আমরা এবং আমরা

চোখ বন্ধ করে চিন্তা করি। এত বছর কাটিয়ে এসেও কেন জানি নিজের কাছে মনে হয় প্রাপ্তির খাতা এখনো শূন্য।
বর্তমানে র কাছে নিজে প্রশ্ন করি,"আমি কি শূন্য?"
এভাবেই কি শেষ পর্যন্ত খালি হাতে থাকব?
আমার কাছে হয়ত কাড়ি কাড়ি টাকা নেই। নিজের অনেক সীমাবদ্ধতা আছে। কিন্তু এর মাঝেও কি আমি কিছুই পাই নি? সময় যতই এগোয় ততই এই সব প্রশ্ন কড়া নাড়ে। মনের গভীরে।
আমাদের সমাজ এমন ভাবে তৈরী যে এখানে সিস্টেমের বাইরে গিয়ে চিন্তা করার পর্যাপ্ত সুযোগ আমরা পাই না। আমাদের ভেতর থেকে জন্ম থেকে খোদাই করা থাকে বড় হয়ে চাকরি করতে হবে, বেশি টাকা উপার্জন করতে হবে ইত্যাদি ইত্যাদি। সমাজ আপনাকে বেধে রাখতে চাইবে নিজের গন্ডির মধ্যে। আমরা এতটাই অলস যে অই গন্ডি র ভেতরে থেকে নিজের গন্ডি আরো ও ছোট করে ফেলি। আমাদের মাঝে সন্তুষ্টি খুব কম। যত পাই তত চাই। এসব আমাদের হীন মানষিকতা মাত্র।একজন দিন মজুর কখনো দিনে হয়ত তিনশ টাকার বেশি উপার্জন করতে পারে না। কিন্তু দিনশেষে তিনশ টাকা উপার্জন করে সন্তুষ্ট না হয়ে ভাবে আরো বিশটা টাকা যদি পেতাম!!!
আমরা এমনই। আমাদের স্বভাব ই এমন। আমরা যতই জীবনের একেক টা স্টেইজ পাড়ি দেই সাথে সাথে আমাদের আশা র ধরনও চেইঞ্জ হতে থাকে। কখনো কি আপনি চিন্তা করেছেন আমরা ভাত খাচ্ছি এই শষ্য দানা র উৎপত্তি কোথায়?? কখনো কি ভেবেছেন সকালে যে কাকের চিৎকার শুনি এই কাক এর জন্ম কোথায়??
জানি এসব ভাবার আমাদের সময় নেই। শুধু আছে হা হুতাশ করে দিন গুজরান করার। অমক ভালো, অমকের তিনটা গার্লফ্রেন্ড,আমার একখান ও নাই ইত্যাদি ইত্যাদি।
কাল সকালে সূর্য উঠবে।প্রতিদিনই উঠছে। কখনো কি ভোরে উঠে সূর্যকে বলেছেন,"দেখ আজ আমি তোমার আহে উঠেছি!!" প্রতিদিন মানুষের সমস্যা দেখে কি মনে হয়েছে এসব কেন হচ্ছে??
জানি না এসবের শেষ কোথায়। জাফর ইকবালের একটা সায়েন্স ফিকশনে পড়েছিলাম কিভাবে একটা কম্পিউটার মানুষকে তার দাশ বানিয়ে রেখেছিল। আমরা তেমনই। সমাজের দাশত্ব করছি। সমাজ আজীবন আমাদের দাশ বানিয়ে রেখেছে?? না, আসলে আমরা নিজেরাই নিজেদের সমাজের দাশ বানিয়ে রেখেছি। নিজেদের দৃষ্টিভঙ্গি কে এখনো গুটি কয়েক বিষয়ে আবদ্ধ রেখেছি। আর সারা জীবন হা হুতাশ করেই যাচ্ছি।
চোখ বন্ধ করে চিন্তা করি।
আমি এত বছরে কোন কাজটা খুব ভালোভাবে করেছি??
আমি কি পাই নি তা নয়, কি করেছি যে এসব পাওয়ার কথা ভাবছি??
পারি কি এভাবে ভাবতে??

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 5 (টি রেটিং)

Rate This

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 5 (টি রেটিং)