মনে পড়ে আজি!

আজকের উত্তপ্ত মরু-মদিনার ছবি।
মদিনাতে
আছি প্রায় দুই বছর চলছে! এর মধ্যে মাত্র তিনবার কারেন্ট গেছিলো! কিন্তু
প্রথমবার যখন কারেন্ট গেছে তখন এক মিনিটের মাথায়ই চলে আসছে। এরপরের বার যখন
গেছে তখন প্রায় দুই মিনিট পর আসছে। আর তারপর যখন গেছে তখন পাঁচ মিনিট পরে
আসছে। এই খানে কখনোই লোড শেডিং লং টাইম থাকেনা। তাই কেউ পানি ভরে রাখেনা।

বেশীরভাগ
লোকের ঘরে চার্জ লাইট নেই। কারন একটাই, চার্জ লাইট দিয়ে কি হবে? বিগত
দিনের সকল সময়ের ঘটনাকে ছাড়িয়ে আজকে সকাল সাড়ে ন'টা থেকে প্রায় একটা পনেরো
মিনিট পর্যন্ত কারেন্ট ছিলোনা। এরপর প্রায় বিশ মিনিট থেকে আবারও চলে গেছে
বিদ্যুত। মদিনা শহরে কারেন্ট নেই তাই মনে পড়ে গেলো স্বদেশের কথা। সেখানো তো
ঘন্টার পর ঘন্টা কারেন্ট থাকেনা। আর ঐঅবস্থায় সবারই প্রায় গা সয়া হয়ে
গেছে।

আর তারা সব সময় প্রস্তুত ও থাকেন। কারেন্ট না থাকলে
প্রার্থমিক ভাবে কি করতে হবে সেজন্য। তারা পানি ভরে রাখেন প্রয়োজন মাফিক।
আবার দেশে তো প্রাকৃতিক আলো থাকে দিনের বেলা তাই কষ্টটা কম হয়। আর এখানে তো
ঘরের দরজা-জানালা সব বন্ধ থাকে তাই দিনেও রাতের মতই অনুভূতি। মদিনাতে তেমন
কেউই প্রস্তুত ছিলোনা আজকের অবস্থার জন্য।

গরমে তো সমস্যা হচ্ছেই।
কারন এখানে মরুভূমির গরম। তার উপর পানি না থাকলে কি কঠিন অবস্থা কল্পনাই
করা যায়না। বিদ্যুত নেই বলে সবখানেই নেট ওয়ার্কের সমস্যা হচ্ছে। এই গরমে
দেশের কথা মনে পড়ে গেলো। দেশে তো বিদ্যুত না থাকলেও প্রাকৃতিক বাতাসে
মানুষের প্রান জুড়িয়ে যায়। এখানে সেটা যেন লুঁ হাওয়া। আরো মনে পড়ে
জাহান্নামের কথা। সেটা যে কত কষ্টের তা আমরা অনুভব ও করতে পারিনা। এই গমরে
মনে পড়ছে কি কঠিন হবে সেই সময়। হে আল্লাহ সেই কঠিন দিনে তুমি সহায় হয়ে
থেকো। তাই আল্লাহর কাছে কৃত গুনাহের জন্য অনুতপ্ত হয়ে ক্ষমা চাইছি। আর
একমাত্র তারই সাহায্য চাইছি। আল্লাহ তুমি এই পরিস্থিতি হতে আমাদেরকে
তাড়াতাড়ি মুক্ত করো। আমিন ছুম্মা আমিন।

ব্লগের সবাই দোয়া করবেন।
মদিনাতে কি কারনে এমনটি হয়েছে জানা যায়নি। আল্লাহ মদিনা বাসি সহ পৃথিবীর
সবার জন্য রহমত প্রেরণ করুন। আমিন। আমার ল্যাপটপের চার্জেই নেট চলে তাই
লিখতে পারছি। একটু পরে তাও থাকবেনা। কি হবে পরিস্থিতি? সকলে প্রান খুলে
দোয়া করুন।

বিষয়: বিবিধ

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 1 (2টি রেটিং)

Rate This

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 1 (2টি রেটিং)