প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর এই দিনে ইসলামী ছাত্রশিবিরের জন্য রক্তিম শুভেচ্ছা এবং শুভকামনা

বাংলাদেশের ইতিহাসে ছাত্র সংগঠন গুলোর ভুমিকা স্বর্নাক্ষরে লেখা থাকবে। ৫২র ভাষা আন্দোলন থেকে শুরু করে আজ পর্যন্ত জাতীর বিভিন্ন দুর্যোগময় মুহুর্ত দেশের হাল ধরেছে এই ছাত্র সমাজ।জাতিয় বিভিন্ন গুরুত্বপুর্ণ ইস্যুতে ছাত্র সমাজ রেখেছে গৌরবোজ্জল ভুমিকা।কিন্তু আজ কিছু কিছু ছাত্র সংগঠনের নেতাদের বিতর্কিত কর্ম-কান্ডের কারনে বিভিন্ন মহল থেকে ছাত্র রাজনীতি নিষিব্ধের দাবী উঠেছে।ছাত্র সংগঠন নিষিব্ধের পক্ষে আমি নই।গুটি কয়েক লোকের জন্য ঢালাওভাবে সবাইকে অভিযুক্ত করা মোটেই উচিত নয়।এক্ষেত্রে অভিযুক্ত ব্যাক্তির বিরুব্ধে ব্যবস্থা নেয়া যেতে প্রয়োজন।
কোন প্রেক্ষাপট ছাড়া যেমন কোন ঐতিহাসিক ঘটনার জন্ম নেই না তেমনি প্রয়োজন ছাড়া কোন সংগঠনের ও জন্ম হয়না। বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবিরের জন্ম ছিল তৎকালীন সময়ের অনিবার্য দাবী। জাতির যখন এমন চরম দুরবস্থা ঠিক সেই মুহুর্তে কিছু চিন্তাশীল ও সাহসী প্রাণ যুবক, তরুন ছাত্র সমাজকে আদর্শ,চরিত্রবান ও দেশপ্রেমিক হিসেবে গড়ে তোলার মহান ব্রত নিয়ে আল্লাহ তায়ালার ওপর ভরসা করে সিদ্ধান্ত নিলো একটি সংগঠন কায়েম করার।
সেই অনুযায়ী ১৯৭৭ সালের ৬ই ফেব্রুয়ারী প্রাচ্যের অক্সফোর্ড নামে খ্যাত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ থেকে যাত্রা শুরম্ন করে “বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবির”।ছাত্রদের জন্যই ছাত্রশিবির সে জন্যই ছাত্রশিবির একমাত্রায় লিখা হয়। শিবির ছাত্রদের বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে সবসময় কথা বলেছে, ছাত্রদের নায্য অধিকার আদায়ে নিয়মতান্ত্রিক আন্দোলন চালিয়ে গেছে। ছাত্রশিবিরের জনপ্রিয়তার অন্যতম কারন এটিও। স্বাধীন বাংলাদেশে স্বতন্ত্র বৈশিষ্ট্য নিয়ে, দলীয় লেজুরবৃত্তি মুক্ত হয়ে ও স্বতন্ত্র শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসেবে আত্বপ্রকাশ করল বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবির। গঠনমুলক কার্যক্রম ও চারিত্রিক মাধুর্যতার কারনে এদেশের ছাত্রসমাজসহ সকল মনের মানুষের হৃদয়ে একটি স্থায়ী আসন করে নেয় ছাত্রশিবির।আমাদের দেশের প্রচলিত শিক্ষা ব্যবস্থা একজন ছাত্রকে দুনিয়ায় চলার মতো জ্ঞান-বিজ্ঞান ও কলা-কৌশল শিক্ষা দেয় কিন্তু নৈতিকতা ও মানবিকতা শিক্ষার কোন সুযোগ এখানে নেই। ফলে দেখা যাচ্ছে আমাদের দেশে প্রতি বছর শিক্ষার হার যেমন বাড়ছে ঠিক তেমন ভাবে বাড়ছে দূণীতি,অন্যায়,রাহাজানি,খুন ইত্যাদি। দূর্ণীতিতে দেশ চ্যাম্পিয়ন হচেছ একাধিকবার। বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবির তার যাত্রার শুপজ থেকেই এদেশের অধিকাংশ মানুষের বিশ্বাসের সাথে সম্পৃক্ত ইসলামী শিক্ষা ব্যবস্থা পরিবর্তনের দাবীতে প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। সম্পুর্নভাবে সফল না হলেও ছাত্রশিবিরের প্রচেষ্টায় ও নিয়মতান্ত্রিক কার্যক্রমের ফলে প্রতি বছর বাংলাদেশ সমৃদ্ধ হচ্ছে একদল আলোকিত মানুষের মাধ্যমে, দেশ সেবা যাদের কর্তব্য আর মানবসেবা যাদের ধর্ম।শিবির তার কর্মীদের একটি সুন্দর ও সমন্বিত সিলেবাসের মাধ্যমে গড়ে তুলছে। যেখানে প্রতিটি ছাত্রকে নিয়মিত রির্পোট রাখতে হয়। প্রতিদিন তাকে অর্থসহ কোরান ও হাদীসের কিছু অংশ অধ্যায়ন করতে হয়, প্রতিদিন কমপক্ষে ৩ ঘন্টা পাঠ্যপুসত্মকের পাশাপাশি ইসলামী সাহিত্য অধ্যায়ন করতে হয়। ৫ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করে, পত্র-পত্রিকা পড়তে হয়, শরীর চর্চা করতে হয় এবং আত্বসমালোচনা করতে হয় । এভাবে একজন ছাত্রকে দুনিয়া ও দুনিয়া পরবর্তী জীবন অর্থাৎ আখেরাত এ উভয় স্থানে যেন সফল হতে পারে সেভাবে গড়ে তোলা হয়। শিবিরের দায়িত্বশীলেরা শিক্ষকের মতো কর্মীদের ব্যক্তিগত রিপোর্ট দেখে তাদের পরামর্শ দেন। যা কিনা অন্য কোনো সংগঠন চিন্তায়ও আনতে পারেনা।
তাই আসুন প্রতিষ্ঠান বার্ষিকীর এই দিনে বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবিরের জন্য প্রান খুলে দোয়া করি যাতে বাতিলের সকল ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করে দেশকে সৎ ও যোগ্য নেতৃত্ব উপহার দিতে পারে।দুনিয়ায় শান্তি আখেরাতে মুক্তির লক্ষ হোক বাস্তবায়িত।

