'জাহিদুর রহমান' -এর ব্লগ

সবচেয়ে ভয়ংকর সমস্যা

পৃথিবীতে যত সমস্যা আছে তার মধ্যে
সবচেয়ে ভয়ংকর সমস্যাটি হচ্ছে
আর্থিক সমস্যা।
অর্থ কষ্ট মানুষকে যে পরিমাণ কষ্ট দেয় তা অন্য কোন কষ্ট থেকে মানুষ পায় না।
:
আর্থিক সমস্যা কোন কাল্পনিক কিংবা
বিরহবিলাসী সমস্যা নয়।
:
এটা কোন ছ্যাঁকা খাওয়া প্রেমিকের সমস্যা নয়
যে বিড়িতেটান দিলেই সুখ পেয়ে
যাবেন।
:
কিংবা কোন আদরের কন্যার
লুতুপুতু বিরহী সমস্যা নয় যে বয়ফ্রেন্ড
স্যরি বললেই সুখ পেয়ে যাবেন।
:
এটা বাস্তবিক সমস্যা।
একটা মানুষকে মানসিক বিকলাঙ্গ করে দিতে আর্থিক সমস্যাই যথেষ্ট।
এটা মানুষের আত্মাকে খুন করে। দেহকে নয়...

আপনার রেটিং: None

নাসির ভাইয়ে জাগ্রত জনতা,কাজ্জাব লতিফ সিদ্দিকিতে নিশ্চুপ কেন?

যদি কাউকে প্রশ্ন করা হয় দেশ আগে না ধর্ম আগে তবে আমার বিশ্বাস বেশির ভাগ মানুষ বলবে দেশ আগে। কিন্তু একবার ও ভেবে দেখবেনা সীমানার বেড়াজালে এই দেশভাগ হওয়া শুরু হয় ১৯২৪ সালের পরে।
তাছাড়া আজ যেটা স্বদেশ সময়ের ব্যবধানে ক্ষমতা আর রাজনৈতিক মারপ্যাচে একটু পরে বিদেশ, খুব বেশি সময় নেয় না। ৪৭ এর পর একই ভাষাভাষী হবারপরও আমাদের পার্শবর্তী কলকাতা হয়ে গেল বিদেশ আর ভিন্ন ভাষা সংস্কৃতির দূর করাচি হয়ে গেলে বিদেশ। ৭১ এর পর করাচি কলকতা দুটাই বিদেশ। এছাড়া বিশ্বে বহুদেশ একদেশের থেকে অন্য দেশের মিলন আবার বিছিন্ন হতে সংগ্রাম ও দেখেছি। সুদান যেমন ভাগ হয়েছে তেমনি মিল হয়েছে জার্মানি। তাইওয়ান, কিউবা, ইউক্রেনের কথা নাইবা বললাম।
.
কিন্তু এই দেশ নিয়ে আমাদের মাতামাতির শেষ নেই। পবিত্র রমযান মাসেও দেশের খেলার অযুহাতে রোজা নামায বাদ দিতেও পিছপা হয়নি। দোয়া কবুলের যে মাসে আল্লাহ গুনাহ মাফ করার জন্য উত্‍সাহিত করেছেন। সেখানে আমরা অপব্যবহার করছি গুনাহে লিপ্ত কাজে জয় লাভ করার জন্য।
.

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 3 (টি রেটিং)

ঈদের কেনাকাটা

দোস্ত চল ঈদের কেনাকাটা করতে যাই, এত তাড়াতাড়ি কেন.?
আরে মেয়েরা যেভাবে ছেলেদের প্যান্টশার্ট কিনছে পরে গেলে থ্রিপিছ ছাড়া কিছু পাওয়া যাবে না

আপনার রেটিং: None

চির সত্য

জীবনের দুইটা দিন চির সত্য।
প্রথমদিনে জীবন শুরু হয় নিজের কান্না দিয়ে আর দ্বিতীয়দিনে জীবন শেষ হয় অন্যের কান্না দিয়ে।
আর মাঝখানে থাকে পাওয়া না পাওয়ার হাসি কষ্ট।

