অভিজিত হত্যার সাথে সম্ভাব্য জড়িত লোক

শফিউর রহমান ফারাবী যদি অভিজিত্‍ রায়কে হত্যার হুমকি দিয়াও থাকে মোহাম্মদ(স) এর বিরোদ্ধে গালিগালাজ করার কারনে রাগের মাথায় দিছে।হত্যার হুমকি দিছে তাতেই প্রমান হয়না ফারাবি তাকে হত্যা করছে।সে হত্যা না করলে কে হত্যা করছে অভিজিতকে হত্যা বন্যার কোন প্রেমিক অথবা জঙ্গি অথবা আওয়ামীলীগ অথবা অভিজিতের স্বজাতিরা করতে পারে।অভিজিতের যৌন পার্টনার বন্যার বহুগামি স্বভাব স্কুল লেভেলেই শুরু হয় সুন্দর ছেলে দেখলেই জাপাইয়া পড়তো।বন্যার সমুদ্র সমান সেক্স একা অভিজিতের পক্ষে মিটানো সম্ভব ছিল না এই কারনে সেক্স মিটাইতে বন্যা অভিজিতের বন্ধুদের সাহায্য নিতো।প্রথম স্বামীরে ডির্ভোস দিয়া অভিজিতের সাথে লিভ টুগেদার করতেছিল।অভিজিতের সাথে থাকা অবস্থায় আরো কিছু ছেলের সাথে বন্যার পরকিয়া আছে বলে শুনা যায় বন্যার কোন বয়ফ্রেন্ড তাকে আরো আপন করে পাইতে অভিজিতকে হত্যা করতে পারে।ইসলাম বিরোধী লেখার কারনে কিছু পশ্চিমা শক্তি টাকা দিয়ে থাকে অভিজিত ও তার নাস্তিক বন্ধুদের মধ্যে টাকার ভাগাভাগি নিয়া জগড়ার কারনে খুন হইতে পারে সে।(ইউরোপের দেশ- ফ্রান্স স্পেন পর্তুগাল নেদারল্যান্ড লুক্সেমবার্গ জার্মানি আপন ভাই-বোনের মধ্যে বিয়েকে বৈধতা দিয়েছে---বাংলামেইল) ইউরোপের অনেক রাষ্ট্রে আপন বোনরে বিয়ে করা যায় নাস্তিকদের চেষ্টার ফলে এই আইন তৈরী হইছে।সেক্সের ব্যাপারে নাস্তিকরা কোন পারিবারিক সম্পর্কে যেমন ভাই এর সাথে বোনের সেক্স মায়ের সাথে ছেলের সেক্স বাবার সাথে মেয়ের সেক্স ধর্মীয় আইনে নিষিদ্ধ্য কিন্তু নাস্তিকরা নিষেধ স্বীকার করেনা এসব মানেনা তারা অবাধ মুক্ত এবং সবার সাথে সেক্সে বিশ্বাসি।বন্যার মেয়ের সাথেও অভিজিত অজাচার করতো এই কারনে বন্যাই হিংসার কারন খুন করতে পারে অভিজিত কে।..................................................................‘আমার বয়স যখন ৬ বছর তখন আমার মায়ের সঙ্গে সম্পর্কের শুরু তার।এর পর গেল ১২ বছরে ক্রমে তিনি আমার বন্ধুতে আমার আদর্শে বিশ্বস্ত নির্ভরতায় আমার নাচের সংগীতে এবং আমার নায়কে পরিণত হন’..............................বন্যার প্রথম স্বামীর সন্তান তৃষা আহমেদের ফেসবুকের এই স্ট্যাস্যাসে বুঝা যায় বেশির ভাগ বেশ্যার ঘড়ে বেশ্যাই হয়।

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 3 (2টি রেটিং)

Rate This

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 3 (2টি রেটিং)