তৈলাক্ত ত্বকের যত্নয়াত্তি

কথায় বলে, আগে দর্শন ধারী পের গুনবিচারী ,সুন্দর মুখের জয় সর্বত্র। তাই
আমাদের প্রত্যেকেরই জানা উচিত কীভাবে নিজেকে সুন্দর রাখা যায়। সব মানুষ
সুন্দর হয়ে না জন্মালেও সঠিক পরিচর্চার মাধ্যমে যেকেউ তার রুপ লাবন্য
বহুদিন ধরে রাখতে পারে। আমরা অনেকেই মনে করি গায়ের রং ফর্সা হলেই বুঝি সে
সুন্দর। আসলে তা নয়। রং আপনার যা-ই হোক না কেন, যদি তাতে গ্ল্যামার বা
লাবণ্য থাকে তাকেই আজকাল সুন্দর বলে। ঘোলাটে, নির্জীব, দাগযুক্ত ত্বক যেমন
নিজের কাছে খারাপ লাগবে তেমনি অন্যের কাছেও খারাপ লাগবে। আল্লাহ আপনাকে
যেমনই তৈরি করুকনা কেন, একটু চেষ্টা করলেই আপনি অনেকখানি আকর্ষণীয় হতে
পারেন সবার কাছে। তার জন্যে শুধু দরকার ধৈর্য ও নিয়ম মাফিক পরিচর্যা।
মেয়েদের
২০/২১ বছর বয়স থেকেই বিশেষভাবে ত্বকের যত্ন, খাওয়া-দাওয়া, ব্যায়াম
ইত্যাদির দিকে নজর দেয়া উচিত। তাহলে ৫০ বছর বয়সেও নিজের রূপ ও সৌন্দর্য ধরে
রাখা সম্ভব। সঠিক পদ্ধতি জেনে নিয়ে ধৈর্য ধরে নিজের পরিচর্যা করতে হবে।
ত্বককে
সুন্দর ও সতেজ রাখার জন্যে আপনাকে জানতে হবে আপনার মুখমন্ডলের ত্বক কী
ধরনের। তৈলাক্ত ত্বক, স্বাভাবিক ত্বক, শুকনো ত্বক না মিশ্র ত্বক।
আজ আমরা তৈলাক্ত ত্বকের যত্নয়াত্তি সম্পর্কে আপনাদের জানাবো কারন এ ত্বক খুবই....বিস্তারিত

ছবি: 
আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 1 (টি রেটিং)

Rate This

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 1 (টি রেটিং)