মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস হোক সব বিতর্কের ঊর্ধ্বে।

 

‘স্বাধীনতা’ শব্দটি অতি স্বাতন্ত্রিক, অধিকার সম্পন্ন এবং মর্যাদার। বাঙালী জাতির ইতিহাস ছিল পরাধীনতার শৃঙ্খলে আবদ্ধ থাকার। বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ ছিল পৃথিবীর ন্যায়সঙ্গত স্বাধীনতা সংগ্রামগুলোর একটি। বিশ্বের মানচিত্রে বাংলাদেশ একটি স্বাধীন ও সার্বভৌম রাষ্ট্র। কিন্তু বাংলাদেশের স্বাধীনতার রয়েছে সুদীর্ঘ রক্তঝরা ইতিহাস। এ স্বাধীনতা কুড়িয়ে পাওয়া একমুঠো মুক্তো বা বদান্যতার উপহার নয়। এক সাগর রক্ত ও লাখো প্রাণের বিনিময়ে অর্জিত হয়েছে এ স্বাধীনতা।  মুক্তিসেনার রক্তে রঞ্জিত এক সুদীর্ঘ সংগ্রামের ফসল। এ স্বাধীনতার সঙ্গে অনেক সংগ্রামী চেতনা বিজড়িত। আমাদের তরুণ প্রজন্মের কাছে মুক্তিযুদ্ধ এবং স্বাধীনতা শুধু একটি নাম নয় বরং এর থেকে আমরা সামনে এগিয়ে যাওয়ার, দেশকে এগিয়ে নেয়ার প্রেরণা খুঁজে পাই। কিন্তু আমাদের গর্বের স্বাধীনতা বারবার স্বাধীনতা বিরোধী শক্তিদের হাতে বাধাগ্রস্ত হয়েছে।
দেশের স্বাধীনতার সাড়ে চার দশক হয়ে গেল কিন্তু আজো আমাদের তরুণ প্রজন্মকে মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে বিভিন্নভাবে বিভ্রান্ত করা হচ্ছে। আমরা স্বাধীনতা যুদ্ধ দেখিনি কিন্তু স্বাধীনতা যুদ্ধের ভয়াবহতা বুঝতে শিখেছি। খুব ঘৃনা ও লজ্জা হয় যখন শুনতে এবং দেখতে পাই স্বাধীনতাবিরোধী চিহ্নিত যুদ্ধাপরাধীরা স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে এদেশের পতাকা তাদের গাড়িতে তুলেছে, এদেশের মুক্তিযোদ্ধাদের নিয়ে বিরূপ মন্তব্য করেছে। যারা জীবন বাজি রেখে আমাদের এ স্বাধীন দেশটি এনে দিয়েছেন তাদের প্রতি আমাদের কৃতজ্ঞতার শেষ নেই। আমরা আর স্বাধীনতা নিয়ে, মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে বিভ্রান্ত হতে চাই না। আমরা তরুণ প্রজন্ম চাই স্বাধীনতা এবং মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস হোক সব বিতর্কের ঊর্ধ্বে।

ছবি: 
আপনার রেটিং: None

সহমত

Rate This

আপনার রেটিং: None