কেন করবেন IELTS

প্রথমেই একটি
কাহিনী বলি । কয়েকদিন আগের ঘটনা । আমার মেঝ মামা দীর্ঘ ১৬ বছরের প্রবাস জীবন শেষে
দেশে ফিরেছেন । স্বভাবতই উনার কাছে এখন বাংলাদেশের সব কিছুই নতুনের মতন ।  তাই পরশুদিন আমি মামাকে ঘুরতে বেরুলাম । তখন
মামার সাথে এক কথা দুই কথায় আমাদের দেশের বর্তমান শিক্ষা ব্যবস্থা এবং আগেকার
সময়ের অবস্থা নিয়ে আলোচনা করছিলাম । সত্যি বলতে তখন আমি কিছুটা হলেও IELTS কোর্সটার গুরুত্ব অনুধাবন
করছিলাম ।

মামা তার
দীর্ঘ প্রবাস জীবনের অভিজ্ঞতা থেকে বলছিলেন যে বাহিরের দেশে বাংলাদেশীরা শুধুমাত্র
ইংরেজিতে দুর্বল হওয়ার কারনে অনেক ক্ষেত্রে পিছিয়ে আছে । এমন অনেক ঘটনা আছে যে,
একটা চাকরির জন্য পুরোপুরি যোগ্য হয়েও শুধুমাত্র ইংরেজিতে ঠিকমত কথা বলতে না পারায়
চাকরিটা হয়নি । কিন্তু সেখানে IELTS করা থাকলে বাইরের দেশে এসব ক্ষেত্রে সম্ভাবনা অনেক বেড়ে যায় । আর আমরা
সবাই এখন মোটামুটি জানি বাইরের দেশ যেমন, UK, USA, Australia, New-Zealand,
Canada – এ পড়াশুনা বা ক্যারিয়ার গড়তে যেতে হলে IELTS পরীক্ষা দিতেই হবে ।

IELTS
নিয়ে অনেকের মাঝেই অনেক ভুল ধারণা থাকে । যেমন অনেকে মনে করেন IELTS করা থাকলে বিদেশে পড়তে যেতে খরচ কম পড়বে ইত্যাদি ইত্যাদি । কিন্তু
আসলে এমন কিছুই না । IELTS এর একটি ভালো স্কোর আপনাকে
ভিসা পাইয়ে দিতে এবং ঐসব দেশে গ্রহনযোগ্যতা বাড়াতে সাহায্য করবে শুধু । বলে নেয়া
ভালো, IELTS এর মাধ্যমে পরীক্ষা করে দেখা হয় আপনি বাহিরের
দেশে যেয়ে দৈনন্দিন কাজকারবার ঠিক মত সম্পন্ন করতে পারবেন কিনা । পড়াশুনার
ক্ষেত্রে যেমন নোট কালেক্ট করা, ইংরেজি ভাষায় লেকচার বুঝতে পারা, ইংরেজিতে কথোপকথন
করতে পারেন কিনা এগুলো IELTS এর মাধ্যমে যাচাই করে নেয়া
হয় ।

IELTS
একটি সার্টিফিকেট কোর্স এবং এখানে ইংরেজি ভাষায় আপনার Writing, Reading,
Listening এবং Speaking – এ পারদর্শিতা
মাপা হয় এবং সে অনুযায়ী নাম্বার দেয়া হয় । IELTS স্কোরিং
করা হয় ১ – ৯ এর মধ্যে এবং এই পরীক্ষা দেয়ার আগেই আপনাকে আপনার টার্গেট ঠিক করতে
হবে । সাধারণত ৬.৫ থেকে ৭.৫ কে ভালো স্কোর ধরা হয় । আর একটি ভালো বিশ্ববিদ্যালয়ে
ভর্তি হতে চাইলে আপনার IELTS স্কোর অন্তত ৬.৫ – ৭ থাকতেই
হবে ।

এখন আপনি কি
শুধু দেশের বাইরে যাবার জন্যই IELTS করবেন?? কখনোই না । IELTS স্কোর ইংরেজি ভাষায়
আপনার দক্ষতার মাপকাঠির মতন । তাই আপনি যদি ইংরেজি ভাষায় দুর্বল হয়ে থাকেন, তাহলে IELTS এর মাধ্যমে এই দুর্বলতা কাঁটিয়ে উঠতে পারেন । আর ইংরেজি নিয়ে আমাদের
দুর্বলতা অস্বাভাবিক কোন বিষয় না । কেননা ছোটবেলা থেকেই আমাদের ইংরেজি নিয়ে অনীহা
কাজ করে । কিন্তু IELTS পরীক্ষার প্রস্তুতি হিসেবে আপনি
চাইলে এখন ই নিজেকে বদলে দিতে পারেন । আপনি যদি নিজে নিজে প্রস্তুতি নিতে পারেন
তাহলে তো খুবই ভালো । তবে আপনি চাইলে সাইফুরস, মেন্টরস, উইংস, ব্রিটিশ কাউন্সিলে
প্রশিক্ষণ কোর্স ও করতে পারেন ।

ইংরেজিতে
পারদর্শিতা এখনকার যুগে স্মার্টনেস হিসেবে ধরা হয় । IELTS নিয়ে আপনার কোন জিজ্ঞাসা থাকলে
ব্রিটিশ কাউন্সিলের ওয়েবসাইটে সকল প্রকারের তথ্য পাবেন ।

গুগল থেকে আমি
কিছু Resource
পেয়েছি, আশা করি আপনার কাজে লাগবে । 

Ielts Test Drive 
Take
Ielts
 
British
Council: LearnEnglish
 
IELTS Word Power 

আপনার রেটিং: None

Rate This

আপনার রেটিং: None