'এম এস লায়লা' -এর ব্লগ

মদিনার চত্বরে (৪)

প্রিয় নবী (সঃ) এর রওজাঃ-

মসজিদে
নব্বীর সৌন্দর্য বলে কিংবা লিখে তো শেষ করা যাবেনা! মসজিদে নব্বীর অফুরন্ত
সৌন্দর্যের মাঝে সবচেয়ে বেশী আকর্শনীয় বিষয় হল আমাদের প্রিয় হাবীব (সঃ) এর
রওজা মোবারক! এবং মানব মনের লোভনীয় আকাংখা হল রিয়াদ্বুল-জান্নাতে দুই
রাকাত নামাজ আদায় করা! এইখানে নাকি নামাজ পড়ে যে যা কিছু প্রার্থনা করে তার
প্রার্থনা কবুল করেন আল্লাহ তা'য়ালা রাহমানুর রাহীম! মসজিদে নব্বীতে সব
সময়ই প্রবেশ করা যায় কিন্তু রাসূল (সঃ) এর রওজা মোবারকে সব সময় প্রবেশের
অনুমতি নেই এখানে যাবার নির্দিষ্ট সময় আছে সেই সময়ই খুলে দেয়া হয় রাসূল
(সঃ) এর প্রেমে পাগল প্রেমীক/প্রেমীকা যুগলদের জন্য

আমার প্রিয়
হাবীব দয়ার নবী (সঃ) এর রওজা মোবারক জেওয়ারতের সৌভাগ্য নসীব হয়েছিল গত
ফেব্রুয়ারী মাসের ২৪ তারিখে! বাংলাদেশ থেকে একজন মুরুব্বী খালাম্মা
এসেছিলেন ওমরাহ পালন করতে তার স্বামির সাথে! স্বামি স্ত্রী ইভয়েই হুইল

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 5 (2টি রেটিং)

"ছোট বোনের বিয়ে ব্লগ পরিবারের সবাই নিমন্ত্রিত"


আমার প্রানপ্রিয় ছোট বোনের বিয়ে আগামি আগামি শুক্রবার ২৫শে এপ্রিল! সবাই প্রান খুলে দোয়া করবেন আমার বোনটির জন্য যেন বিবাহিত জীবনে সুখি হয়। আমরা প্রবাস থেকে জানাই আন্তরিক দোয়া! চোখে তো দেখতে পারবোনা প্রান খুলে দোয়া করছি সুন্দর ভাবে সমাধা হয় যেন বিয়ের শুভ কাজটি আপনারাও আমার ছোট বোনটির জন্য প্রান খুলে দোয়া করবেন। আমার বোনটি আমার কত প্রিয় তা লিখে বা বলে বুঝানো যাবেনা। আমরা আট ভাই বোনের মধ্যে এই বোনটি আমার প্রানের মত প্রিয়॥ তাই বোনের বিয়েতে বোনের বিয়োগের মনের না বলা কষ্টগুলো ব্লগের সবার সাথে শেয়ার করছি। বোনের বিয়ের আনন্দ আর বিয়োগে কষ্টে আর আমার টাইপের গতি চলছেনা। তবে সবার কাছে অনুরোধ আমার বোনের জন্য দোয়া করতে ভুলবেন না। 

ছবি কৃতজ্ঞতা।

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 5 (2টি রেটিং)

হতাশায় প্রার্থনা"

কচুপাতার জলের মত ঈমান নিয়ে
ছোট-খাট টুটা-ফাঁটা আমল দিয়ে
কিভাবে উঠবো কঠিন হাশরের ময়দানে?
কিভাবে দাড়াবো হে আল্লাহ তোমার সামনে?

সামান্য ঈমান বাতাসের দোলায়
পড়ে নিঃশ্বেস হয়ে যাবে!
বেঈমান হলে তখন আল্লাহর কাছে
হিসাব দেবো কিভাবে?

ছোট ছোট আমল আর অল্প ঈমান দিয়ে
কি করে করবো মিজানের পাল্লা ভারি?
হতাশায় মন আমার হয় বেকারার
কি ভাবে বেশী বেশী নেক আমল করি?

হে আল্লাহ তুমি আমায় মু'মিন করে দাও
তোমার হুকুম মতে শুধু এই পৃথিবীতে চালাও
খেল-তামাশা সব থেকে বাঁচিয়ে
এই মনে এই মুখে শুধু তোমার কথা বলাও

যেভাবে চললে রাজি খুশি হও
সেভাবেই চালাও মোরে!
ভুল পথে যাই যদি ভুল করে
নিয়ে এসো কান ধরে!

বিতাড়িত শয়তান থেকে
বাঁচাও আমার ঈমান!
এজীবনে হেদায়াতের সাথে রাখো
জবানে জারি রাখো শুধু তোমার নাম!

