সত্য বলা, চলা ও প্রচারই হোক বিসর্গের ভাষা...

হত্যাযজ্ঞ বন্ধে জাতিসংঘের হস্তক্ষেপ কামনার পাশাপাশি বিশ্বের সকল দেশের সমর্থন জরুরী

গত ২৫ আগস্ট রাত থেকে মিয়ানমারের সেনা, পুলিশ ও সীমান্তরক্ষী বাহিনী রাখাইন প্রদেশে
জঙ্গীবিরোধী অভিযানের নামে অসহায় রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর সদস্যদের ওপর যে মানবিক নির্যাতনে
যে বিপর্যয় নেমে এসেছে তা মর্মন্তুদ রাখাইন ট্র্যাজেডি হিসেবে আখ্যায়িত করা হচ্ছে।
যে যৌথ অভিযান শুরু হয়েছে তাতে জলস্থলে বা পাহাড় পর্বতে রোহিঙ্গাদের মৃতের সংখ্যা
৩ সহস্রাধিক ছাড়িয়ে গেছে। সাগর পথে টেকনাফে এ পর্যন্ত ৫টি নৌকাডুবির ঘটনা ভেসে আসা
লাশ মিলেছে ৫৬। নিখোঁজ রয়েছে আরও অন্ততপক্ষে অর্ধ শতাধিক। জাতিসংঘ, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্যসহ বিভিন্ন দেশের
আবেদন-নিবেদন উপেক্ষা করে মিয়ানমার বাহিনী রোহিঙ্গাদের ওপর বর্বর আচরণ অব্যাহত
রেখেছে তা বর্তমান সভ্য দুনিয়ার ইতিহাসে নতুন ঘৃণ্যতম বর্বরতার ইতিহাস সৃষ্টি
করেছে। নির্বিচারে গুলি করে হত্যা, হেলিকপ্টার থেকে গান
পাউডারে গ্রামের পর গ্রাম জ্বালিয়ে দেয়া, সহায় সম্পদ কেড়ে
নেয়াসহ এমন কোন অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা নেই যা সেখানে ঘটছে না। ফলে গত ১০ দিনে অর্থাৎ
২৫ আগস্ট গভীর রাতের পর থেকে বাংলাদেশে নতুন করে রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ ঘটেছে দেড়

আপনার রেটিং: None

দুবাইয়ে জিয়া পরিবারের হাজার কোটি টাকার সম্পদ

আপনার রেটিং: None

চাই সঠিক ও আদর্শ রাজনীতি

 

 

আপনার রেটিং: None

ব্রিটেন থেকে বহিস্কৃত হচ্ছেন তারেক জিয়া

 

 

 

আপনার রেটিং: None

প্রতিরোধ করতে হবে সকল দুর্নীতি

বর্তমান বাংলাদেশের
উন্নতি দেখে দেশে অনেক লুকায়িত শ্ত্রুর হিংসা হচ্ছে। তারা নানা ধরনের অপপ্রচার
চালাচ্ছে। দেশের শান্তিপূর্ণ রাজনৈতিক পরিবেশকে কিভাবে অস্থিতিশীল করা যায় সেই
পরিকল্পনা করছে সারাক্ষণ। তারা দেশের শান্তি চায় না। দেশের মানুষের উন্নতি চায় না।
দুর্নীতির মুকুট মাথায় পরে দেশের ক্ষতি করার জন্য নানা অপপ্রচার করছে। বর্তমানে
সরকারে থাকা দলটি দেশকে সামনের দিকে নিয়ে যেতে নানা উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ড করছে এতে
দেশ যেমন সামনের দিকে যাচ্ছে তেমনি দেশের মানুষ স্বাবলম্বী হচ্ছে। দেশের প্রধান
বিরোধী দলের তা সহ্য হচ্ছে না। তারা ক্ষমতায় থাকাকালীন সময় অবৈধ উপায়ে বাংলাদেশ
থেকে টাকা পাচার হয়েছে, ক্ষমতার অত্যুজ্জ্বল আলোকে ধাঁধিয়ে গিয়ে
দুর্নীতির মুকুট মাথায় নিয়ে তুঘলকি কায়দায় দেশ চালিয়েছিল। তাদের দলের নেতাকর্মীরা

আপনার রেটিং: None

বাংলাদেশে জঙ্গীবাদের ঠাই নেই

আমরা বিশ্বাস করি, বাংলাদেশে কোনোভাবেই
জঙ্গীবাদের ঠাই হবে না। অজ্ঞানতার কুহকে পড়ে যারা অশান্তির
আগুন জ্বালানোর অপচেষ্টায় লিপ্ত, যেভাবে অভিযান শুরু হয়েছে তাতে
তাদের বিলুপ্তিও খুব বেশি দূরে নয়। চলমান জঙ্গী
তৎপরতায় শঙ্কিত ও বিপন্ন শুভবুদ্ধিসম্পন্ন শান্তিপ্রিয় সব মানুষের প্রতি তাই কবির

