছে ২ হাজার ৪৭২ কোটি ৯৩ লাখ টাকা। এছাড়া এই
প্রকল্পটিসহ ৬ হাজার ৯৯ কোটি ৬৮ লাখ টাকা ব্যয়ে ৯টি প্রকল্পের চূড়ান্ত  অনুমোদন দেয়া হয়েছে।প্রকল্পটি অত্যন্ত
গুরুত্বপূর্ণ। উন্নয়ন সহযোগি সংস্থা জাইকার সহায়তায় ‘ক্রসবর্ডার
নেটওয়ার্ক ইম্প্রুভমেন্ট প্রজেক্ট (বাংলাদেশ)’ প্রকল্পের কাজ
হাতে নেওয়া হয়েছে বলে সরকারের উচ্চ পর্যায় থেকে জানা যায়। এশিয়ান হাইওয়ে বাংলাদেশের

ছবি: 
আপনার রেটিং: None

খুলনায় মাটির নিচ দিয়ে যাবে বিদ্যুৎলাইন

খুলনা মহানগরীর মাটির নিচ দিয়ে বিদ্যুতের লাইন নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে
ওয়েস্ট জোন পাওয়ার  ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি (ওজোপাডিকো)। বিদ্যুৎ সরবরাহে ওভারহেড লাইন
থাকায় ঝড়-বৃষ্টিতে প্রায়ই ক্যাবল নষ্ট হয়ে বিদ্যুৎ সরবরাহে বিঘ্ন ঘটে। এ কারণে
ভূগর্ভস্থ বৈদ্যুতিক লাইন স্থাপনের মাধ্যমে নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহের
ব্যবস্তা করার সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়েছে। 
সাংহাই, বেইজিং, নিউইয়র্কসহ বিশ্বের উবিশ্বের উন্নত শহরগুলোর আদলে খুলনাকে বিদ্যুতের

আপনার রেটিং: None

অসম্ভবঃ অসম্ভবঃ

একজন মানুষের সবার প্রতি দায়িত্ব পালন করা সম্ভব নয়। আপনি সমাজ সংসার আত্মীয় সবার দায়িত্ব পালন করতে সচেষ্ট। আপনি সবাইকে কম বেশী কথায় শান্তনা দিতে চেষ্টা করেন, উপহার দিয়ে আনন্দিত করতে চান। অসুখে সেবা করতে না পারলেও অর্থ দিয়ে সহযোগীতা করেন। ঈদে খুব দামী না হলেও সাধ্যানুযায়ী দামে পোষাক দিয়ে সন্তুষ্ট করতে চান, করেন। আপনি প্রবাসে কষ্ট করেও চান পরিবারের প্রতিটা লোকের মুখে হাসি ফোটাতে কিন্তু সবাই কি আনন্দিত আপনার আচরণে? নাহঃ কখনোই সবাই আনন্দিত নয়। আপনি কখনোই সবাইকে সুখী ও আনন্দিত করতে পারবেন না। আপনার সর্বস্ব বিলিয়েও আপনি সবার মুখে হাসি ফোটাতে পারবেন না। আপনি ফুটপাতের পাশে চলা মানুষকে একটি রুটি দিলেও তারা খুশি হবে। আল্লাহর কাছে আপনার জন্য দু'হাত তুলে দোয়া করবে। কিন্তু আপনার আপনজনদেরকে আপনি শূন্য হয়েও যদি উজার করে দিতে থাকেন তাদেরকে খুশি করা সম্ভব না। কারন মানুষ এমন বৈশিষ্ট্য সম্পন্ন প্রাণী তাদের অনেককে অনেক দিয়েও কখনোই খুশি, সুখী করা সম্ভব হয়না। আপনি তা কখনোই পারবেন না। এভাবে প্রতেকের জন্যই অসম্ভব ব্যপার সবাইকে সুখী করা।

আপনার রেটিং: None
Syndicate content