২৮ শে আগষ্ট ২০০৭

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 5 (2টি রেটিং)

"শুধু তোমারই ক্ষমতা"

সুবিশাল আকাশের বড়ত্ব
আল্লাহ তোমারই মহত্ব!
সুগভীর সাগরের গভীরতা
এ যেন তোমারই উদারতা!

নীলাকাশে তারাগুলোর ঝুলে থাকা
শুধু তোমারই ক্ষমতা!
সু-শীতল বাতাস বয়ে যাওয়া
শুধুই তোমার দয়া!

চাঁদের আলো বিলানো
তোমার বিশেষ দান!
পাহাড়ে ঝর্না ঝরে যাওয়া
শুধুই তোমার অবদান!

পৃথিবীর দিকে দিকে
শুধুই তোমারই মমতা!
সবকিছুতে হে আল্লাহ তোমারই দয়া
একমাত্র তোমারই ক্ষমতা!

২৮শে মে ২০০৭

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 5 (টি রেটিং)

"বিদায় পুরোনো বর্ষ স্বাগতম নববর্ষ"

বারমাসের পূর্ণ একটি বছর
নিয়ে গেলো বিদায়!
পুলকিত মানব মন
নববর্ষের আগমন বার্তায়!

বাঁচতে কভু চাইনা আমি
একলা সুখি হয়ে!
বাঁচতে চাই আমরা সকল মানুষের ব্যথায়
সমব্যথী হয়ে!

হাসতে কভু চাইনা আমি
অপরজনকে কাঁদিয়ে!
হাসতে চাই আমি
সকল মানুষকে হাসিয়ে!

গড়তে কভু চাইনা আমি
একলা সুখের নীড়!
সুখের রঙে রাঙিয়ে সবাইকে
গড়বো সুখের কুটির!

বার মাসের পূর্ণ বছরে
নিরাপদ আর খুশিতে থাকতে চাই
নববর্ষের ফজর পড়ে প্রার্থনা মোর স্রষ্টার তরে
অচিরেই যেন এদেশের পূর্ণ শান্তি ফিরে পাই
 
১৪ই এপ্রিল ২০১৪

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 5 (2টি রেটিং)

মদিনার চত্বরে (৩)

প্রেমময় মদিনা"

সংসার
সন্তান পালন এরপর ইচ্ছে করে তো বেশীটা সময় মসজিদে নব্বীতে বসে কাটাই!
কিন্তু প্রতিদিন হয়ে ওঠেনা হারামে যাওয়াটা! এরপরও চেষ্টা করি সপ্তাহের চার,
পাঁচ, ছয়দিন নামাজ পড়তে! সবকিছু মিলিয়ে মসজিদে নব্বীতে নামাজ পড়তে যাই
কয়েকদিন পর পর! আসরের আগে যাই আসর, মাগরীব, কখনো এ'শা পড়ে আসি কখনো মাগরীব
পড়েই বাসায় আসি কারন মাগরীবের আগেই আমার সাথির অফিস ছুটি হয়, ও যদি বেশি
ক্লান্ত থাকে তবে তাড়াতাড়ি বাসায় চলে যাই আর নয়তো অনুরোধ করি অথবা সে জানতে
চায় কখন যাবো বাসায়? আমি জেনে নেই সে ক্লান্ত কিনা। ক্লান্ত না হলে আমার
এ'শা পড়ে যেতেই ভাল লাগে! বেশীর ভাগ সময় এশার নামাজ পড়েই যাই বাসায়!

মসজিদে
নব্বীর ভেতরে আসলে যে বিষয়টি হৃদয়ের রক্ত ক্ষরন ঘটায় তা প্রকাশ না করে
পারছিনা! প্রতিদিনই কেউ না কেউ গত হয়ে যাচ্ছেন। দিনগুলো যেমনি করে সপ্তাহ,
মাস, বছর, যুগের রুপ নেয় এরপর রুপ নেয় শতাব্দীতে আমাদের পাশের মানুষগুলোও

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 5 (3টি রেটিং)

মদিনার চত্বরে (২)

প্রেমময় স্বপ্নময় মদিনা!

মসজিদে
নব্বীর চত্বরে সবচেয়ে অবাক লাগে যে বিষয়টি তা আপনাদের সাথে শেয়ার না করে
পারছিনা! এখানে কেউ কারো পরিচিত নয় কেউ কারো ভাষাও বুঝে না কয়েকজনে বাদে
বাকি সবাই ইশারাতে কথা বলে! অবাক লাগে হল এখানে সবাই সবাইকে হাদিয়া (গিফট)
দেয় কেউ কারো পরিচিত হোক বা না হোক, হোক না সামান্য চকলেট, রুটি, খেজুর,
চিপস, কারো কাছে কিছু না থাকলে এক গ্লাস জমজমের পানি দিয়ে হলেও হাদিয়ার
লেনদেন করবে! বেশীর ভাগ শিশুদেরকে এসব হাদিয়া দেয়া হয়! শিশুদেরকে এত আদর
মমতা করে, এত কোমল ব্যবহার করে যে স্বচোখে না দেখলে বিশ্বাস হবেনা!

