দেশের আট জেলায় কিশোর কুমারের মেডিক্যাল ক্যাম্প

 

গাবতলী, এয়ারপোর্ট স্টেশনের সামনেসহ ঢাকার বিভিন্ন এলাকায় মেডিক্যাল ক্যাম্পের
মাধ্যমে সুবিধাবঞ্চিত শিশুসহ বয়স্করা এক টাকার বিনিময়ে স্বাস্থ্যসেবা পাচ্ছেন
বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে। প্রেসক্রিপশনের পাশাপাশি এ সংগঠন চেষ্টা করছে
গুরুত্বপূর্ণ ওষুধ রোগীদের প্রদান করতে। রোগ ভেদে ৫০ থেকে ৫০০ টাকা হয় একেকজনের
ওষুধের দাম, তিন দিন প্রর্যন্ত ওষুধ পাচ্ছে রোগীরা। ১২ বছরের নিচে এবং ৬০ বছর
বয়স্ক মানুষের এই সেবা শুরু হয়েছে চলতি বছরের ৫ জানুয়ারি থেকে বিদ্যানন্দ
ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে এক টাকার এই স্বাস্থ্যসেবা। যা চলছে প্রতিদিন। দেশের বিভিন্ন
মেডিক্যাল কলেজে অধ্যায়নরত স্বেচ্ছাসেবী ডাক্তাররা এমনকি এমবিবিএস ডাক্তাররা এ
সংগঠনের হয়ে সুবিধাবঞ্চিতদের মাঝে চিকিৎসা সেবা পৌঁছে দিতে কাজ করে যাচ্ছেন। এখন
পর্যন্ত প্রায় তিন হাজার মানুষকে দেয়া হয়েছে এই সেবা। শুধু এক টাকায় স্বাস্থ্যসেবা
নয়, সুবিধাবঞ্চিতদের জন্য খাবার এমনকি আইনী সহায়তা প্রদান করছে বিদ্যানন্দ
ফাউন্ডেশন। বর্তমান যুগে যেখানে এক টাকায় একটি চকলেট ছাড়া আর কিছুই মেলে না সেখানে
এক টাকায় খাবার, চিকিৎসা ও আইনী সহায়তা পাওয়ার কথা সবার চিন্তার বাইরে। কিন্তু
বাস্তবেই এখন এক টাকায় খাবার, চিকিৎসা ও আইন সেবা পাওয়া যাচ্ছে। এই অসাধ্য সাধন করে আসছে বিদ্যানন্দ
ফাউন্ডেশন। ২০১৩ সালের ২২ নবেম্বর নারায়ণগঞ্জ থেকে যাত্রা শুরু হয় এই ফাউন্ডেশনের
প্রতিষ্ঠাতা কিশোর কুমার দাশের হাত ধরে। নানা প্রতিকূলতার কারণে শৈশবে নিজেও
সুবিধাবঞ্চিতদের কাতারে ছিলেন প্রতিষ্ঠাতা কিশোর। টাকার অভাবে মাধ্যমিকের পর
লেখাপড়ার বিরতি ঘটে। এরপর কয়েক বছর বিরতি শেষে চট্টগ্রামের একটি পলিটেকনিক
ইনস্টিটিউট থেকে উচ্চ মাধ্যমিক শেষ করে প্রবেশ করেন চুয়েটে। সেখান থেকে পড়া শেষ
করে ২০০৬ সালে যোগদান করেন ওয়ারিদ টেলিকমে (এয়ারটেল)। বর্তমানে তিনি পেরুতে
ইন্টারনেট সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান ‘ওলো’তে কর্মরত রয়েছেন। কিশোর কুমার দাশ সম্পূর্ণ নিজের অর্থায়নে প্রতিষ্ঠা
করেছেন বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশন। সুবিধাবঞ্চিত হওয়া এবং নানা প্রতিকূলতাই তাকে সমাজের
সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের নিয়ে ভাবার প্রেরণা জাগিয়েছে। সংগঠনটি চলছে মূলত
স্বেচ্ছাসেবকদের হাতেই। মানুষের জন্য কিছু করার উদ্দেশ্যেই নিজ উদ্যোগেই এখানে কাজ
করেন সবাই। ঢাকাসহ নারায়াণগঞ্জ, কক্সবাজার, রাজবাড়ী, রাজশাহী, রংপুর ও ময়মনসিংহ এই আট জেলায় একযোগে কাজ করে যাচ্ছে বিদ্যানন্দ
ফাউন্ডেশন।


 

আপনার রেটিং: None

Rate This

আপনার রেটিং: None