১৯৭১ সালের ৩০ ডিসেম্বর জহির রায়হান, শহীদুল্লহ কায়সার এর খোঁজে বের হয়ে আর ফিরে আসেন নি !

শহীদুল­াহ কায়সার

জন্মঃ ১৬ ফেব্রুয়ারি, ১৯২৭ সাল, মজুপুর গ্রাম, ফেনী।

নিখোঁজঃ ১৪ ডিসেম্বর, ১৯৭১ থেকে।

সাংবাদিক ও সাহিত্যিক শহীদুল্লাহ কায়সার এর প্রকৃত নাম আবু নাঈম
মোহাম্মদ শহীদুল­াহ। ১৯৫২- র ভাষা আন্দোলনে তিনি অত্যন্ত সাহসী ভূমিকা পালন
করেন। তার এ অনমনীয় সাহসিকতার জন্য তিনি একাধিকবার গ্রেফতার হয়ে কারাভোগ
করেন। ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে বিজয়ের পূর্ব মুহূর্তে ১৪
ডিসেম্বর তিনি অপহৃত হন এবং আর ফিরে আসেননি। বাংলা সাহিত্যে তিনি যথেষ্ট
আলো ছড়িয়েছেন। উপন্যাস, কবিতা, ছোটগল্প, নাটক, ভ্রমনকাহিনীসহ সাহিত্যের
বহুমুখী সৃষ্টিশীল জগতে ছিল তার সদর্প পদচারণা। ‘সারেং বউ’ ‘সংশপ্তক’ এবং
‘কৃষ্ণচূড়া মেঘ’ ‘দিগন্তে ফুলের আগুন’ ‘কুসুমের কান্না ‘চন্দ্রভানের কন্যা’
(গ্রন্থাকারে অপ্রকাশিত) ‘রাজবন্দীর রোজনামচা’ ‘পেশোয়ার থেকে তাসখন্দ’
(ভ্রমন কাহিনী) পরিক্রমা (প্রবন্ধ সংকলন) তার উলে­খযোগ্য গ্রন্থ।

জহির রায়হান

জন্মঃ ১৯ আগষ্ট, ১৯৩৫ সাল, মজুপুর গ্রাম, ফেনী। মৃত্যূঃ ৩০ ডিসেম্বর, ১৯৭১ ঢাকা।

মহান ভাষা আন্দোলনের একনিষ্ঠ এ কর্মী ২১ ফেব্রুয়ারির ১৯৫২ এর ভাষা
আন্দোলনের সময়ে ১৪৪ ধারা ভঙ্গকারী প্রথম ১০ জনের একজন। পরবর্তীতে তিনি একজন
সাহিত্যিক ও চলচ্চিত্র নির্মাতা হিসেবে খ্যাতি লাভ করেন। তিনি বাংলাদেশের
চলচ্চিত্রকে দিয়েছেন ভিন্নমাত্রিকতা এবং আন্তর্জাতিক পরিমন্ডলে বাংলাদেশের
চলচ্চিত্রকে সম্পৃক্ত করেছেন আধুনিকতার ধারায়। ‘বরফ গলা নদী’, ‘শেষ বিকেলের
মেয়ে’ ,‘আর কতদিন’ ‘তৃষ্ণা’, ‘হাজার বছর ধরে’ প্রভৃতি তাঁর্ উল্লে­খযোগ্য
উপন্যাস এবং ‘জীবন থেকে নেয়া’, ‘কাঁচের দেয়াল’ তাঁর শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র।
বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন সময়ে পাকিস্তানী হানাদার বাহিনীর নারকীয়
হত্যাযজ্ঞ নিয়ে তিনি প্রামান্যচিত্র ‘স্টপ জেনোসাইড’ নির্মান করেন যা সারা
বিশ্বে আলোড়ন সৃষ্টি করে। ১৯৭১ সালের ৩০ ডিসেম্বর তিনি তাঁর অগ্রজ
শহীদুল্লহ কায়সার এর খোঁজে বের হয়ে আর ফিরে আসেন নি।

দেশ স্বাধীন হওয়ার প্রায় ১৪ দিন পরে যখন রাজাকার আলবদররা নিজেদেরকে রক্ষা করার জন্যে পালাচ্ছেন তখন জহির রায়হান কোথায় হারালো?

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 5 (2টি রেটিং)

এ সকল বুদ্দীজিবিদের সাথে থাকা কবীর চওধুরীকে রিমান্ডে নিলেই বেরিয়ে আসবে আসল ঘঠনা।

-

moniruzzaman

বিড়ালের গলায় কে ঘন্টা বাধবে?

-

anowar hossain

দেশ স্বাধীন হওয়ার প্রায় ১৪ দিন পরে যখন রাজাকার আলবদররা নিজেদেরকে রক্ষা করার জন্যে পালাচ্ছেন তখন জহির রায়হান কোথায় হারালো?
কলকাতার হোটেলে আনন্দ উপভোগ কারী শয়তানগুলোর তথ্য সংগ্রহ করাই জহির রায়হানের জন্য কাল হল। জহির রায়হানের জন্য গর্ববোধ করি যে সে আমারই জেলার সন্তান।

আমিও গর্ববোধ করতে ভুল করিনা, জহির রায়হান এবং আপনি ও আমার এলাকার সন্তান।Laughing

-

anowar hossain

জহির রায়হানের প্রকৃত খুনি কে সেটা জানতে হলে, তার সে দিনের সফরসঙ্গী শাহরিয়ার কবির কে ধরে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সঠিক তথ্য বেরিয়ে আসবে।

-

 

 

বিড়ালের গলায় কে ঘন্টা বাধবে?

-

anowar hossain

বর্তমান সরকারের গলা উঁচু মন্ত্রীরা ১৯৭১সালে কোথায় ছিলেন এবং কি করতেছিলেন সেই ইতিহাসকে ধামাচাপা দেয়ার জন্যই তাদ্রকে হত্যা করা হয়েছিলো।

আগামীতে এমন দলকে ক্ষমতায় দেখতে চাই যারা এই সকল হত্যার সঠিক বিচারের প্রতিশ্রুতি দিবেন।

-

anowar hossain

মজুপুর গ্রাম কোন থানায় পড়েছে?

Rate This

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 5 (2টি রেটিং)