বিদেশীনির ভালবাসায় রয়েছে শিক্ষা

 

 

বাংলাদেশ
ও বাংলাদেশের মানুষকে একাত্তরের পরাজিত শক্তির এ দেশীয় দোসররাই ভালবাসতে পারে নাই।
ভালবাসবে কিভাবে? তারাতো এখনো বাংলার ভূ-খন্ডকেই মেনে নিতে পারছেনা। ভবিষ্যতেও
মেনে নিতে পারবেনা। কারন তারা পশ্চিম পাকিস্তানে বিশ্বাসী। অথচ বিদেশীরা পর্যন্ত
ভালবাসেন এই দেশ ও এদেশের মানুষকে। সঁপে দিচ্ছেন নিজেকে এদেশের তরে। তেমনি একটি
ভালবাসার ঘটনা শুনা যাক, এদেশে তার রক্তের কেউ নেই। তবুও এখানকার মাটি ও মানুষের ভালোবাসার
বন্ধনে আবদ্ধ হয়ে সাদা চামড়ার ভিনদেশী কাটিয়ে দিলেন প্রায় ৬০ বছর। মহান
মুক্তিযুদ্ধের নিভৃতচারী নিরব সাক্ষি এ মানুষটি যুদ্ধাহত মানুষের সেবা দিয়েছেন
অকাতরে। তাইতো এখানকার মায়ায় বরিশালের মাটিতেই মরতে চান লুসি। ইংল্যান্ডের সেন্ট
হেলেন শহরে লুসির জন্ম ১৯৩০ সালে। বরিশাল অক্সফোর্ড মিশন হাসপাতালে মাত্র ৩০ বছরে
বয়সে সেবায়েত হিসাবে যোগদান করেন। দুবছর পর দেশে ফেরার কথা থাকলেও এখানকার প্রকৃতি, মানুষ ও মাটির
ভালোবাসা মুগ্ধ করে তাকে। ৫৬ বছর ধরে চলছে তার লাল সবুজের দেশের সাথে মিতালি। গভীর
ভালোবাসা থেকে রপ্ত করেছেন পুরোপুরি বাঙালিয়ানা। হৃদয় জুড়ে এখন বাংলাদেশের প্রেম।
মনে প্রানে চাচ্ছেন বাংলাদেশ ভালো করুক, উন্নতি লাভ করুক। বেশ শুদ্ধ বাংলায় মনের ভাব প্রকাশ করেন লুসি। বিনে
পয়সায় কখনো সেলাই শেখানো, তাঁত প্রশিক্ষণ, পথ শিশুদের পাঠদান, কখনো বা হাসপাতালে সেবা দিয়েছেন দেশের বিভিন্ন জেলায়। কাজের শুরুটা
হয়েছে বরিশাল থেকে। পরবর্তিতে রাজশাহী, ঢাকা, নওগাঁ, যশোর, খুলনা, গোপালগঞ্জ হয়ে আবারো ভালোবাসার শহর বরিশালে ফিরে আসা। এখন তার কাছে
কেউ কেউ আসেন ইংরেজি থেকে বাংলায় অনুবাদের জন্য। আবার কেউ বাংলা থেকে ইংরেজি করার
জন্য। হাসিমুখেই তিনি এসব কাজ করে দেন। খুশি হয়ে যা দেন তাই গ্রহণ করেন। কোন
নির্দিষ্ট চাহিদা নেই তার। বৃটিশ নাগরিক হিসেবে মাসে ৭০ পাউন্ড ভাতা পান। যার
প্রায় সবটাই অসহায়দের মাঝে বিলিয়ে দেন লুসি। এদেশে তার রক্তের কোন আত্মিয় না
থাকলেও আত্মিয়তা করেছেন অনেক বাঙালির সাথে। এখন তারাই তার সব। আমাদের গৌরবময়
মুক্তিযুদ্ধের অনেক স্মৃতি রয়েছে তার। কোন
স্বীকৃতি বা লাভের আশায় নয়, সম্পুর্ন মানবিক দিক থেকেই তিনি বেসামরিকদের সেবা দিয়েছেন। আজ ঐ সকল চিহ্নিত কুচক্রিদের উচিত
ভিনদেশী লুসির কাছ থেকে শিক্ষা নিয়ে এই দেশ ও এদেশের মানুষকে মেনে নেয়া। দেশের
উন্নয়নে বাধা না হয়ে, বরং সহযোগিতা করা।


 

আপনার রেটিং: None

Rate This

আপনার রেটিং: None