সৌন্দর্যের নীলাভূমি দ্বীপ সেন্টমার্টিন

 

বাংলাদেশের সর্ব দক্ষিণে বঙ্গোপসাগরের উত্তর-পূর্বাংশে অবস্থিত এটি একটি
প্রবাল দ্বীপ। এটি কক্সবাজার জেলার টেকনাফ হতে প্রায় ৯ কিলোমিটার দক্ষিণে এবং মায়ানমার-এর উপকূল হতে ৮ কিলোমিটার পশ্চিমে নাফ নদীর মোহনায় অবস্থিত। কবে প্রথম এই দ্বীপটিকে মানুষ শনাক্ত করেছিল তা জানা যায় না। প্রথম
কিছু আরব বণিক এই দ্বীপটির নামকরণ করেছিল জিঞ্জিরা। উল্লেখ্য এরা চট্টগ্রাম থেকে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার যাতায়াতের সময় এই দ্বীপটিতে বিশ্রামের জন্য ব্যবহার করতো।
কালক্রমে চট্টগ্রাম এবং তৎসংলগ্ন মানুষ এই দ্বীপটিকে জিঞ্জিরা নামেই চিনতো।১৮৯০ খ্রিষ্টাব্দের
দিকে কিছু বাঙালি এবং রাখাইন সম্প্রদায়ের মানুষ এই দ্বীপের বসতি স্থাপনের জন্য আসে।
এরা ছিল মূলত মৎস্যজীবি। যতটুকু জানা যায়, প্রথম অধিবাসী হিসাবে
বসতি স্থাপন করেছিল ১৩টি পরিবার। এরা বেছে নিয়েছিল এই দ্বীপের উত্তরাংশ। কালক্রমে
এই দ্বীপটি বাঙালি অধ্যুষিত এলাকায় পরিণত হয়। আগে থেকেই এই দ্বীপে কেয়া এবং ঝাউগাছ
ছিল। সম্ভবত বাঙালি জেলেরা জলকষ্ঠ এবং ক্লান্তি দূরীকরণের অবলম্বন হিসাবে প্রচুর পরিমাণ
নারকেল গাছ এই দ্বীপে রোপণ করেছিল। কালক্রমে পুরো দ্বীপটি একসময় 'নারকেল গাছ প্রধান' দ্বীপে পরিণত হয়। এই সূত্রে স্থানীয়
অধিবাসীরা এই দ্বীপের উত্তরাংশকে নারিকেল জিঞ্জিরা নামে অভিহিত করা শুরু করে। সেন্ট
মার্টিন্স দ্বীপের আয়তন প্রায় ৮ বর্গ কিলোমিটার ও উত্তর-দক্ষিণে
লম্বা। এ দ্বীপের তিন দিকের ভিত শিলা যা জোয়ারের সময় তলিয়ে যায় এবং ভাটার সময়
জেগে ওঠে। বর্তমানে এখানে ছয় হাজারেরও বেশি লোক বসবাস করে। এখানকার লোকেরা প্রধানত
সামুদ্রিক মাছের ওপর নির্ভরশীল। এই দ্বীপে বহু প্রজাতির প্রবাল, শৈবাল, শামুক-ঝিনুক, কড়ি এবং পাথুরে শিলা রয়েছে। সেন্ট মার্টিন্স দ্বীপটি বাংলাদেশের অন্য সব দ্বীপ
থেকে ভিন্ন। এ কারণেই এই দ্বীপ গবেষক ও পর্যটকদের কাছে এতো আকর্ষণীয়। প্রতি বছর বহু
দেশি-বিদেশি গবেষক ও পর্যটক এখানে আসেন। সমুদ্রস্নান,
সমুদ্র সৈকতে সূর্যাস্তের চোখ জুড়ানো প্রাকৃতিক
দৃশ্য উপভোগ করা কিংবা শুধুই ঘুরে বেড়ানো- সবকিছুর জন্যই সেন্ট
মার্টিন্সের কোনো তুলনা নেই। নয়নাভিরাম সৌন্দর্য অবলোকনের
ও ভ্রমণের একটি আকর্ষনিয় পর্যটন এলাকা সেন্টমার্টিন দ্বীপ।
পরিবার পরিজন নিয়ে ঘুরে দেখার মত একটি জায়গা সেন্ট মার্টিন্স। সুযোগ পেলে যে কেউ
পরিবার পরিজন নিয়ে ঘুরে আসতে পারেন এখান থেকে।

আপনার রেটিং: None

Rate This

আপনার রেটিং: None