স্বামী ও পুত্রদের সামনে প্রকাশ্য অনাচার - দমনের জন্য ব্লগার ভাইদের সহযোগিতা কাম্য

ব্লগার ভাইদের মধ্যে যদি এমন কেউ থেকে থাকেন, যাদের পরিচিত কেউ আইন-শৃঙ্খলা বা গোয়েন্দা বাহিনীতে আছেন যিনি বিষয়ে বর্ণিত অপরাধ দমনে এবং অপরাধীকে ধরতে আগ্রহী, তাহলে তাঁদের জ্ঞাতার্থে সংক্ষেপে বিষয়টি তুলে ধরছি:-

ঢাকা শহরের একটি গুরুত্বপূর্ণ স্থানে একটি চারতলা বাড়ির দোতলায় এক ভ্রষ্টাচারী মহিলা তার স্বামী ও প্রাপ্তবয়স্ক পুত্রদের নাকের ডগায় প্রকাশ্য অনাচারে লিপ্ত আছে এবং স্বামী ও সন্তানদেরকে তার এ কাজে সহযোগিতা করতে বাধ্য করছে। মহিলা ও তার কথিত এক ভাই পারস্পরিক যোগসাজশে ব্যবসার নামে গৃহকর্তার কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিয়েছে এবং এভাবে কর্তাকে নি:স্ব করে সাংসারিক দৈনন্দিন খরচের জন্য উক্ত বহিরাগত লোকটির উপর নির্ভরশীল করে ফেলেছে। এভাবে গৃহকর্তাকে অনেকটা জিম্মি করে যখন তখন ঐ লোক আগমন করে, রাত কাটায়। মহিলার স্বামী রুম ছেড়ে দিয়ে বারান্দায় একাকী রাত্রিযাপন করে, আর বেডরুমে বহিরাগত লোকটির সাথে মহিলা নিদ্রা যায়।

স্বামী সম্ভবত নিজের দুর্বলতা প্রকাশের ভয়ে, বাড়ির মালিক পরিবারের মান-সম্মান হারানোর ভয়ে এবং সন্তানগণ মায়ের আনুগত্যের খাতিরে এটি নির্বিবাদে সয়ে যাচ্ছে; তাদের মধ্যে কেউ থানায় অভিযোগ করে যথাসময়ে পুলিশ ডাকতে আগ্রহী হবার সম্ভাবনা নেই।

এমতাবস্থায় এ ধরনের অপরাধ দমনে স্বত:প্রণোদিত হয়ে গোয়েন্দাগিরি করে দুষ্কর্মকারীদেরকে হাতেনাতে পাকড়াও করবার মতন অফিসার যদি কারো পরিচিত থেকে থাকেন, তাহলে তাঁর সহযোগিতা কামনা করছি।

এখানে আরো উল্লেখ্য যে, মহিলা চরম হিংস্র প্রকৃতির এবং তার সবগুলো সন্তানকে শিশুকাল থেকেই অমানুষিক নির্যাতনের শিকার হতে হয়েছে। শিশুদেরকে হত্যার চেষ্টাও কম করেনি। বিশেষ করে বড় ছেলেটি এখন এক প্রতিবন্ধী অটিস্টিক রোগীতে পরিণত হয়েছে। প্রয়োজনে মানুষ খুন করতেও দ্বিধা করবে না ঐ কুচক্রী মহিলা।

আপনার রেটিং: None

Rate This

আপনার রেটিং: None