Believe it or not- শেখ মুজিব মরার আগ মূহূর্ত পর্যন্ত পাকিস্তানের নাগরিক ছিলো।

পাকিস্তানী নাগরিক হয়েই মুজিব স্বাধীন বাংলাদেশে ফিরেন ১৯৭২ সালের ১০ জানুয়ারী। যুদ্ধ চলাকালে পাকিস্তানের ফ্রন্টইয়ার প্রদেশের মিয়াওয়ালি জেলে ডাঃ কামাল হোসেনের সাথে বন্দী ছিলো শেমু রহমান। দেশে ফেরার জন্য মুজিব পাকিস্তানী পাসপোর্ট তৈরী করিয়েছিলো ১৯৭২ সালের জানুয়ারী মাসে।
.
পাকিস্তানী বিমান ভারতের আকাশ পার হতে পারবে না জেনে জাতিসংঘের ট্রাভেল ডকুমেন্ট পাওয়ার সুযোগ থাকা সত্বেও মুজিব জাতিসংঘের বিমানে করেই লন্ডন- দিল্লি হয়ে দেশে আসেন।
.
এসেই তিনি কোন রকম ভোট ছাড়া আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ হওয়া স্টাইলে হয়ে গেলেন বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট। এ যেন প্রেসিডেন্ট তো নয়, পিতৃ পরিচয় হীন এক জারজ সন্তান!
.
.
এবার আসুন সেই বাপের কন্যার কাহিনীতে- ভারতের বেঙ্গালেরুতে ভোটার আইডি/ জাতিয় পরিচয়পত্রে আছে শেখ হাসিনার নাম। ওই আইডি কার্ডের তথ্য অনুযায়ী শেখ হাসিনা ভারতের বেঙ্গালুরুর থানিসান্দ্রা এলাকার বাসিন্দা। পরিচয়পত্রে শেখ হাসিনা ও তার স্বামী মরহুম ওয়াজেদ মিয়ার নাম এবং তার ছবি জন্মতারিখ সহ পরিষ্কারভাবে দেয়া আছে।
.
বলতে লজ্জা লাগলেও এটাই সত্যি যে- একজন ভারতীয় নাগরিক আমাদের স্বাধীন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী। যার বাবা পাকিস্তানী নাগরিক হয়ে ছিলো স্বাধীন বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট। সব থেকে বড় কথা হলো- দু জনেই ভোট ছাড়া ক্ষমতা নিয়েছে।
.
শেষ আরো একটি ব্যাপারে হাঁটে হাঁড়ি ভাঙ্গি- হাসিনা কাহিনী ধামাচাপা দেওয়ার জন্য সর্ব প্রথম আমাদের অস্কারপ্রাপ্ত ফটোশপ খ্যাত প্রথম আলো বেগম খালেদা জিয়ার একটি পাকিস্তানী জাতীয় পরিচয় পত্র প্রকাশ করে বেগম জিয়াকে পাকিস্তানী নাগরিক দাবী করে।
.
ওই কার্ডে ছবি সহ বেগম জিয়ার নাম, স্বামী জিয়াউর রহমান এবং জন্মতারিখ (১৯-০৮-১৯৪৬) দেওয়া আছে। যার আইডি নং, 61101-9063070-1
.
কিন্তু আমি মুতি ভাইয়ের কাছে দুঃখিতের সাথে সরি এই কারনে যে, আসল ঘটনা ফাঁস করে দিতে হচ্ছে। আইডি 61101-9063070-1 নাম্বার কার্ডধারী পাকিস্তানী নাগরিকের নাম- গুল নাওয়াজ। যার বাবার নাম- শাহ মাহাম্মদ। জন্মতারিখ- ১১-০৬-১৯৭২।
.
অথছ আমাদের কাঁচা মাথা ওয়ালা অভিজ্ঞ মতি আলো নাওয়াজ সাহেবের আইডি কার্ড সুক্ষ্মভাবে এডিট করে বেগম জিয়ার ছবি বসিয়ে চালাচ্ছে মিথ্যাচার।
.
.
এই জন্যই তো মাঝে মাঝে ভাবি কেন তিনার ভারতের প্রতি এত ভালোবাসা। যেহেতু তিনি প্রমানিত ভারতীয় নাগরিক, মাতৃভূমির প্রতি টান থাকবে এটাই স্বাভাবিক।
.
কিন্তু বাংলাদেশী ভারতীয় ম্যাডাম আর ফটোশপ আলো হয়তো ভুলে গেছে- হাতের তালু দিয়ে কখনো আকাশ ঢাকা যায় না।
.
Everything is clear......

( Cltd )

আপনার রেটিং: None

Rate This

আপনার রেটিং: None