আপনার রেটিং: None

ধর্ষন

যাবত্‍ জীবন মানে কিন্তু সারা জীবন নয়। ফৌজদারি দন্ডবিধিতে যদি কাউকে যাবত্‍ জীবন কারাদন্ড দেয়া হয় তার মানে এই নয় যে তাকে মৃত্যুর আগ পর্যন্ত কারাগারে থাকতে হবে। বরং একটি নির্দিষ্ট সময় পর সে মুক্তি পেয়ে যাবে।
পূর্বে ধর্ষনের সর্বোচ্চ শাস্তি ছিল মৃত্যুদন্ড যাকে কমিয়ে আনা হয়েছে যাবত্‍ জীবন কারাদন্ডে। মিরপুরে পঞ্চম শ্রেনীর এক ছাত্রী হত্যার দায়ে শিক্ষককে যাবত্‍ জীবন কারাদন্ড দেয়া হয়েছে। এটা তার জন্য উপযুক্ত নয় তারপরও আশার বিষয় শাস্তি তো হয়েছে।
কিন্তু আমরা বার বার অপরাধীকে সুযোগ করে দিচ্ছি অপরাধ করার জন্য। অপরাধ কে অপরাধ না বলে বলছি দুষ্টামি। আবার অপরাধ প্রমান হলেও গড়িমসি করছি শাস্তি দিতে। ভিকেরুনন নেসা স্কুলের শিক্ষক পরিমলকে যদি আমরা দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তি দিতে পারতাম তবে মিরপুরের এই শিক্ষক সাহস করত না।
আইনি জটিলতায় বারবার নিস্তার পেয়ে যায় অপরাধীরা আর আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর উদাসীনতায় বার বার বেড়ে যাচ্ছে যৌন নিপিড়নের মতো অপরাধ।

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 3 (টি রেটিং)

শবে বরাত।

বেশির ভাগ শুক্রবার গুলোতে একেক সপ্তাহে একেক মসজিদে জুমার সালাত আদায় করা হয়। আগে বাড়ি থাকলে আশে পাশের দুটা মসজিদে আদায় করতাম। কিন্তু প্রতি সপ্তাহে প্রায় একই রকম খুতবা প্রদান করায় এখন চেষ্টা করি দূরে দূরে মসজিদে জুমার সালাত আদায় করার।
অতিরিক্ত গরম থাকার কারণে আজ আর দূরে যাইনি। বাড়ির কাছে সালাত আদায়ের সিদ্ধান্ত ! একদম পাশে মসজিদ হওয়ায় খুতবা ঘর থেকে শোনা যাচ্ছিল। আজকের বিষয় ছিল শবে বরাত। সম্মানিত ইমাম সাহেব তার খুতবায় বলল শবে বরাত অর্থাত্‍ ভাগ্য রজনীতে পৃথিবীর সকল মানুষের হায়াত্‍, মাউত, রিজিক, ভাল-মন্দের বাজেট নির্ধারন হয়। যেমন প্রতি অর্থবছরে সরকার দেশের জন্য বাজেট ঘোষনা করেন তেমনি আল্লাহ শবে বরাতে পৃথিবীর মানুষের বাজেট নির্ধারন করেন।
ইমাম সাহেবের খুতবা শোনার পর চেষ্টা করেছি শবে বরাত সম্পর্কিত হাদিস গুলো পড়ার। যয়ীফ এবং তুলনা মুলক সহীহ প্রায় সব হাদীস গুলো পড়লাম। কিন্তু কোথাও এই ইঙ্গিত পেলাম না অর্থাত্‍ হাদিসের কোথাও বলা নেই মানুষের ভাগ্য এই রজনীতে লেখা হয়।

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 5 (3টি রেটিং)

কয়েকশ বছরের ঐতিহ্য

মক্কায় হাজার হাজার বছর ধরে চলে আসছিল মূর্তি পূজা।
ইসলাম গ্রহনের পর মুসলিমরা হাজার বছরের সেই ঐতিহ্যকে নিমিষেই ধসিয়ে দিয়েছে আল্লাহর আদেশের কাছে।
বাদশা আকবর থেকে মাত্র কয়েকশ বছরের ইতিহাস হলো নববর্ষ পালন।
আমরা মুসলিম হলেও আল্লাহর আদেশের বিপরীত কয়েকশ বছরের ঐতিহ্যকে ধরে রাখার জন্য রীতিমত জিহাদ করছি।
নববর্ষ পালন করার পর আসলেই কি আমরা নিজেকে মুসলিম দাবী করতে পারবো ?
যে নববর্ষের সূচনা হয় মূর্তি নিয়ে শোভাযাত্রার মাধ্যমে...

