বিশ্বের বৃহৎ আমদানি ও রপ্তানি পণ্যের মেলা ‘ক্যান্টন ফেয়ার’ শুরু হচ্ছে আগামীকাল থেকে

বিশ্বের বৃহৎ আমদানি ও রপ্তানি পণ্যের মেলা ‘ক্যান্টন ফেয়ার’ শুরু
হচ্ছে আগামীকাল শনিবার। চীনের গুয়াংজু প্রদেশে ১৫ থেকে ১৯ এপ্রিল পর্যন্ত চলবে
১২১তম ক্যান্টন ফেয়ার। দেশটির বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের তত্ত্বাবধানে ৬০ বছর ধরে
নিয়মিত বসছে এই মেলা। এতে ইলেকট্রনিকস ও গৃহাস্থলি পণ্য, ইলেকট্রিক্যাল
অ্যাপ্লায়েন্সেস, লাইটিং ইক্যুইপমেন্ট, ভেহিকলস অ্যান্ড স্পেয়ার পার্টস, মেশিনারি এবং
হার্ডওয়্যার পণ্য প্রদর্শিত হবে। এই মেলাতে ইলেকট্রনিকস ও হাউসহোল্ড ইলেকট্রিক্যাল
অ্যাপ্লায়েন্সেস ক্যাটাগরিতে অংশ নিচ্ছে ওয়ালটন। এ জন্য ক্যান্টন ফেয়ারে স্থাপন
করা হয়েছে ওয়ালটনের মেগা প্যাভিলিয়ন। মেলায় প্রদর্শিত হবে দেশীয় এই ব্র্যান্ডের
পণ্যগুলো। এর মধ্যে রয়েছে ব্যাপক বিদ্যুৎসাশ্রয়ী রেফ্রিজারেটর, কম্প্রেসার, ফ্রিজার, এলইডি
টেলিভিশন, এয়ার কন্ডিশনার, রিচার্জেবল
ফ্যান, সিলিং ফ্যানসহ বিভিন্ন গৃহাস্থলি পণ্য। ক্যান্টন
ফেয়ারের ইতিহাসে গত বছর প্রথম বাংলাদেশি ইলেকট্রনিকস পণ্য উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান
হিসেবে অংশ নিয়েছিল ওয়ালটন।  এরই মধ্যে
ওয়ালটনের ২৪ সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল চীনে পৌঁছেছে। বিশ্ববাজারেও শক্তিশালী
অবস্থান তৈরি করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে চীনের ক্যান্টন ফেয়ার। বিশ্বের প্রায়
প্রতিটি দেশ থেকেই ছোট-বড় মিলিয়ে কয়েক লাখ ব্যবসায়ী ও ক্রেতা
আসে এখানে। ওই সব ক্রেতার সঙ্গে ওয়ালটনের একটি আন্তর্জাতিক সেতুবন্ধ তৈরি হবে। পৃথিবীর
সব প্রান্ত থেকে ক্রেতারা আসে। এখানে বিশ্বের সেরা মানের পণ্য নিয়েই হাজির হচ্ছে
ওয়ালটন। ক্রেতা-দর্শনার্থীদের কাছে ওয়ালটন পণ্যের বিশেষ দিক
তুলে ধরতে তিনটি গুরুত্বপূর্ণ এবং আকর্ষণীয় স্থানে স্থাপন করা হয়েছে বিজ্ঞাপন
বোর্ড। মেলার বাইরেও যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র, আফ্রিকা, মধ্যপ্রাচ্য, ভারত,
নেপাল, ভুটানসহ বিভিন্ন দেশে চালানো হচ্ছে
প্রচারণা। 

ছবি: 
আপনার রেটিং: None

Rate This

আপনার রেটিং: None