দেশি শিং মাছ চাষে সচ্ছলতা

ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলার ধলার এলাকার মাছ চাষিরা দেশি শিং মাছ চাষ করে আর্থিকভাবে সচ্ছলতা অর্জন করেছেন। এক শতাংশের ছোট একটি পুকুরে শিং মাছ চাষ করে প্রতি ৬ মাস অন্তর ৫০ থেকে ৬০ হাজার টাকা আয় করার দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন তারা। তাদের এ সফলতাকে সামনে রেখে আগ্রহী মাছ চাষিদের আর্থিকভাবে লাভবান হওয়ার পথ সুগম হয়েছে। বতর্মান সময়ে শিং মাছ চাষ বেশি লাভজনক হওয়ায় দিন দিন বাড়ছে এ মাছ চাষের ব্যাপকতা। মাছ চাষকে কেন্দ্র করে ধলায় গড়ে উঠেছে ৩৫টি মৎস্য হ্যাচারি। অন্তত ৫০০ পরিবার মাছ চাষের সঙ্গে সরাসরি জড়িত হয়েছে। কর্মসংস্থান হয়েছে প্রায় ১০ হাজার লোকের। মাছ চাষ করে রাষ্ট্রীয় পুরস্কার পেয়েছেন ৬ জন মৎস্য চাষি।

আজিম উদ্দিন ধলার এলাকার মাছ চাষি, এক সময় অভাব ছিল যার নিত্যদিনের সঙ্গী। সেই আজিম উদ্দিন আজ মাছ চাষ করে সংসারে ফিরিয়ে এনেছেন সচ্ছলতা, পেয়েছেন রাষ্ট্রীয় পুরস্কার। তিনি জানান, ‘এক সময় নানা রকম ব্যবসা করেছি, কিন্তু সফল হতে পারিনি। তারপর মাছ চাষের সঙ্গে সম্পৃক্ত হই। আস্তে আস্তে আসতে থাকে সফলতা। এখন আমি প্রায় ৩০টি পুকুরে মাছ চাষ করছি। মাছ চাষ করে পেয়েছি রাষ্ট্রীয় পুরস্কার। এটি আমার জীবনের অনেক বড় পাওয়া। তিনি জানান, এক শতক জায়গায় কার্ফ জাতীয় মাছ ৫০ থেকে ৬০টি চাষ করা যায়। এদিক থেকে শিং মাছ চাষ অনেক লাভজনক।’ মাছ চাষের সঙ্গে সম্পৃক্ত ধলার যুবক অজিৎ বর্মণ জানান, লেখাপড়ার পাশাপাশি তিনি দেশের বিভিন্ন স্থানে মাছের পোনা সরবরাহ করেন। এ থেকে যা আয় আসে তা সন্তোষজনক। তিনি আরও জানান, সারা দেশে অনেক জলাশয় খালি পড়ে থাকে, এসব জলাশয়ে অন্তত ৬ মাস শিং মাছ চাষ করলেও অনেক বেকার যুবক আর্থিকভাবে লাভবান হবে। তিনি শিক্ষিত বেকার যুবকদের চাকরির পেছনে না ঘুরে মাছ চাষে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।

যেভাবে আসতে পারে আয়

বর্তমান বাজারে ১.৫ বা ২ ইঞ্চির প্রতিটি শিং মাছের দাম ৩ টাকা। (তবে মাছের দাম সিজেন ও সাইজ অনুযায়ী কম-বেশি হতে পারে) সে হিসাবে ৫০ হাজার শিং মাছের পোনার দাম ১ লাখ ৫০ হাজার টাকা। সঠিকভাবে খাবার ও যতœ নিলে ৫ থেকে ৬ মাস পরে প্রতিটি শিং মাছের ওজন হয় ৪০ বা ৫০ গ্রাম অর্থাৎ ৬ মাস পর ২০ থেকে ২৫টি শিং মাছের ওজন হয় ১ কেজি। ধলার মাছ চাষিদের তথ্যানুযায়ী কোনো জলাশয়ে ৫০ হাজার শিং মাছ চাষ করলে কমপক্ষে ৪৮ হাজার শিং মাছ টিকে থাকে। ৬ মাস পর ৪৮ হাজার শিং মাছের ওজন হয় (প্রতিটি শিং মাছের ওজন গড়ে ৪০ গ্রাম করে ধরা হলে) ১৯২০ কেজি। বর্তমান বাজারে প্রতি কেজি শিং মাছের পাইকারি বিক্রয় মূল্য ৫০০ টাকা। এ হিসাবে ১৯২০ কেজি মাছের বিক্রয় মূল্য দাঁড়ায় ৯ লাখ ৬০ হাজার টাকা। এদিকে ৪৮ হাজার মাছের জন্য ৬ মাসে খাবার খরচবাবদ সর্বোচ্চ ৪ টন খাবার প্রয়োজন হয়। বর্তমান বাজার অনুযায়ী প্রতি টন মাছের খাবারে খুচরা মূল্য ৫০