আপনার রেটিং: None

কলঙ্কমুক্ত বাংলাদেশ চাই

বিএনপির অভ্যন্তরে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষ-বিপক্ষের অভ্যন্তরীণ
বিভক্তির শুরু অনেক আগে থেকেই। নেতৃত্বে মুক্তিযুদ্ধের গৌরবোজ্জল উত্তরাধিকার থাকা
সত্বেও দেশের রাজনৈতিক পরিমন্ডলে তাই তারা সমালোচিত, কখনো বা নিন্দিত। তারই জলন্ত প্রমাণ হয়ে এখনো দেশের মানুষকে গা শিহরিত
করে। জঙ্গিবাদ, বোমা, সন্ত্রাসী কার্যকলাপে মেতে উঠেছিল
তারা। উল্লেখ্য, ১৩ বছর আগে ২০০৪ সালে দিনদুপুরে শেখ
হাসিনার জনসভায় প্রকাশ্যে গ্রেনেড হামলা

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 1 (টি রেটিং)

অর্থ বানিজ্যের রহস্য ফাঁস

আগামীকাল
শেষ হচ্ছে বিএনপির দুই মাস জুড়ে নতুন সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন কর্মসুচী নাটক। তাদের
লক্ষ্যমাত্রা ছিলো এক কোটি সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন। মাত্র দুই মাসে ১০ টাকা করে

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 4 (টি রেটিং)

"ওয়াসীলাহ্ সম্পর্কে সূরা আল-মায়েদাহর ৩৫ নং আয়াতে আল্লাহ্ কি বলেছেন?" -আসুন জেনে নেই বিশুদ্ধ তাফসীরের আলোকে।

আসসালামু আলাইকুম।

ওয়াসী-লাহ্ সম্পর্কে মুসলমানদের মধ্যে বিভিন্ন ধারনা বিদ্যমান। কেউ জেনে বুঝে সেসব ধারনাকে ধারণ করে, পালন করে ও প্রচার করে থাকে। আবার বহু মানুষ না জেনে বা অসচেতন অবস্থায় ওয়াসীলার ভ্রান্ত ধারনার পথে চলে থাকে।

আসুন জেনে নেই কুরআনের বিশুদ্ধ তাফসীর থেকে-যা করা হয়েছে কুরআনের অন্য আয়াত, সহীহ্ হাদীস এবং নির্ভরযোগ্য প্রসিদ্ধ তাফসীরসমূহের আলোকে-প্রকৃতপক্ষে আল্লাহ্ ওসী-লাহ্ বলতে কুরআনে কি বুঝিয়েছেন।

ভালোভাবে পড়ার জন্য নিচের ছবিগুলোতে ক্লিক করুন>>>

ছবি: 
আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 5 (টি রেটিং)

কড়া নজরদারিতে পাঁচ তারকা হোটেল

বাংলাদেশের
সুনাম ও সুখ্যাতি বিশ্বের কাছে সমুন্নত রাখতে আসন্ন ঈদকে সামনে রেখে কড়া নজরদারিতে
রাখা হচ্ছে ঢাকার পাঁচ তারকা হোটেলের অতিথিদের। এ তালিকায় আছেন দেশি ও বিদেশি
অতিথিরা। কখন কে আসছেন, কোথায় যাচ্ছেন, কাদের
সঙ্গে বৈঠক করছেন, এসব নিয়ে কাজ করছেন দেশের তিনটি গোয়েন্দা
সংস্থা। এর বাইরেও অতিথিদের ওপর নজর রাখছে আরেকটি শীর্ষ গোয়েন্দা সংস্থা। কড়া
নজরদারির পাশাপাশি ঐসব অতিথির নিরাপত্তার বিষয়টিও গুরুত্ব সহকারে দেখছেন
গোয়েন্দারা। নির্বাচনকে সামনে রেখে এ নজরদারি বাড়ানো হয়েছে। আগে প্রতিটি পাঁচ
তারকা হোটেলে অন্তত দুইজন গোয়েন্দা কাজ করতেন। বর্তমানে সে সংখ্যা বাড়িয়ে ৫ জন করা
হয়েছে। অনলাইন বুকিং তালিকা অনুযায়ী
বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকায় মোট ৭টি পাঁচ
তারকা মানের হোটেল রয়েছে। এগুলো হচ্ছে- হোটেল ওয়েস্টিন, হোটেল সোনারগাঁও, রেডিসন,
সিক্স সিজন, রিজেন্সি, প্লাটিনাম
স্যুইট এবং হোটেল লেকশোর। এমন আরো দুটি হোটেলের নির্মাণকাজ চলছে। পাঁচ তারকা
হোটেলগুলোতে গোয়েন্দারা কাজ করছেন নিবিড়ভাবে। তারা দু’টি

আপনার রেটিং: None
Syndicate content