পাঁচটি ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালালো ইরান

 

ইরানের রেভল্যুশনারি গার্ড পারস্য উপসাগরে সামরিক মহড়ার চতুর্থদিন রোববার পাঁচটি ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালিয়েছে। ইরানে হামলা করলে শত্রুরা প্রস্তাবে বলেও হুঁশিয়ার করে দিয়েছেন এক ইরানি কমান্ডার।
ফার্স বার্তা সংস্থা জানিয়েছে, রেভল্যুশনারি গার্ডের নৌ বাহিনী একটি লক্ষ্যবস্তুতে ৫টি ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়েছে। তবে এ ক্ষেপণাস্ত্রগুলো নতুন কিনা তা তারা পরিষ্কার করে জানাতে পারেনি।
ফার্স বলেছে, বিভিন্ন জায়গা থেকে ক্ষেপণাস্ত্রগুলো ছোড়া হলেও প্রতিটি ক্ষেপণাস্ত্রই একসঙ্গে লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হেনেছে এবং তা পুরোপুরি ধ্বংস করে দিয়েছে।
এগুলো ছিল ভূমি থেকে ভূমিতে এবং ভূমি থেকে সাগরে নিক্ষেপণযোগ্য ক্ষেপণাস্ত্র।
ইরনা সংবাদ সংস্থা জানায়, গার্ড কমান্ডার মাসউদ জাজায়েরি বলেছেন, শত্রুরা ইরানে হামলা করলে তা প্রতিহত করার পরিকল্পনা ইরানের আছে এবং এতে করে শত্রুরা পস্তাবে।
পরমাণু কর্মসূচি নিয়ে পশ্চিমাদের সঙ্গে বিরোধে জড়ানো ইরান বরাবরই তাদের সামরিক সক্ষমতা জাহির করে আসছে। তাছাড়া যুক্তরাষ্ট্র বা ইসরাইলের হামলার জবাব দিতে প্রস্তুতি দেখানোর জন্য ইরান অস্ত্রের পরীক্ষাও চালিয়ে আসছে।
পরমাণু কর্মসূচি নিয়ে ইরানের চতুর্থ দফা জাতিসংঘ নিষেধাজ্ঞার তোড়জোড়ের মধ্যে ইরান পারস্য উপসাগর ও হরমুজ প্রণালীতে নতুন এ সামরিক মহড়া শুরু করেছে।
বেসামরিক পরমাণু কর্মসূচির আড়ালে ইরান পরমাণু অস্ত্র তৈরি করছে বলে পশ্চিমাদের ধারণা। কিন্তু ইরান এ দাবি প্রত্যাখ্যান করে আসছে।
গত সপ্তাহে ওয়াশিংটন জানায়, পরমাণু কর্মসূচির উপর অবরোধ আরোপ করা ছাড়াও তেহরানের উপর সামরিক শক্তি প্রয়োগের বিকল্প পথও হাতে রেখেছে পেন্টাগন।

-তেহরান থেকে রয়টার্স :

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 3.8 (5টি রেটিং)

পৃথিবীতে আসলেই কোন ইনসাফপূর্ণ নীতি প্রতিষ্ঠিত নেই। তা না হলে কারো কারো জন্য পরমাণু অস্ত্র রাখা বৈধ আর কারো জন্য অবৈধ হবে কেন? অবৈধ হলে সবার জন্যই অবৈধ হতে হবে।

-

"নির্মাণ ম্যাগাজিন" ©www.nirmanmagazine.com

পৃথিবীতে আসলেই কোন ইনসাফপূর্ণ নীতি প্রতিষ্ঠিত নেই। তা না হলে কারো কারো জন্য পরমাণু অস্ত্র রাখা বৈধ আর কারো জন্য অবৈধ হবে কেন? অবৈধ হলে সবার জন্যই অবৈধ হতে হবে।

Rate This

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 3.8 (5টি রেটিং)