নতুন করে কি নাশকতা ও নৈরাজ্যের ছক?

দেশে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি তৈরি করতে নাশকতা ও নৈরাজ্যের ছক কষে তৎপরতা শুরু করেছে স্বাধীনতাবিরোধী  চক্র। সরকারকে বেকায়দায় ফেলতে তাদের এ
তৎপরতায় ইন্ধন যোগাচ্ছে বিএনপির নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটসহ উগ্র মৌলবাদী ধর্মান্ধ দল ও বিভিন্ন জঙ্গীগোষ্ঠী। যুদ্ধাপরাধীর মামলা,
রায়, ফাঁসি কার্যকর করার কোন ইস্যুতেই নাশকতা ও নৈরাজ্য সৃষ্টির মাধ্যমে সুবিধা করতে না পেরে এখন আবার ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করে ফের অপতৎপরতায় লিপ্ত হচ্ছে জামায়াত-শিবির। দেশে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে বিভিন্ন সময়ে জঙ্গী সংগঠন আইএস, আল কায়েদা, জেএমবি,
হরকাতুল জিহাদ,
আনসারুল্লাহ বাংলা টিমসহ জঙ্গী সংগঠনগুলোর নাম ব্যবহার করে আসছে। ভিন্ন মতাবলম্বী মসজিদ,
মন্দির, উপাসনালয়ে হামলা,
হত্যা, পেট্রোলবোমা সন্ত্রাস চালিয়ে ব্যর্থ হয়ে আবার তারা নতুন করে নাশকতা ও
নৈরাজ্যের ছক কষেছে। চোরাগোপ্তা হামলা,
গুপ্তহত্যা, স্পর্শকাতর স্থানে হামলা, গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের হত্যার টার্গেট করে ছক কষেছে। রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বেশ কয়েকটি এলাকাকে টার্গেট করা আছে তাদের পরিকল্পনায়। যুদ্ধাপরাধের বিচারের রায় ফাঁসি কার্যকর বাধাগ্রস্ত করা হচ্ছে তাদের অন্যতম ও
মূল টার্গেট। তাদের নাশকতার ছক বাস্তবায়নে নিষিদ্ধঘোষিত বিভিন্ন সংগঠনের সদস্যদের কাজে লাগানো হচ্ছে। আইনশৃংখলা রক্ষ্যা কারী বাহিনী কঠোর হস্তে দমন করছে তাদের তৎপরতা।


 

আপনার রেটিং: None

Rate This

আপনার রেটিং: None