ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনে লেগেছে উন্নয়নের ছোঁয়া

ডিএসসিসির ২ নং ওয়ার্ডের অন্তর্ভুক্ত
রাজধানীর ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের গোড়ান, বনশ্রী এলাকার বাসিন্দাগণ প্রায় আট লাখ জনসংখ্যার বিশাল এ ওয়ার্ডটিতে
সর্বশেষ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ভোটার সংখ্যা ছিল প্রায় ৭০ হাজার। তবে ভাসমান লোকের সংখ্যাও কম নয়
এ এলাকাটিতে। সম্ভাবনা থাকলেও বেশ কিছু ক্ষেত্রে
শুধুমাত্র সমন্বয় না থাকায় সিদ্ধান্তহীনতা আর সময়মতো পদক্ষেপ না নেয়ায় এলাকার উন্নয়ন
কর্মকাণ্ড ব্যাহত হয়। তবে সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের
পর ডিএসসিসির উদ্যোগে নানা উন্নয়ন কর্মকাণ্ড বাস্তবায়িত হচ্ছে। তাছাড়া কিছু কর্মকাণ্ড চলমান রয়েছে।  নানা সমস্যা থাকলেও বর্তমান সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশ
গঠনের ঘোষণা বাস্তবায়নে উন্নয়নের ছোঁয়া লেগেছে এ ওয়ার্ডটিতে। নির্বাচনী ওয়াদার বাইরেও নানা কর্মকা- সম্পাদন করতে চেষ্টা
চালিয়ে যাচ্ছেন সরকার। ২০১৫ সালের ২৮ এপ্রিল সিটি নির্বাচনের পর এ ওয়ার্ডটিতে ডিজিটাল
বাংলাদেশ গঠনের প্রাথমিক অংশ হিসেবে পুরো ওয়ার্ডের মহল্লা ভিত্তিক কমপক্ষে ৩০টি স্থানে
ফ্রি ওয়াইফাই জোন চালু করা হয়েছে। এসব জোনে রাস্তার উপর যেতে যেতে
ও বাসায় বসেই বিনামূল্যে ইন্টারনেট ব্যবহার করছেন নাগরিকগণ। শান্তিপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের পেছনে, গোড়ান টেম্পোস্ট্যান্ড
এলাকা, গোড়ান ৩১ নং রোডের মাথায়, ছাপড়া
মসজিদ এলাকা, হাওয়াই গলি রোড, নবাবী মোড়,
গোড়ান আদর্শ রোড এলাকায় ফ্রি ওয়াইফাইয়ের উপস্থিতির প্রমাণ মিলেছে। পানি সমস্যার সমাধানে এলাকাতে মোট
৫টি পানির পাম্প তৈরি করা হচ্ছে। রাজধানীর কোন ওয়ার্ডেই এতো পানির
পাম্প নেই। এর মধ্যে ৩টির কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে। বাকি ২টি পানির পাম্প নির্মাণ কাজ
চলমান রয়েছে। স্যুয়ারেজ লাইনের জন্য বিশ্বব্যাংকের
উদ্যোগে প্রায় ১শ’ কোটি টাকা ব্যয়ে এক বছর যাবত একটি প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। এটির কাজ শেষ করা হলে স্যুয়ারেজের
সমস্যা থাকবে না। বিভিন্ন মহল্লার প্রধান সড়কের পাশাপাশি
অলিগলির বিভিন্ন সড়কে বিদ্যুত সাশ্রয়ী এলইডি বাতি লাগানো হয়েছে। সর্বশেষ তথ্যমতে, এ ওয়ার্ডটিতে মোট
১২শ’ এলইডি বাতি লাগানো হবে। এর মধ্যেই প্রায় ৫ শতাধিক এলইডি
বাতি লাগানোর কাজ সম্পন্ন হয়েছে। তবে অতি দ্রুত অলিগলিসহ সকল এলাকায়ই
এসব বাতি লাগানোর কাজ শুরু হবে। পুরো এলাকার আইন শৃঙ্খলা রক্ষায়
লাগানো হয়েছে ক্লোজ সার্কিট (সিসি) ক্যামেরা। গোড়ান শান্তিপুর ছাপড়া মসজিদ, গোড়ান বাজার থেকে
টেম্পোস্ট্যান্ড, নবাবী মোড় থেকে হাওয়াই গলিতে সিসি ক্যামেরা
লাগানো রয়েছে। দক্ষিণ বনশ্রীর সব এলাকায় ক্যামেরা
লাগানোর কাজ চলমান রয়েছে। ওয়ার্ড কাউন্সিলর নিজেই এসব সিসিসি
ক্যামেরা তত্ত্বাবধান করছেন।  বর্তমানে ২নং
ওয়ার্ডের মূল সড়কের প্রায় ৮০ ভাগ ও অলিগলির প্রায় ৭০ ভাগ এলাকা সিসি ক্যামেরার আওতায়
আনা হয়েছে। নাগরিকদের সুবিধার্থে এখানে একটি
কমিউনিটি সেন্টার, ব্যায়ামাগার নির্মাণ, ক্রীড়া একাডেমি ভবন প্রতিষ্ঠা করা
হবে। এছাড়া মা ও শিশুর স্বাস্থ্য সুরক্ষায়
মাতৃসদন কেন্দ্র নির্মাণ করা, ময়লা আবর্জনা ব্যবস্থাপনার জন্য সেকেন্ডারি ট্রান্সফার স্টেশন (এসটিএস) নির্মাণ করা হবে। এভাবে ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনের ঘোষণা
বাস্তবায়নে উন্নয়নের ছোঁয়া লেগেছে এ ওয়ার্ডটিতে।

ছবি: 
আপনার রেটিং: None

Rate This

আপনার রেটিং: None