পুরুষদের শার্টের বোতাম ডানদিকে আর মেয়েদের বামদিকে কেন?

বিষয়টি নিয়ে অনেক ঘাটাঘাটি করলাম, এবং Quora , Business Insider ঘেটে যা যা পেলাম, তা হলো এই বিষয়টি নিয়ে আসলে অনেক রকম মিথ প্রচলিত আছে। এ নিয়ে বিভিন্ন তত্ত্ব প্রচলিত আছে। আছে যুক্তি-পাল্টা যুক্তি। তবে ছেলেদের শার্টের বোতাম খোলা-লাগানোর ব্যবস্থা থাকে ডানদিকে। আর মেয়েদের শার্টে থাকে ঠিক তার উল্টো দিকে। এর একটাই কারণ হলো শার্টটি খোলা এবং পড়ার সুবিধা। ধারণা করা হয়, নেপোলিয়ান বোনাপার্ট এই নিয়মের প্রবক্তা। নেপোলিয়ান বোনাপার্টের যে কোনও ছবিতেই দেখা যায়, তার ডান হাত কোর্টের ভেতরে ঢোকানো এটা তখনই হয়, যদি কোটের বোতাম বাঁদিক থেকে ডান দিকে খুলতে হয়। অর্থাৎ তার শার্টের বোতাম বামদিকে থাকায় তাকে নিয়ে অনেক হাসাহাসির উদ্রেক হয়েছিল এবং তখন থেকেই তিনি এই নিয়ম জারি করেন। আরো একটি কারণের মধ্যে পরে নিম্নোক্ত বিষয়টি : পুরুষরা সাধারণত নিজের জামা নিজেই পরে এসেছেন। তা তিনি রাজা-মহারাজাই হোন, বা অতি সাধারণ কেউ। কিন্তু, আগেজকের দিনে রাজ পরিবারের মেয়েদের জন্য বাড়িতে দাসী থাকতেন। তারাই জামা পরিয়ে দিতেন রাজ রানী বা রাজ কুমারীদের। যেহেতু সেই দাসীদের বেশির ভাগই ডানহাতি বলে ধরে নেওয়া যায়, তাদের সুবিধার জন্যই মেয়েদের জামার বোতাম বাম দিকে রাখাই দস্তুর। রাজাই হোক বা সেনানি, তাদের ডান হাতে ধরতে হয়েছে তরোয়াল। খালি বলতে বাঁ হাত। বাঁ হাতে বোতাম খোলাপরার সুবিধার জন্যই জামার বোতাম বসানো হত ডান দিকে। আরো কিছু বিষয় পেলাম: মহিলাদের ক্ষেত্রে বাচ্চাকে যেহেতু বাম দিকে ধরতে হয়,তাই ডান হাত খালি থাকে। বাচ্চাকে স্তন পান করানোর সময় ডান হাতে শার্ট বা ব্লাউজের বোতাম খুলতে সুবিধে হয়। সেক্ষেত্রে বোতাম ডানদিকে থাকলে খুলতে কষ্ট হতো। তা মাথায় রেখেই বামদিকে বোতাম বসানো হয়। পুরুষরা ঘোড়া নিয়ে ছুটলে রাস্তার বামদিক ঘেঁষেই যেতেন, যাতে ডান দিকে তরোয়াল চালাতে সুবিধা হয়। সেই তরোয়াল গোঁজা থাকত বাম-কোমরে। বের করার সময় তরোয়াল যাতে জামা বা কোটের বোতামের খাঁজে আটকে না যায়, তার জন্যই বোতাম বসানো হতো ডানদিকে। আরো একটা মিথ আছে, যেটা আমার কাছে একদমই গ্রহণযোগ্য নয় সেটি হলো আগেরকার দিনে পুরুষ এবং নারীদের জন্য একই দর্জি কাপড় বানাতেনা এবং দর্জিকে একসঙ্গে গাদা গুচ্ছের জামা বানাতে হত। পুরুষ ও মহিলাদের জামা যাতে মিশে না যায়, চট করে আলাদা করে নেওয়ার সুবিধার জন্যই এই ব্যবস্থা। তবে আমি মনে করি, বিষয়টি সম্পূর্ণ অভ্যাস ও আয়েশের ব্যাপার মাত্র।

ছবি: 
আপনার রেটিং: None

Rate This

আপনার রেটিং: None