বাংলার আকাশ এখন মুক্ত

১৯৭১ সনের কথা শুনলে আমাদের অনেকেই আতকে উঠেন। সেসময়
পাক হানাদার বাহিনীরা ঝাপিয়ে পড়েছিল নিরস্ত্র বাঙ্গালি জাতির উপর। সেই সময়
বাংলাদেশের ঊর্বর মাটি বাঙ্গালীর রক্তে লাল হয়ে গিয়েছিল। জাতির এই ক্রান্তি লগ্নে
সেনাপতির বেসে মঞ্চে এসে দারালেন এক কবি এবং শুনালেন তার অমর কবিতাখানি। ...

এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম,

এবারের সংগ্রাম, স্বাধীনতার সংগ্রাম।

সেদিন তীর হারা বাঙ্গালী জাতীর রণতরীর হাল ধরেছিল
সর্বকালের সর্ব শ্রেষ্ঠ মহামানব, জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমান। সেদিন
নিঃঅস্ত্র বাঙ্গালী জাতি বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানের বলিষ্ঠ ভাষণ শুনে, যার
যাকিছু ছিল তাই নিয়ে প্রস্তুত হয়েছিল। জাতীর জনকের একনিষ্ঠ ভাষণে বাঙ্গালী জাতি
শ্বাধীনতার যুদ্ধে ঝাপিয়ে পড়ে। শেখ মজিবুর রহমানের পরিকল্পিত বিমান হামলায় অবরুদ্ধ
পাকিস্তান বিমানবাহিনী সম্পূর্ণ বিধ্বস্ত হয়ে যায়। ১৯৭১ সালের এই দিনে ঢাকার আকাশে
বাংলাদেশ ও ভারতের যৌথবাহিনীর সাথে পাকিস্তান বিমানবাহিনীর শেষ মরণপণ লড়াই চলে।
অবশেষে দুপুরের মধ্যেই পাকিস্তান বিমানবাহিনীর শক্তি নিঃশেষ হয়ে যায়। বাংলাদেশে
আগে থেকে মজুদ করা পাকিস্তানের সব জঙ্গিবিমান ধ্বংস হয়ে যায়। সেদিন তেজগাঁও বিমানবন্দর রানওয়ে টনে টনে বোমা ফেলে
ধ্বংস করে ফেলা হয়। দুই দিন ধরে ঢাকার
আকাশে অনবরত বিমানের আনাগোনায় ঢাকাবাসীর চোখ ছিল আকাশের দিকে। বিভিন্ন এলাকায়
মিত্রবাহিনীর বিমান দুই শতাধিকবার হানা দেয়। অবশেষে ঢাকার আকাশ বাংলাদেশ
বিমানবাহিনীর নিয়ন্ত্রণে চলে আসে। অন্যদিকে
স্থলভাগেও কৌশলগত দিক দিয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন ঘাঁটিতে পাকিস্তান বাহিনী পরাজিত
হতে থাকে। বিভিন্ন এলাকা থেকে পাকিস্তান বাহিনীর পরাজয় এবং পিছু হটার খবর আসতে
থাকে ১৯৭১ সালের এই মাসে। পাকিস্তানি সৈন্যদের ব্যাপক হতাহতের ঘটনা ঘটে। জামালপুরে বিমান
হামলায় শতাধিক পাকিস্তানি সৈন্য নিহত
হয়। বিপুলসংখ্যক সামরিক যান ধ্বংস হয়। চট্টগ্রামে পাকিস্তান নৌবাহিনী ও মিত্র
নৌবাহিনীর মধ্যে তুমুল যুদ্ধ চলে। বখশীগঞ্জ যৌথবাহিনীর নিয়ন্ত্রণে আসে। পীরগঞ্জ, হাতিবান্ধা, পঞ্চগড়, বীরগঞ্জ, আখাউড়া, নবাবগঞ্জ মুক্ত হয়। জীবননগর, দর্শনা ও কোটচাঁদপুরে পাকিস্তান সেনারা আত্মসমর্পণ
করে। মুক্তিবাহিনী কুমিল্লা,
ফরিদপুর, টাঙ্গাইল এবং বিভিন্ন অঞ্চলে সামরিক দিক দিয়ে
গুরুত্বপূর্ণ বেশ কয়েকটি অঞ্চল দখল করে নেয়। সেদিন জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর
রহমান না থাকলে অমারা এই লাল সবুজের সোনার বাংলা ফিরে পেতাম না। আজ লক্ষ সালাম
তোমায়, হে জাতির পিতা।

আপনার রেটিং: None

Rate This

আপনার রেটিং: None