আত্মার খোরাক (২)

আসুন জেনে নেই আত্মার খোরাক কিসে? এবং সে অনুযায়ী আমল করতে চেষ্টা করি ও সবাইকে জানাই আল্লাহ ও তার রাসূল (সঃ) কোন কাজে বেশী খুশি হোন।

হযরত
আবু বোরদাতা (রাযিঃ) হতে বর্ণিত, তিনি বলেন, আল্লাহর নবী (সঃ) ইরশাদ
করেছেনঃ কিয়ামতের দিন পাঁচটি বিষয়ের হিসাব দান ব্যতীত কাউকে পা নাড়াতে দেয়া
হবেনা। মানুষকে তার হায়াত (জীবন) সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করা হবে কিভাবে তা
ব্যয় করেছে? আর ইলমকে কি কাজে লাগিয়েছে? এবং তার সম্পদ কিভাবে উপার্জন
করেছে ও কোন পথে ব্যয় করেছে। আর তার শরীর-স্বাস্থ্যকে সে কি কাজে লাগিয়েছে?

তিরমিযী

ব্যাখ্যাঃ- ইসলাম তার অনুসারীদেরকে অর্থোপার্জনের
যাবতীয় অন্যায় ও গর্হিত পন্থা পরিত্যাগের নির্দেশ দিয়েছে। যেমন
চুরি-ডাকাতি, ধোঁকা-প্রতারণা, সুদ-ঘুস ও জোর-জবরদস্তীর মাধ্যমে উপার্জন।
অনুরুপ ব্যয় নির্বাহের ব্যপারেও মানুষকে খোলা হাতে ছেড়ে দেয়া হয়নি। বরং
সেখানেও হালাল-হারামের নিয়নন্ত্রন আরোপ করা হয়েছে। নর্ণিত হাদীসটিতে
আল্লাহর নবী (সঃ) মুসলমানদেরকে তার রুযী-রোজগার ও ব্যয় নির্বাহের ব্যপারে
সাধান করতে গিয়ে বলেছেন যে, কিয়ামতের দিন সর্ব প্রথম বান্দাকে যে পাঁচটি
বিষয়ে জওয়াবদিহি করা হবে তার মধ্যে একটি হলো তার সম্পদ। অর্থ্যাৎ সে তার
সম্পদ কিভাবে উপার্জন করেছে এবং কোন পথে ব্যয় করেছে?

হযরত আবু
সায়ীদ খুদরী (রাযিঃ) থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, নবী (সঃ) বলেছেন সত্যবাদী ও
আমানতদার ব্যবসায়ী কিয়ামতেরদিন নবী, সিদ্দিক এবং শহীদানদের সাথে থাকবে।

তিরমিযী

ব্যাখ্যাঃ-
যদিও বাহ্যিক দৃষ্টিতে ব্যবসা একটি দুনিয়াদারী কাজ। কিন্তু কোন একজন
মুসলমান যখন মিথ্যা ও খেয়ানতের আশ্রয় না নিয়ে পূর্ণ সততা সহকারে সৎ
উদ্দেশ্যে ব্যবসা করে, তখন তার এব্যবসা একটি পবিত্র ইবাদতে পরিণত হয়। যার
ফলে সে কিয়ামতের দিন নবী, সিদ্দীক ও শহীদানদের মত মর্যাদাশীল লোকদের সাথে
অবস্থান করবে।

বিষয়: সাহিত্য

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 3.3 (3টি রেটিং)

Rate This

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 3.3 (3টি রেটিং)