আনারসের উপকারিতা

আনারস একটি রসালো
সুস্বাদু ও পুষ্টিকর ফল। আমাদের দেশে
গরমের সময়ও এটি পাওয়া যায়।
শহর কিংবা গ্রামে
সব বয়সীর কাছে
এটি একটি জনপ্রিয়
ফল। এটি দেখতেও
খুব চমৎকার। আনারস
বিশ্বের অন্যতম সেরা
ফল। এর বৈজ্ঞানিক নাম আনানাস স্যাটিভাস। আকর্ষণীয় সুগন্ধ ও অম্ল মধুর
স্বাদের জন্য আনারস
অনেকের কাছেই সমাদৃত।
আনারসের উৎপত্তিস্থল হলো দক্ষিণ আমেরিকার উষ্ণ অঞ্চল। বিশেষ
করে ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনায়। বাংলাদেশেও প্রচুর পরিমানে চাষ হয় এ ফল। বাংলাদেশে সাধারণত চার জাতের
আনারস চাষ করা হয়। জায়েন্ট
কিউ, কুইন, হরিচরণ
ভিটা ও বারুইপুর। বাংলাদেশে ঘোড়াশাল, সিলেট, চট্টগ্রাম ও কুমিল্লায় এসব জাতের চাষ সবচেয়ে বেশি
হয়। আনারস একটি
রসালো, সুস্বাদু ও পুষ্টিকর ফল।

আনারসের পুষ্টিগুণ

·     
এতে আছে গুরুত্বপূর্ণ অ্যানজাইম ব্রোমেলেইন।

·     
আনারসকে ভিটামিন 'সি'-এর অন্যতম
উৎস ধরা হয়।

·     
এতে আছে প্রচুর
পরিমাণে ম্যাঙ্গানিজ নামক
খনিজ উপাদান, যা দেহের এনার্জি
বাড়ায়।

·     
এতে আছে যথেষ্ট
পরিমাণে ভিটামিন বি১,
যা শরীরের জন্য
একান্ত অপরিহার্য।

·     
এটি খুব কম ক্যালরি দেয়।
১০০ গ্রাম আনারস
থেকে পাওয়া যায় মাত্র ৫০ কিলোক্যালরি।

·     
এতে কোনো কোলেস্টেরল নেই।

·     
এতে আছে পেকটিন
নামক গুরুত্বপূর্ণ ডায়েটরি
ফাইবার।

·     
এতে আছে ভিটামিন
'বি' কমপ্লেক্সের ফলেট,
থিয়ামিন, পাইরিওফিন, রিবোফ্লাভিন।

·     
খনিজ উপাদান হিসেবে
আছে কপার, ম্যাঙ্গানিজ ও পটাসিয়াম।

উপকারিতা

·     
এটি দেহের গ্ল্যান্ড বা গ্রন্থিগুলোকে নিয়ন্ত্রণ করে।

·     
গয়টার অর্থাৎ থাইরয়েড
গ্রন্থির স্ফীত হওয়ার
ক্ষেত্রে এটি প্রতিরোধক হিসেবে কাজ করে।

·     
উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে।

·     
আর্থ্রাইটিস
রোগ উপশমে সহায়তা
করে।

·     
ক্ষুদ্রান্ত্রের জীবাণু ধ্বংসে আনারস
খুবই উপকারী।

·     
কোষ্ঠকাঠিন্য
কমায় এবং মর্নিং
সিকনেস অর্থাৎ সকালের
দুর্বলতা দূর করে।

·     
এটি ওভারিয়ান, ব্রেস্ট,
লাং, কোলন ও স্কিন ক্যান্সারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন
করে।

·     
বার্ধক্যজনিত
চোখের ত্রুটি প্রতিরোধে সাহায্য করে।

এছাড়া আনারস জ্বরের
ও জন্ডিস রোগের
জন্য বেশ উপকারী।
দেহের তৈলাক্ত ত্বক,
ব্রণসহ সব রুপলাবণ্যে আনারসের যথেষ্ট কদর রয়েছে। চুলের
যত্নেও আনারসের রস যথেষ্ট উপকারি।
মোট কথা, দেহের
পুষ্টি সাধন এবং দেহকে সুস্থ
সবল ও রোগ
নিরাময় রাখার জন্য  আনারসকে একটি
অতুলনীয় এবং কার্যকরী ফল বলা চলে।  তাই বেশি বেশি আনারস খান এবং পরিবারের সকলকেও খাওয়ান।

বিস্তারিত

ছবি: 
আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 5 (টি রেটিং)

Rate This

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 5 (টি রেটিং)