অসহায় মানুষকে আইনি সহায়তা দিতে জাস্টিস ফর উইম্যান

অসহায় মানুষকে আইনি সহায়তা দিতেই ইফরীত জাহিন কুঞ্জ গড়ে তুলেছেন  জাস্টিস ফর
উইম্যান। তিনি এই সংগঠনের চেয়ারম্যান।
তবে সাইবার ক্রাইম ঠেকাতেই বেশি কাজ করছেন তিনি। ২০১৫ সালের ২৮ জানুয়ারি গড়ে তোলেন জাস্টিস ফর উইম্যান। ফেসবুকে জাস্টিস ফর উইম্যানের ওপেন পেজের মাধ্যমে নীতিনির্ধারণী পর্যায় থেকে শুরু করে রেজিস্টার্ড সাড়ে ছয় হাজারের ওপরে ভলান্টিয়ার এবং আনরেজিস্টার্ড আরো অসংখ্য ভলান্টিয়ার যুক্ত হয়েছেন। বর্তমানে পেজটির ফলোয়ার ৩০ হাজারের ওপরে, সদস্য
১ লাখ ৪০ হাজারের বেশি। সেবা নিয়েছেন সমাজের বিভিন্ন পর্যায়ে থাকা ভিকটিমরা। এখানে নানা সেবা দেয়া হয়। সাইবার ক্রাইম মামলায় আইনজীবী ও পুলিশ দিয়ে সহায়তা করা হয়। গৃহস্থালি নির্যাতনে আইনি সর্বোচ্চ সহায়তা দেয়া হয়। সক্ষম বাঙালি প্রবাসীর সহায়তা নিয়ে অসহায় প্রবাসী বাঙালিকে সাহায্য করা হয়। সামাজিক অসংগতির বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হয়। নির্যাতিত ছেলেদের জন্যও আছে ‘জাস্টিস ফর ম্যান’। মূলত ধনী ভিকটিমের কাছ থেকে টাকা নিয়ে গরীব ও অসহায় ভিকটিমকে সহায়তা করা হয়। আপনি জাস্টিস ফর উইম্যানের কাছে হেল্প চান? আপনার
সামাজিক পরিচিতি ও সম্মানকে পুঁজি করে অনেকেই হয়তো আপনাকে বিপদে ফেলতে চাইছে। আইনের আশ্রয়ও নিতে পারছেন না। এই অবস্থায় জাস্টিস ফর উইম্যানের হেল্প নিতে পারেন। Justice For
Women, Bangladesh - JFWBD ফেসবুক পেজে
গিয়ে যে কেউ সাহায্যের আবেদন করতে পারেন। সাহায্য পেতে ইনবক্স করা, গ্রুপে পোস্ট
দেয়া বা পেজে দেয়া নম্বরে কল করেও সমস্যা জানাতে পারেন।

ছবি: 
আপনার রেটিং: None

Rate This

আপনার রেটিং: None