আরেকটি
বিষয়ও আমাকে পুলকিত করে আমাদের যে যেখানে এসে বসেছে কেউ সেখানে এসে গেলে
তাকে জায়গা করে দেয়! এত এত মানুষ এই চত্বরে বসে থাকে কেউ কারো সাথে
অপরিচিতের মত ব্যবহার করেনা! এমন কি নিজের জায়নামাজ বিছিয়ে দেয় নামাজ পড়ার
সময়! এতে করে এক অন্যের প্রতি খুব কোমলপ্রান হয়! ভালবাসা বাড়ে একে অপরের

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 5 (3টি রেটিং)

‘’কাংখিত পাওয়া’’

রাত্রি যেন হল ভোর পাঁচটি বছর পরে
ভোরের রশ্নি ছড়িয়ে গেল আমার আঁধার ঘরে।
কাটিয়েছি সময় একেক আকাংখার তাসবীহ গুণে
অনেক সময় গিয়েছে কেটে কত কটুবাক্য শুনে।

অনেক জনে ঘুরেছে পিছু সুযোগ সন্ধানে
যখন জেনেছে বাঁধা আছি কোন প্রবাসীর বাঁধনে।
এমনই করে গেছে যে সময় হয়েছে পাঁচ বছরগত
বুকেরই ঘরে রয়ে গেছে স্মৃতিরুপে যন্ত্রনা কতশত

কষ্টের রঙে রাঙা এই তো ভালবাসা
তাকে নিয়েই মানবের মনে যত আশা ভরসা।
কত কষ্ট কত দুরত্ব কত যে ভাললাগা মিস
কষ্টের অনুভুতি ভুক্তভুগি ছাড়া রাখেনা হদিস।

দুরত্বেরই ব্যবধানে প্রার্থনা ছিল শুধু
আদম হাওয়ার মত এত দুরত্বে রেখোনা প্রভু
তাদের মত হায়াত নেইকো ধৈর্য ধরবো এতো
আর রেখোনা দুরত্বে মোদের মিলন ঘটাও দ্রুত।

অনেক সাধনা অনেক আরাধনা অনেক ধৈর্যের পরে
একত্র করেছেন মহীয়ানে দু-প্রান্ত থেকে দুজনেরে।
অনেক ধৈর্যের পরে যখন বুকের ঘরে বইছে হতাশার হাওয়া
তখনই মালিকে পূর্ণ করেছে অন্তরের কাংখিত পাওয়া।
২৫ শে মার্চ ২০১৪

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 5 (টি রেটিং)

মদিনার চত্বরে (১)

  সূচনাতেই মদিনার ইতিহাস

ছবি: 
আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 5 (4টি রেটিং)

"আদি অনন্তের প্রার্থনা"

আমার অন্ধকার অন্তরকে আলোকিত করতে
আল কোরআনই মাধ্যম।
আমার কলূসিত আখলাককে সুন্দর্য পূর্ণ করতে
আল কোরআনই উত্তম।

আমার অধিক নেক হায়াতের
মাধ্যম হল আল কোরআন।
হে স্রষ্টা মালিক আমার নেক কাজকে তুমি
করে দাও আরো বেগবান।

আল কোরআনই মাধ্যম
আমার ঈমানের মৃত্যুর তরে।
পরিপূর্ণ ঈমানের সাথে আমায়
ডাক দিও অন্ধকার ঘরে।

আল কোরআনই মাধ্যম
জাহান্নাম থেকে মুক্তি দিতে
আল কোরআনের মাধ্যমে
ইনশা-আল্লাহ যেতে পারি জান্নাতে

আল কোরআনের মাধ্যমে
আমি হতে পারি মু’মিন।
একমাত্র আল কোরআনই ঠিক করতে পারে
সকল মানুষের ঈমান একিন।

এই কোরআনের ঊছিলাতে
চাই যে সবার হেদায়াত
এথায় ঈমান ও হেদায়াতের উপর অটল রেখে
আখেরাতে দিবেন উত্তম জান্নাত

প্রার্থনা..............
হে আমার স্রষ্টা মালিক আপনার মহী-মাণ্বিত বাণীকে আমাদের জীবনের বাঁকে বাঁকে বাস্তব করে দিন।
আর আমাদেরকে কবুল করে নিন।

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 5 (টি রেটিং)
Syndicate content