আপনার আমানত..................

প্রিয় ব্লগার, দয়া করে এড়িয়ে যাবেন না, হয়ত আমার এই
লেখাটি আপনার অবকাশ যাপনের কোন রসালো উপাদান হবে না ।কিন্তু কোন চরম সত্যের আহবান হয়ত
লুকিয়ে রয়েছে আপনার জন্য এই লেখাটিতে।                               

লেখাটি মূলত ভারতের
একজন লেখকের (আপ কি আমানত;বাংলায় অনুবাদ করেছেনঃমুহাম্মদ যাইনুল আবেদিন)

পুরো বইটির সারাংশ
আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরতে চাই ধারাবাহিক ভাবে।

 দুটি কথা

ছোট একটি শিশু।খালি
পায়ে হেটে আসছে।হাটতে হাটতে তার কচি দুটি পা আগুনে পড়তে যাচ্ছে।আপনার চোখের সা্মনে।আ্পনি
কি করবেন তখন? নিশ্চয় আপনি ছুটে গিয়ে শিশুটিকে কোলে তুলে নিবেন।শিশুটিকে আগুন থেকে
বাচাতে পেরে অন্তরে ভীষণ পুলক অনুভব করবেন।অনুরূপভাবে যদি কোন ব্যাক্তিকে ঝলসে যেতে
দেখেন,পুড়ে যেতে দেখেন তাহলে আপনি অস্থির হয়ে পড়বেন।আপনার অন্তর বেদনায় ভার হবে।

আচ্ছা আপনি কখনো
ভেবে দেখেছেন-কেন এমনটি হয়!

?

?

?

?

?

আমাকে ক্ষমা করুন!

প্রিয় পাঠক।আমাকে  ক্ষমা করুন!আমি আমার ও আমার সকল মুসলমান ভাইদের
পক্ষ থেকে আপনার কাছে ক্ষমা চাচ্ছি এই পৃথিবীর সবচে’ বড় শত্রু শয়তানের প্ররোচনায় পড়ে
আমরা আপনার কাছে আপনার সবচে’ দামি সম্পদ আপনার কাছে তুলে দিতে পারিনি।পাপকে ছেড়ে পাপীকে
ঘৃণিত করে তুলেছে এই শয়তান মানুষের অন্তরে।ফলে পৃথিবী আজ পরিণত হয়েছে রণক্ষেত্রে।এই
ভুলের কথা ভেবেই আমি আজ কলম তুলে নিয়েছি।ভেবেছি আপনার আপনার পাওনা পৌছে দিব।আপনার সাথে
কিছু প্রেম ও মানবতার কথা বলব।এই নিবেদন মনের টানে-কোন লোভ কিংবা সারথের টানে নয়।

একটি প্রেমম্য় নিবেদন

এটা আসলে বলার
কথা নয়।তবুও আমি আশাবাদি, আমার এই কথাগুলো আপনি ভালবাসার চোখে দেখবেন।মমতাভরা মন নিয়ে
পড়বেন সারাজাহানের সৃষ্টিকরতার নিখুত নিয়ন্ত্রক মহান মালিকের কথা একটু ভাববেন।আপনার
হৃদয়ে যদি এই ভাবনার উদয় হয় তাহলেই আমি তৃপ্ত হবো। আমার মন সুখী হবে।ভাবব আমি আমার
ভাইয়ের হাতে তার প্রাপ্য পৌছে দিতে পেরেছি।মানুষ হিসেবে আমি আমার দায়িতব পালন করতে
পেরেছি।এই পৃথিবীতে মানুষ হিসেবে আগমনের পর যে সত্যটি অবশ্যই জানতে হয়,মানতে হয়-মানুষ
হিসেবে জীবনের সবচে’ বড় দায় ও করতব্যের সেই কথাটিই আমি আপনাকে বলতে চাই!সেই কথা মমতা
ও ভালবাসার!

চল্বে...............(ইনশাল্লাহ)

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 3.8 (4টি রেটিং)

জাযাকাল্লাহ্ বইটির সারাংশ শেয়ার করার জন্য। আশা করছি পূর্ণ করবেন ধারাবাহিক।

-

"নির্মাণ ম্যাগাজিন" ©www.nirmanmagazine.com

দুয়া করবেন
আল্লাহ যেন তৌফিক দান করেন।

মূল বইটির লেখক কে, তার পরিচিতি, এবং যিনি অনুবাদ করেছেন, তারও সংক্ষিপ্ত পরিচিতি দিলে ভালো হবে।

বইটির মূল লেখক হলেন ভারতের প্রখ্যাত দাঈ মাওলানা কলিম সিদ্দিকি।এই বইটির উসিলায় ভারতে অনেক মানুষ ইসলামের আলোয় আলোকিত হয়েছেন।
আর বইটির অনুবাদক হলেন বর্তমান সময়ের আলিম-সমাজের অন্যতম লেখক মাওলানা জয়নুল আবেদিন(দাঃবাঃ) হুজুর।
বইটির লেখক,অনুবাদক সহ সংশ্লিষ্ট সবার একটি কামনা যে আল্লাহ যেন বইটিকে কবুল করে নেন।
আর আমরা আশা করি ইনশাল্লাহ বাংলাদেশেও এই বইয়ের উছিলায় মানুষ ইসলামের আলোয় আলোকিত হবেন।

অনুবাদক জয়নাল আবেদিন সাহেব কি তা'মিরুল মিল্লাত মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল?

-

"নির্মাণ ম্যাগাজিন" ©www.nirmanmagazine.com

(দাঃবাঃ) এর অর্থ কি?

এটা শাইখ বা আলেমদের জন্য ব্যবহৃত নামের শেষে এক ধরনের বরকতের দো'আ পূর্ণ বিশেষণ।

যেমন,  اجوبة الاسئلة الفقهية سماحة السيد علي السيستاني دامة بركاتة

এ বাক্যের শেষে দেখুন ব্যবহার করেছে- دامة (পোস্টের "দাঃ") এবং بركاته  (পোস্টের "বাঃ")

আল্লামা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর মাহফীলেও তাদেরকে এসব বিশেষণ ব্যবহার করতে শুনেছি।
-

"নির্মাণ ম্যাগাজিন" ©www.nirmanmagazine.com

দাঃবাঃ অর্থ-
এটি একটি "দুয়া-বাক্য" যা আমরা আমাদের গুনিজনদের নামের সাথে বলে থাকি।

অর্থ হলো-আল্লাহ তার বরকত আমাদের উপর আরো দির্ঘায়ীত করুক।

Rate This

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 3.8 (4টি রেটিং)