মুসলমান হলেন নাইজেরিয়ান পুরোহিত

%e0%a6%ae%e0%a7%81%e0%a6%b8%e0%a6%b2%e0%a6%ae%e0%a6%be%e0%a6%a8-%e0%a6%b9%e0%a6%b2%e0%a7%87%e0%a6%a8-%e0%a6%a8%e0%a6%be%e0%a6%87%e0%a6%9c%e0%a7%87%e0%a6%b0%e0%a6%bf%e0%a7%9f%e0%a6%be%e0%a6%a8-%e0%a6%aa%e0%a7%81%e0%a6%b0%e0%a7%8b%e0%a6%b9%e0%a6%bf%e0%a6%a4

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: নাইজেরিয়ান এক পুরোহিত শাহাদাতাইন পাঠ কারার মধ্যমে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছেন।

বার্তা সংস্থা ইকনা: নাইজেরিয়ার এই পুরোহিত গির্জার কর্মস্থান ছেড়ে মসজিদে
খেদমত করছেন। ধর্মান্তরের ব্যাপারে এই নও মুসলিম বলেন: গির্জার প্রতিষ্ঠা
বার্ষিকী উদযাপনের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিলাম। এরমধ্যে আমি অনেক স্বপ্ন
দেখি। আর এ স্বপ্নের সমূহের ফলেই আমি শাহাদাতাইন (মহান আল্লাহর একত্ববাদের
প্রতি সাক্ষ্য এবং মহানবী (স.) এর রেসালতের সাক্ষ্য) পাঠ করার মাধ্যমে
পবিত্র ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছি।
খ্রিস্টান পুরোহিত অফুলাবী স্বপ্নের মধ্যে একজন সাদা পোশাকের লোক দেখেন। ঐ
ব্যক্তি তাকে ইসলাম ধর্ম গ্রহণের কথা বলেন এবং ইসলাম ধর্ম একমাত্র সাফল্য
এবং পরিত্রাণের ধর্ম বলে অভিহিত করেন।
৪৫ বছরের এ ব্যক্তি নাইজেরিয়ার অক্সিটান রাজ্যের অডু অক্সিটান শহরের একটি
গির্জার নেতা ও প্রতিষ্ঠাতা। ৫ বছর পূর্বে অডু আক্সিটান শহরের গির্জাটি
তিনি উদ্বোধন করেন।
আফুলাবী দীর্ঘ ২৫ বছর যাবত খ্রিস্টধর্মের ধর্মানুষ্ঠান এবং শেষকৃত্যে
নিযুক্ত ছিল। এখন তিনি ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করে তার নিজের নাম পরিবর্তন করেছেন
এবং বলেন, এরপর থেকে আমি মুসলমান হয়ে বেচে থাকতে চাই এবং এ অবস্থাই দুনিয়া
হতে চলে চেতে চাই।
মুসলমান হওয়ার পর তিনি তার নির্মিত গির্জাটিকে মসজিদে রূপান্তরিত করেছেন
এবং এ মসজিদের দায়িত্ব স্থানীয় মাওলানা সাহেবকে দিয়েছে এবং নিজে ইসলাম
ধর্মের সাথে অধিক পরিচয় হওয়ার জন্য বিভিন্ন ধর্মীয় গ্রন্থ ও কুরআন অধ্যয়ন
করছেন।
বলাবাহুল্য, নাইজেরিয়ায় মোট ১৪ কোট নাগরিক রয়েছে। যারমধ্যে মুসলমান ৫৫
শতাংশ এবং খ্রিস্টান ৪০ শতাংশ। তবে সম্প্রীতি  বছর গুলোয় সাম্প্রদায়িকতার
দ্বন্দ্ব থাকার দরুন সংঘাত ও সহিংসতা বিরাজ করছে।
বার্তা সংস্থা ইকনা

আপনার রেটিং: None

Rate This

আপনার রেটিং: None