বাংলাদেশের সাথে সম্পর্ক আরো গভীর করতে চায় রাশিয়া

Share

জন্মলগ্ন থেকেই বাংলাদেশের
ঘনিষ্ঠ বন্ধু রাশিয়া। কিন্তু সম্পর্কের ৪৫ বছরেও দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্য খুব বেশি বাড়েনি।
এ অবস্থায় বাণিজ্যিক সম্পর্কে নতুন মাত্রা আনতে আন্তঃসরকার কমিশন গঠনের উদ্যোগ নিয়েছে
বাংলাদেশ ও রাশিয়া। এর মাধ্যমে দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্য ও সম্পর্ক আরো বাড়বে। সবকিছু ঠিক
থাকলে আগামী ফেব্রুয়ারিতে দ্বিপক্ষীয় এ চুক্তি সই হবে। বাংলাদেশের
বর্তমান উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে রুশ সরকারের এ পদক্ষেপ নিঃসন্দেহে একটি বড়
ভূমিকা রাখবে। ২০১৩ সালের শুরুতে প্রধানমন্ত্রী রাশিয়া সফর করেন। প্রধানমন্ত্রীর
সফরটি বেশ ফলপ্রসূ হয়। তার এ সফরেই দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্য বৃদ্ধিতে যৌথ বাণিজ্য কমিশন
গঠনের সিদ্ধান্ত হয়। তবে সম্পর্কের নানাবিধ বিষয়ে আলোচনার প্লাটফর্ম গঠনের জন্য যৌথ
কমিশনের প্রস্তাব দেয়া হয় রাশিয়ার পক্ষ থেকে। বিষয়টি নিয়ে রাশিয়ায়
সঙ্গে  বাংলাদেশ সরকারের  আলোচনা হয়েছে। বর্তমানে আন্তঃসরকার কমিশনের
ফ্রেমওয়ার্ক চুক্তির খসড়া তৈরিতে কাজ করে যাচ্ছে উভয় দেশ। এটি
হলে যৌথ কমিশনের চেয়েও ব্যাপ্ত পরিসরে আলোচনা করতে পারবে দুই দেশের সরকার। এর মধ্যে
ব্যবসা-বাণিজ্য, সংস্কৃতি, কারিগরী সহযোগিতা সবই আছে। আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে এ ফ্রেমওয়ার্ক
চুক্তির খসড়া নিয়ে ঐকমত্যে পৌঁছেছে উভয় পক্ষ।  এ কমিশন গঠন হলে বাংলাদেশের আরেকটি বৃহৎ
বাণিজ্যিক বাজার পাবে বাংলাদেশ। একই সাথে রুশ ব্যবসায়ীরাও বাংলাদেশে বিনিয়োগ করতে
পারবে। এতে করে বাংলাদেশ যেমন লাভবান হবে তেমনি উভয় দেশের মধ্যে যে সম্পর্ক ছিল তা
আরো গভীর হবে।

 

 

 

 

 

 

 

ছবি: 
আপনার রেটিং: None

Rate This

আপনার রেটিং: None