জনবান্ধব বর্তমান সরকার

জনগনের
কল্যাণে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে বর্তমান সরকার। এরই ধারাবাহিতায় প্রধানমন্ত্রী ও
সংসদ নেতা শেখ হাসিনা আগামী দুই বছরের জন্য ভ্যাট আইন স্থগিত এবং ব্যাংক আমানতের
ওপর আরোপিত আবগারি শুল্ক এক লাখ টাকা পর্যন্ত ছাড় দিয়ে এক লাখ এক টাকা থেকে এক
কোটি টাকা পর্যন্ত তিন স্তরে দেয়ার ব্যবস্থা করেছেন। আবার ভ্যাটও আগের মতোই রাখা
হয়েছে। জনগণের
কোন দুর্ভোগ হোক, কষ্ট
হোক তা সরকার চায় না। বর্তমান
সরকার হচ্ছে উন্নয়নের সরকার। এ সরকারের সময়োপযোগী নির্দেশনায় আমরা আর পরনির্ভরশীল
হয়ে থাকব না। বিদেশের কাছ থেকে ভিক্ষা, অনুদান নিয়ে নয়, নিজের
পায়ে দাঁড়ানোর লক্ষ্য নিয়েই দেশের ইতিসে সর্ববৃহৎ বাজেট দিয়েছে এই সরকার। বর্তমান বাজেট হচ্ছে জনগণের কল্যাণের জন্য। বাজেটের ৯০
ভাগ প্রকল্পই নিজেদের অর্থায়নে বাস্তবায়ন করা হবে। বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে, এগিয়ে যাবেই। এ জন্য দেশবাসীরও সহযোগিতা প্রয়োজন। বাজেট বাস্তবায়নে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের কাছ
থেকে সরকারের ঋণ লক্ষ্যমাত্রা ছাড়াবে না বলে বেসরকারি খাতকে আশ্বস্ত করে করা
হয়েছে। সরকারের
ঋণের যে সীমা, তার
মধ্যেই থাকবে। বাড়তি ঋণ সরকার নেবে না, ফলে আর্থিক খাত ক্ষতিগ্রস্ত হবে না। এ নিয়ে দুশ্চিন্তার কোন কারণ নেই। অতীতেও জিডিপির ৫ ভাগ ঘাটতি ছিল, এবারও
তাই থাকবে। এতটুকুও বাড়বে না। আর বাজেটের সবচেয়ে বড় অর্জনই হচ্ছে দেশের ধনী-গরিবের
বৈষম্য হ্রাস করা, তাতেও সক্ষম হয়েছে সরকার। সামাজিক নিরাপত্তাকেও সবচেয়ে গুরুত্ব দেয়া হয়েছে। কোন উচ্চাভিলাষ নিয়ে ক্ষমতায় আসেনি বর্তমান সরকার। দেশের মানুষ কিভাবে ভাল থাকবে, সুন্দর
জীবন পাবে সেটিই সরকারের মূল লক্ষ্য। সেই লক্ষ্য নিয়েই ধারাবাহিকভাবে দেশের উন্নয়ন
করা হচ্ছে। ইনশাআল্লাহ
প্রস্তাবিত বাজেট বাস্তবায়নের মাধ্যমে দেশ উন্নত-সমৃদ্ধিশালী হিসেবে গড়ে উঠবে। সারা পৃথিবীই এগিয়ে যাচ্ছে, আমাদেরও
এগিয়ে যেতে হবে। পেছনে পড়ে থাকলে চলবে না। আমাদেরও সবকিছুতে পরিবর্তন আনতে হবে।
সেজন্যই এবারের বাজেটে অর্থনৈতিক খাতে বেশকিছু সংস্কারের প্রস্তাব করা হয়েছে। যাতে
আমরা আধুনিক যুগের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে পারি। ভ্যাট ও ট্যাক্স যা আদায় হয় তা তো
দেশের কল্যাণ ও উন্নয়নেই ব্যয় হয়। সব কিছু চাইব কিন্তু কিছুই দেব না এমনটা
হলে তো চলবে না। কর না দিলে তো আমরাই
পিছিয়ে পড়ব। ভিক্ষা
নিয়ে কেউ সম্মানের সঙ্গে চলতে পারে না। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু চেয়েছিলেন দেশের সব
মানুষ সুন্দর ও উন্নত জীবন পাবে তাঁর সেই স্বপ্ন পূরণেই কাজ করা হচ্ছে। অতীত সরকারগুলোর মতো ক্ষমতাকে ভোগ-বিলাসের বস্তু
হিসেবে দেখা হচ্ছে না। দেশের
মানুষ ভাল আছে কিনা সেটিই সবচেয়ে বড় ব্যপার। দেশের মানুষের কথা চিন্তা করেই বর্তমান সরকার জনকল্যাণকর সব পদক্ষেপ গ্রহণ
করছে।

ছবি: 
আপনার রেটিং: None

Rate This

আপনার রেটিং: None