হাজার টাকা। এই হিসাবে ৪ টন খাবার এর দাম পড়ে ২ লাখ টাকা। কোনো জলাশয়ে ৬ মাস ৪৮ হাজার শিং মাছ চাষ করলে শ্রমিক ও পরিবহন খরচবাবদ ব্যয় হতে পারে ৪০ থেকে ৫০ হাজার টাকা। সব খরচ বাদে কোনো জলাশয়ে ৫০ হাজার শিং মাছ চাষ করে প্রতি ৬ মাসে ৫ থেকে ৬ লাখ টাকা আয় করা সম্ভব। সাধারণ হিসাব অনুযায়ী ১ শতাংশ জায়গায় ১ হাজার শিং মাছ চাষ করা যায়। ৫০ হাজার শিং মাছ চাষ করার জন্য ৫০ শতাংশের একটি পুকুর বা জলাশয় প্রয়োজন হবে, যা থেকে বছরে ১০ থেকে ১২ লাখ টাকা আয় সম্ভব। যাদের পুকুরের আয়তন ছোট অথবা মূলধন কম তারাও ১০ থেকে ১৫ হাজার শিং মাছ চাষ করে বছরে ২ থেকে ৩ লাখ টাকা আয় করতে পারেন।

শিং মাছ চাষে যা যা করতে হবে

যে জলাশয় বা পুকুর শিং মাছ চাষের জন্য নির্ধারণ করা হবে তার পাড় ভালো হতে হবে। পাড়ে বড় কোনো গাছ থাকা যাবে না। কারণ গাছের অতিরিক্ত পাতা ঝরে পড়ে জলাশয়ের পানিতে কার্বন ডাই অক্সাইড বৃদ্ধি করতে পারে। পানিতে কার্বন ডাই অক্সাইডের পরিমাণ বেশি হলে তা মাছের জন্য ক্ষতিকর। পুকুর বা জলাশয় এমন জায়গায় হতে হবে যেখানে পর্যাপ্ত সূর্যের আলো পড়ে। পুকুর বা জলাশয়ে বিকল্প পানি সেচের ব্যবস্থা রাখতে হবে। জলাশয়ে যদি কোনো রাক্ষুসে মাছ থাকে তা শিং মাছ ছাড়ার আগেই নিধন করতে হবে। মাছ ছাড়ার আগে জলাশয়ের প্রতি শতাংশ হারে ১ কেজি চুন প্রয়োগ করতে হবে। কারণ চুনে ক্ষতিকারক ব্যাকটেরিয়া ধ্বংস করে। মাছকে বেড়ে উঠতে নিয়মিত সুষম খাবার দিতে হবে। জলাশয়ের পানিতে ক্ষতিকারক কীটনাশক যাতে মিশতে না পারে সে দিকে লক্ষ্য রাখতে হবে।

কোথায় পাওয়া যাবে শিং মাছের পোনা

বাংলাদেশে শিং মাছের পোনার সবচেয়ে বড় ঘাঁটি হলো ময়মনসিংহ জেলার ত্রিশাল উপজেলার ধলা এলাকা। এখান থেকে মাছের পোনা ক্রয় করে নির্ধারিত পুকুর বা জলাশয়ে নিয়ে চাষ করছেন চাষিরা। এছাড়া বর্তমানে প্রতিটি জেলায়ই সরকারি ও বেসরকারিভাবে গড়ে উঠেছে মাছের পোনা উৎপাদন খামার। মাছ চাষিরা সেখান থেকেও তাদের সুবিধামতো মাছের পোনা সংগ্রহ করতে পারেন। তাছাড়া শিং মাছের পোনার জন্য ০১৯১৯০৬৮৯৯৫ নম্বরে যোগাযোগ করা যেতে পারে।

শিং মাছ চাষে একদিকে যেমন আসতে পারে আর্থিক সচ্ছলতা অন্যদিকে বয়ে আনতে পারে রাষ্ট্রীয় সম্মান। বর্তমানে প্রতি বছর একজন সফল মাছ চাষিকে রাষ্ট্রীয়ভাবে পুরস্কৃত করা হয়। পর পর ৬ বার এই পুরস্কার পেয়েছেন ময়মনসিংহের ধলার মৎস্য চাষিরা। -

আপনার রেটিং: None

Rate This

আপনার রেটিং: None