বাংলাদেশের বিজ্ঞানীরা তৈরি করেছে আলোক ফাঁদ

বাংলাদেশ একটি কৃষি প্রধান দেশ। বর্তমান সরকার দেশের উন্নয়নের জন্য
সকল ক্ষেত্রে গুরুত্ব দিচ্ছে। দেশের উন্নয়নে সব দিকের উন্নয়নের পাশাপাশি কৃষির
উন্নয়ন দরকার তা না হলে দেশ অনেক পিছিয়ে যাবে। তাই সরকারের সহায়তায় দেশের কৃষিবিদ
ও বিজ্ঞানীরা কৃষি ফসলের উন্নয়নে নানা পদ্ধতি উদ্ভাবন করছেন। ফসলকে রোগমুক্ত ও
উচ্চ ফলনশীল করতে নানা যন্ত্রের আবিষ্কার করছেন। বাংলাদেশে ফসলের মাঠে পোকা দমনের
জন্য মূলত রাসায়নিক ব্যবহার করা হয়, যেটা মারাত্মক ক্ষতিকর। ফসলের মাঠে কীটপতঙ্গ শনাক্তকরণ, পর্যবেক্ষণ ও দমনের
জন্য ব্যবহার উপযোগী সৌরশক্তি চালিত নতুন আলোক ফাঁদ উদ্ভাবন করেছে বাংলাদেশ ধান
গবেষণা ইন্সটিটিউট। সহজেই এটি কেনা যাবে ও তারাও এতে সহায়তা করবেন। খরচ হবে প্রায় দেড়
হাজার টাকা। আর এটি ব্যবহার করা যাবে দীর্ঘদিন ধরে। নতুন এই আলোক ফাঁদ মাঠে একবার
স্থাপন করলে সেটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে সূর্যের আলোর অনুপস্থিতিতে জ্বলে উঠবে এবং
সূর্যের আলোর উপস্থিতিতে আবার নিভে যাবে। নতুন এ উদ্ভাবন, ক্ষতিকর কীটনাশকের
ব্যবহার কমানোর পাশাপাশি পরিবেশ নির্মল থাকবে। আলোকে আকর্ষণ করে পোকাগুলো আলোর
কাছে আসবে এবং ফাঁদে পড়ে মারা যাবে। সূর্য অস্ত যাওয়ার সাথে সাথে আলোক ফাঁদ
অটোমেটিক জ্বলে উঠবে এবং দেড় বিঘা জমিতে একটি আলোক ফাঁদ রাখলেই কাজ হবে। একটা
আলোক ফাঁদের জন্য স্বচ্ছ ২০ ওয়াটের একটি সৌর প্যানেল লাগবে। আলোক ফাঁদের নিচে
একটি পাত্রে পানি ও কেরোসিন তেল থাকবে। পোকাগুলো কাছে এসে সেখানে পড়বে। ১০০ মিটার
পর্যন্ত দুর থেকে পোকা আসে। আর এটি নিয়মিত পরিষ্কার করা দরকার হয়না। ৭/৮ দিন পর
গিয়ে পানি পরিবর্তন করে মৃত পোকাগুলোকে ফেলে দিলেই হবে।


 

আপনার রেটিং: None

Rate This

আপনার রেটিং: None