সুস্বাদু খাবার চকোলেট আবিস্কারের কাহিনী

 

 

চকোলেট একটি সুস্বাদু খাবার যা বাচ্চারা পছন্দ
করে। কিন্তু আমরা কি কেউ জানি এই খাবারের উৎপত্তি কিভাবে। আসুন জেনে নেই। আমেরিকার
মেক্সিকোর ‘chocotail’ নামের এক ধরনের মিষ্টিজাতীয় খাদ্যবস্তু থেকে চকোলেট শব্দের উৎপত্তি।
কলম্বাসের আমেরিকা আবিষ্কারেরও অনেক যুগ আগে মেক্সিকোতে এই মিষ্টির ব্যাপক প্রচলন
ছিল। ১৫২১ সালে স্পেনের দুরন্ত সেনাপতি কটেজ প্রবল প্রতাপে মেক্সিকো জয় করেন।
তারপর সেখানে তার সংবর্ধনার জন্য এক বিশাল ভোজসভার আয়োজন করা হয়েছিল। সেই ভোজে
প্রচুর চকোলেট মিষ্টি পরিবেশিত হয়। অনেক দিন ধরে স্পেনের অধিবাসীরা মেক্সিকো থেকে
কোকো বীজ আমদানি করে তা থেকে কোকো  চূর্ণ ও চকোলেট তৈরি করে বিভিন্ন দেশে রফতানি করত। এর মধ্যে
উল্লেখযোগ্য হলো জার্মানি, ফ্রান্স ও ইংল্যান্ড। ইংল্যান্ডে অবশ্য পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিয়ে
চকোলেটকে সাধারণ মানুষের কাছে জনপ্রিয় করা হয়েছিল। কোকো আফ্রিকা মহাদেশের
নাইজেরিয়া, ঘানা, কেনিয়া ও নিউগিনিসহ বিভিন্ন দেশে বিপুলভাবে উৎপন্ন হয়। কোকোগাছ ‘বিয়ো ব্রোমো কোকো’ নামে এক ধরনের বীজ
থেকে উৎপন্ন হয়। এই গাছ প্রায় ৫ থেকে ১২ মিটার পর্যন্ত লম্বা হয়। সাত-আট বছর বয়স
হলেই এ গাছ ফল দিতে শুরু করে। ফলগুলো পরিণত হলে সেগুলো গাছ থেকে সংগ্রহ করে তার
মধ্যে থেকে বীজগুলো ছাড়িয়ে বিশেষ ধরনের বাক্সে বীজগুলো গ্যাজানো হয়। এরপর তা
কৃত্রিম উপায়ে শুকিয়ে ভেজে নিয়ে ভালোমতো গুঁড়ো করা হয়। সবশেষে দুধ,চিনি, ভ্যানিলা মিশিয়ে
নানাবিধ আকারে চকোলেট তৈরি করে বাজারে ছাড়া হয় নানা দামে।


 

আপনার রেটিং: None

Rate This

আপনার রেটিং: None