গুম নয় আত্নগোপনে রয়েছে তারা

 

 

বাংলা ভাষায় গুম একটি নেতিবাচক শব্দ। অভিধানে গুম মানে ‘অন্তর্ধান’, ‘অদর্শন’, ‘অনুপস্থিতি’
‘অপহরণ’ এবং নিখোঁজ হওয়া। কিন্তু গুমের আছে
আরো ব্যাখ্যা। বাংলাদেশের মামলাবাজ মানুষেরা শত্রুকে জবরদস্তিমূলকভাবে অথবা কৌশলে
ধরে এনে হত্যা করে। কখনো কখনো স্বজনকে লুকিয়ে রেখে শত্রুর বিরুদ্ধে মামলা করে।
এভাবে গুমের ব্যক্তিগত ব্যবহার লক্ষ করা যায়। গুম নয়, দেশে
যা ঘটছে, তা আসলে আত্মগোপন। রাজনৈতিক বা অন্য কোনো কারণে কেউ
আত্মগোপন করলে সেটা গুম বলে প্রচার হচ্ছে। এ নিয়ে উদ্বেগের কিছু নেই।
আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সাদা পোশাকে ধরে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ একবারেই ভিত্তিহীন এ
ধরনের ঘটনার সঙ্গে সরকারের কোনো বাহিনীর সংশ্লিষ্টতা নেই। এসব ক্ষেত্রে কেউ অভিযোগ
করলে পুলিশ সংশ্লিষ্টদের উদ্ধার করেছে। দেখা গেছে, চাঁদা
আদায় বা অন্য কোনো উদ্দেশ্যে কেউ কেউ এমন ঘটনা ঘটায়। এগুলো গুম নয়। পারিবারিক বা
অন্য কোনো কারণে অনেকে স্বেচ্ছায় আত্মগোপনে থাকেন। তারপরও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী
তাদের উদ্ধারে তৎপর রয়েছে, যারা নিখোঁজ রয়েছে বলে অভিযোগ আছে তাদের খুঁজে বের
করতে। আলোচিত বিরোধী বিএনপি নেতা ইলিয়াস আলী যখন গুম হন, তখন
শীর্ষ রাজনৈতিক নেতৃত্বের মন্তব্যের মধ্য দিয়ে জাতীয় রাজনীতিতে ‘গুম’-এর গ্রামীণ ব্যবহার লক্ষ করা যায়। এর উদ্দেশ্য
হচ্ছে এমন অবস্থার সৃষ্টি করা যাতে সরকারকে দোষারোপ করা যায়। নিখোঁজ বিএনপি নেতা
ইলিয়াস আলীর মত যুগ্ম-মহাসচিব সালাহউদ্দিন আহমেদের ক্ষেত্রেও একই ঘটনা ঘটেছে। চাইলে
যে কেউ আত্মগোপনে যেতে পারে। পরে তার আত্মীয়-স্বজনকে বলতে বলা হবে সাদা পোশাকের
ডিবি তুলে নিয়ে গেছে, তাকে সরকার গুম করেছে। নিজেরা নিজেরা
আত্মগোপনে চলে যাবেন আর বলবেন সরকার গুম করেছে তা কি করে হয়। নিখোঁজ বিএনপি নেতা
ইলিয়াস আলীর ক্ষেত্রেও তা ঘটেছে বলে প্রতিয়মান। হুম্মাম কাদের চৌধুরী ও তানভীর
হাসান জোহা নামে একজন আইটি বিশেষজ্ঞ অন্তর্ধান হওয়ার পর বলা হয়েছিল সাদা পোশাকে
আইনশৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী তাদের তুলে নিয়ে গেছেন। কিন্তু আমরা কি দেখলাম কিছু
দিনের মধ্যে তারা সুস্থ ও স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে এসেছে। বিএনপির আরও যেসব নেতা
নিখোঁজ বলা হচ্ছে তারা নিজেরাই আত্মগোপনে আছে। সরকারের উপর দোষ চাপাতে বা নিজেদের
স্বার্থসিদ্ধি জন্যই তাদের এই অপপ্রয়াস। প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করতে এই ঘৃন্য
প্রচেষ্টা কোন দিনও সফল হবে না। এ দেশের মানুষ অনেক সচেতন তারা কোন ফাঁদে পা দিবে
না। যে কোন ধরনের অপকৌশল বা অপচেষ্টা করে অবৈধভাবে ক্ষমতায় যাওয়াকে প্রতিহত করবে।
বর্তমান সরকার উন্নয়ন ও জনবান্ধব সরকার কোন অপকৌশলে এই সরকারের সফলতাকে আড়াল করা
যাবে না। কারণ এই সরকারের উন্নয়ন আজ বিশ্বব্যাপী স্বীকৃত ও অনুকরণীয়। 


 

আপনার রেটিং: None

Rate This

আপনার রেটিং: None