ফেসবুকের বিকল্প : মিল্লাত ফেসবুক

ফেসবুকে একটি গ্রুপ হযরত মোহাম্মদের (সাঃ) ব্যঙ্গাত্মক ছবি নিয়ে
প্রতিযোগিতার আয়োজন করায় আদালতের নির্দেশে চলতি মাসে ফেসবুক বন্ধ করে
দিয়েছিল পাকিস্তান। এতে পাকিস্তানের ফেসবুক ব্যবহারকারীরা বিপদে পড়ে যায়। যারা ফেসবুকে অভ্যস্ত ছিলেন তাদের মধ্যে ক্ষোভের সঞ্চার হলে পাকিস্তানসহ গোটা ইসলামী বিশ্বকে সামাজিক যোগাযোগের আওতায় আনতে পাকিস্তানে চালু করা হয়েছে একটি বিকল্প ফেসবুক। এর নাম দেয়া হয়েছে মিল্লাত ফেসবুক  http://www.millatfacebook.com

পাকিস্তানের ডন পত্রিকা জানায়, লাহোরের ছয় প্রযুক্তিবিদ একত্র হয়ে ফেসবুকের পাকিস্তানী ভার্সন তৈরি করেছে। ইতিমধ্যে ৫ হাজার ব্যবহারকারী এতে অ্যাকাউন্টও খুলেছেন। এর উদ্ভাবকরা বলছেন, ফেসবুকের সব বৈশিষ্ট্য মিল্লাত ফেসবুকে যোগ করা হবে। বিশ্বের ১৫০ কোটি মুসলিম জনগোষ্ঠী মিল্লাত ফেসবুকে আকৃষ্ট হবে বলে তাদের ধারণা। তারা বলেছেন, ইসলাম ধর্মের বাইরে অন্যান্য ধর্মের লোকেরাও এতে যোগ দিতে পারবে।

মিল্লাত ফেসবুকে যোগ দিন।

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 3.4 (5টি রেটিং)

একটা ভবিষ্যৎ বানী করি।

আগামী দুইমাসের মধ্যে নতুন সাইট ইন্তেকাল করবে অথবা নিদেন পক্ষে কমায় চলে যাবে Tongue out

আমার ইনটুইশনও তেমনটি।

এমন ভবিষ্যদ্বানীর পেছনে যুক্তি কি?

কিছু যুক্তি নিচের মন্তব্যে আগেই বলেছি। 

ফেসবুক কিন্তু চ্যারিটি না, বিজনেস। এক কথায় একটা বিজনেস দাঁড়াতে যে সব এলিমেন্ট দরকার, এর মধ্যে তার কোনটাই নাই।

তারপরও যদি টিকে যায়, তাহলে ভবিষ্যতে বিজনেস স্টাডিজ এ এইটাকে একটা মিরাকল কেস হিসাবে পড়ানো হবে তা সুনিশ্চিত।Smile

যদি সাইটটি কোন সাইজেবল অবস্থায় পৌঁছাতে পারে তাহলে ফেসবুক থেকে কপিরাইট লঙ্ঘনের নোটিশ আসতে পারে।

সাইট টি বলছে, তাদের ইউজার সংখ্যা অলরেডি ৬২০০

http://www.millatfacebook.com/announcement/

 

আজ তো দেখাচ্ছে: Over
70,000 Muslims

সরি, একটা ০ বাদ পড়ে গেছে গতকাল। এখন তো ৭৫,০০০ মেম্বার।

 

তবে  আমার পয়েন্ট সেটা না। যেমনটি ইমরান ভাই বলেছেন, কপিরাইট ইস্যু একটা ব্যপার। প্রধানত বিশাল ইনভেষ্টমেন্ট এবং ভালো বিজনেস মডেল দরকার এরকম একটা প্রযেক্ট সাসটেইন করতে, আবেগ দিয়ে সেটা সম্ভব না। পল্টন মোড়ে দাঁড়িয়ে 'ফাসি চাই, বন্ধ কর, নিপাত যাক' স্লোগান দেয়ার মত বেকার লোকের অভাব নেই মুসলিম দুনিয়ায়, অভাব পকেটে হাত দেয়ার লোকের আর কোন একটা পজিটিভ কাজ করার ব্যাপারে।

পল্টনে মিছিল করা এইসব ব্যাক্তিদেরকে আমি এখন পর‌্যন্ত কোন গঠনমুলক দাবি নিয়ে মাঠে নামতে দেখিনি।

আমি অনুরণন ভাইয়ের মত অত হতাশ নই, উদ্যোগতাদের সাধুবাদ জানাই। কিন্তু ওনারা ফেসবুকের কালার থীম এমনকি নাম পর্যন্ত কপি করেছেন - এটা ঠিক করেন নি। ওনাদের নিজেদের স্বকীয়তা বজায় রাখা উচিৎ ছিল। ফেসবুক থেকে মামলার হুমকি আসা এখন শুধু সময়ের ব্যাপার।

নতুন ধারার প্রয়োজন। অনুসরণের ফলাফল শেষমেষ ভাল হয়ে উঠে না।

-

সূর আসে না তবু বাজে চিরন্তন এ বাঁশী!

পাকিস্তানে ফেইসবুক খুলেছে।

আমি যা বুঝলাম তা হল ফেইসবুক কর্ত্ৃপক্ষ নিজে থেকে সেই প্রতিযোগিতার আয়োজন করেনি। ইউজারদের ব্যক্তিগত উদ্যোগ ছিল।

এসবক্ষেত্রে মুসলমানগণ বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই অনুকরণ করতে অভ্যস্ত হয়ে পড়েছে। "শুরু"টা করার মত মেধা যেন উধাও হয়ে গেছে মুসলিম বিশ্ব হতে।

-

আড্ডার দাওয়াত রইল।

> > > প্রতি শুক্রবার আড্ডা নতুন বিষয়ে আড্ডা শুরু হবে।

Smiling

মিল্লাত ফেসবুকের রিসেন্ট খবর কি?

গত কয়েকমাসের একসেস স্ট্যাটিসটিক্স
(ইমেজ ইনসার্ট না করতে পেরে ফ্লিকার এর লিন্ক দিলাম)

আমার  ভবিষ্যদ্বানী মোতাবেক উহা কোমায় চলিয়া গিয়াছে Sticking out tongue

expected ...........................

Rate This

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 3.4 (5টি রেটিং)