হঠাৎ স্বপন হঠাৎ ভাঙন!! (গ)

ব্যস কয়েকদিন রাগের মাঝে কেটে গেল উভয়ের। মাহমুদ কল করেনা, এদিকে মনিরার ও ভাল লাগে না, কি বলবে? কি সিদ্ধান্ত নেবে? এসব ভাবতে ভাবতে মনিরা প্রায় হতাশ হয়ে যায়। যদি একা একা যায় তবে মাহমুদ যদি কোন ক্ষতি করে মনিরার তাহলে সবাইকে মুখ দেখাবে কেমনে? ছয় ভাইয়ের এক বোন মনিরা। মনিরা এক বোন হলেও তিন ভাইয়ের বড় আর তিন ভাইয়ের ছোট,


বড় তিন ভাই দেশে নেই, কিন্তু রাতে দিনে মিলিয়ে প্রায় সব সময় খোজ খবর নেয় ভাইয়েরা আর এজন্যই ভাইয়েরা তাকে মোবাইল দিয়েছে হাতে, কিন্তু কোন সমস্যা হলে মনিরা ভাইদেরকে কি জবাব দেবে? বড় তিন ভাই ও মা বাবা সবাই এতটাই আদর করে যে, ওর মুখ থেকে কোন কিছুর কথা বের হবার সাথে সাথেই তা হাজির করে দেন তাঁর বাবা।


ভাইদের মা বাবার কাছে আবদার মনিরা যেন কোন কিছুর ব্যপারে মনে কষ্ট না পায়। ওর যখন যা লাগবে তখন তাই সামনে এনে দেবেন। কখনো যেন এই কথা না বলতে পারে যে, আমি অমুক জিনিসটা চেয়ে পাইনি। মনিরার আত্মা যেন ভয়ে থরথর করে কাঁপছে, এতদিন পরে মনিরার কাছে মনে হল মোবাইলটা যত সমস্যার কারন, একদিকে ভাইয়েরা কল করবে অন্যদিকে সিমটাও পাল্টানো যাবেনা ভাইরা সবাই জানতে চাইবে কি সমস্যা তখন কি বলবে ভাইদের কাছে।


আর যদি বলে ও দেয় যে, এই সমস্যা তবে মনিরার প্রতি ভাইদের বিশ্বাস একেবারে নষ্ট হয়ে যাবে। মনিরা কোন কূল কিনারা খুজে পায়না। মাহমুদও নাছড়বান্দা! সে ও ঠকার পাত্র নয় সে আবারও নানা রকম হৃদয় গলানো মেসেজ পাঠায় মনিরার কাছে। এজন্য যে, মনিরার মন গলে যায় এবং মাহমুদের সাথে দেখা করতে যায়। মনিরার বিবেক সজাগ হয়ে ওঠে নাহ! আর আগানো যায়না।


যতদুর এগিয়েছে এরচেয়ে শতগুণ পিছাতে হবে। যেই ভাইয়েরা রাতদিন পরিশ্রম করে ওর ইচ্ছা পূরন করে সেই ভাইদেরকে কিভাবে ঠকাবে মনিরা? আবেগ যখন বেশি বেড়ে যায় বিবেক যেন আবেগের তাড়নায় ঘুমিয়ে পড়ে, কিন্তু বিবেক যখন সজাগ হয়ে ওঠে তখন আবেগের আর কোনই ক্ষমতা থাকেনা। বিবেকের শাষন আবেগকে ভুল করা থেকে বিরত রাখে।

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 5 (টি রেটিং)

ধুর মিয়া, আপনের পোস্টে মন্তব্য দিলে জবাব দেন না(দুঃখ)! তবে ভালো লিখেছেন।

Rate This

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 5 (টি রেটিং)