তথ্য ও প্রযুক্তি খাতের উন্নয়নকে ত্বরান্বিত করবে আইসিটি এক্সপো

 

বর্তমানে বাংলাদেশ
তথ্য ও প্রযুক্তি খাতে ব্যাপক উন্নয়ন ঘটেছে। ২০১৬ সাল দেশের তথ্য ও প্রযুক্তি খাতের
উন্নয়নকে ত্বরান্বিত করবে। ডিজিটাল বাংলাদেশ
ও ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত করতে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে
সরকার। ইতিমধ্যে প্রযুক্তি খাতকে দেশের সবার অংশগ্রহণ
নিশ্চিত করতে জনগণকে আইটি সম্পর্কে ধারণা দিতে সরকার বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করছে।
আজ
প্রতিটি ঘরে ঘরে মোবাইল ফোন পোঁছে গিয়েছে যা দেশে এক বড় বিপ্লব ঘটেছে।
আগামীতে
আরো একটি পরিবর্তন ঘটবে তা হল মানুষের কাজ করবে রোবট।
ক্ষেত
খামার থেকে শুরু করে সকল ক্ষেত্রে কাজ করবে দেশের তরুণ প্রযুক্তি উদ্ভাবকদের তৈরি রোবট।
দেশীয়
প্রযুক্তি শিল্পের টেকসই উন্নয়ন ও সম্ভাবনার প্রতিচিত্র তুলে ধরতে দ্বিতীয় বারের মত  ভিন্নমাত্রায় আয়োজন করা হয় বাংলাদেশ আইসিটি এক্সপো ২০১৬।
সফটওয়্যার
শিল্পে নেতৃত্ব দেবার পাশাপাশি বাংলাদেশ একদিন হার্ডওয়্যার শিল্পেও নেতৃত্ব দেবে, এই প্রত্যয়কে
ধারণ করে তথ্য প্রযুক্তিতে সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ে তোলাই হচ্ছে এর লক্ষ্য।
সেজন্য
আইসিটি ডিভিশন যৌথ অংশীদ্বারিত্বে এই মেলার আয়োজন করেছে।
এদেশ
আর আমদানির সাথে থাকতে চাইনা আর এজন্যই হাইটেক পার্ক থেকে তেরী হবে রপ্তানী যোগ্য হার্ডওয়ার
ও সফটওয়ার পন্য। তাই আগামী ২০২১ সালের মধ্যে ৫ বিলিয়ন ডলার মূল্যের
হার্ডওয়ার ও সফটওয়ার 
রপ্তানী করতে সক্ষম হবে বাংলাদেশ।
বৈদেশিক
মুদ্রা সাশ্রয়,
নতুন কর্ম সংস্থান সৃষ্টি এবং সর্বোপরি ডিজিটাল প্রযুক্তি ব্যবহারের
মাধ্যমে প্রান্তিক পর্যায়ে জীবন মানের উন্নয়ন ঘটাতে এবং তথ্য প্রযুক্তির অত্যাধুনিক
পণ্য ও সেবার উপস্থাপন, উৎপাদক, বিক্রেতা-ক্রেতার মতবিনিময়, বিনিয়োগবান্ধব পরিবেশ তৈরিতে জনসচেতনতা
বৃদ্ধি ও ব্যাপক বেচাকেনার অবারিত সুযোগ এনে দিয়েছে এ আয়োজন।


 

ছবি: 
আপনার রেটিং: None

Rate This

আপনার রেটিং: None