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 5 (টি রেটিং)

পহেলা বৈশাখ পালন করা অনৈসলামিক কাজ।

বছর ঘুরে আবার আসছে একটি দিবস/উত্‍সব পহেলা বৈশাখ। চাষাবাদও এজাতীয় অনেক কাজ ঋতু নির্ভর বিধায় তত্‍কালীন ভারতের মোগল সম্রাট আকবর প্রচলিত হিজরী চন্দ্র পঞ্জিকাকে সৌর পঞ্জিকায় রূপান্তরের সিদ্ধান্ত নেয়। 

পিছনে ফিরে দেখা। """"""""""

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 4 (টি রেটিং)

বাঙালি এক আজব প্রাণী

আমরা যখন জিতি তখন জিতে কোটি বাঙ্গালি.....
হারলে শুধু মোরাই হারি এগারজন কাঙ্গালি.......
ছক্কা দেখে যে মুখগুলো গ্যালারি কাঁপায় চিৎকারে....
একটি হারে সে মুখগুলো ফাটে গালি ধিক্কারে...
যে হাতগুলো একটি জয়ে হাত তালিতে মাঠ ভরায়...
একটি হারে সে হাত থেকেই খালি বোতল-'ক্যান' গড়ায়....
বীর বাঙালী, বেশ বাঙালী, যাও এগিয়ে, মার ঘুরিয়ে.....
আমরা বেড়াই ফেরি করে কোটি মনের স্বপ্ন নিয়ে.....
আমরা না হয় স্বপ্ন দেখাই, স্বপ্ন ভাঙি ভীন দেশে.....
কখনো কি জয় আনিনি স্বপ্ন ভরে বীর বেশে.....
জয় পরাজয় সার্বজনীন হার ঠেকাবে সাধ্য কার.....
পরাজয়ে কলা দিয়ে জয় বরণের কি অধিকার!!!
বাঙালি এক আজব প্রাণী আর না জানুক 'আবেগ' জানে!
ব্যার্থ-গ্লানি মানতে নারাজ, জয় পেতে চায় প্রতি ক্ষণে!

আপনার রেটিং: None

সেনা অফিসার হত্যা

“আমি চিৎকার করে কাঁদিতে চাহিয়া করিতে পারিনি চিৎকার, বুকের ব্যাথা বুকে চাপায়ে নিজেকে দিয়েছি ধিক্কার’।
২০০৯, ২৫ শে ফেব্রুয়ারি, ৫৭ জন চৌকস সেনা অফিসার হত্যা:
বুদ্ধিজীবী হত্যার কথা বইয়ে পড়েছি, সেই থেকে তাদের হত্যাকারীদের ঘৃনা করি....
জেল হত্যার কথা ইতিহাসে পড়েছি, সেই থেকে হত্যাকারীদের ঘৃনা করি....
জাতির ৫৭ সেনানায়কের লাশের বিভত্‍স দৃশ্য দেখেছি, উপলব্ধি করছি ষড়যন্ত্রের নির্মম বিষাক্ত তীর। তাই স্বাধীনতার চেতনা যতই ফেরী করা হোক আমি তাদের ঘৃণা করি করবো যত দিন বেঁচে থাকবো।...
বিশেষ দ্রস্টাব্দ্য
ফেরাউন, নমরুদ, হিটলার, মুসোলিনী, সাদ্দাম হোসেন, গাদ্দাফী এমন কি কথিত ছিল যাদের রাজ্যে সূর্য অস্ত যায় না সেই ইংরেজ স্বৈরাচারী শাসকেরও পতন হয়েছে। কোন শাসন ব্যবস্হাই পৃথিবীতে চিরস্থায়ী হতে পারেনি আর পারবেও না। কিন্তু ইতিহাসের বড় শিক্ষা ইতিহাস থেকে কেউ শিক্ষা নেয় না। তবে ইতিহাসের পুনারাবৃত্তি না ঘটলেও অত্যাচারির পরিনাম সবসময়ই নির্মম শুধু পদ্ধতিটাই বদল হয়।

আপনার রেটিং: None
Syndicate content