ছবি: 
আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 5 (2টি রেটিং)

হুম, "রক্তিম শুভেচ্ছা"ই বটে। কেননা, ইসলামের এই সরল সহজ পথ যে অনেক রক্তিম।

আল্লাহ্ শিবিরের শহীদদের শাহাদাত কবূল করে নিন। এবং যারা শাহাদাতের নিয়ত রেখেছে তাদের মৃত্যু যেভাবেই হোক তাদেরও শাহাদাত কবূল করুন আর যারা এখনো নি‍য়ত করতে পারেনি তাদেরকে তৌফিক দিন। তৌফিক দিন আমাদের সবাইকে এবং কবূল করুন শাহাদাতের পথে।

সালাম

এজন্যই আল্লাহর হাবীব (সঃ) বলেছেন, দুনিয়া মোমেনের জন্য কয়েদখানা, আর কাফেরের জন্য (সরাইখানা) মানে জান্নাত

আল-হাদীস

আমাদের উচিৎ তারই প্রত্যাশা করা।

-

▬▬▬▬▬▬▬▬ஜ۩۞۩ஜ▬▬▬▬▬▬▬▬
                         স্বপ্নের বাঁধন                      
▬▬▬▬▬▬▬▬ஜ۩۞۩ஜ▬▬▬▬▬▬▬▬

ছাত্র শিবির এর জন্য অনেক অনেক শুভ কামনা রইল । ধন্যবাদ মোহাম্মদ আল-আমীন ভাই।

সুন্দর লেখার জন্য আন্তরিক মোবারকবাদ। ধন্যবাদ মোহাম্মদ আল-আমীন ভাই।

"দলীয় লেজুরবৃত্তি মুক্ত হয়ে" ও স্বতন্ত্র শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসেবে আত্বপ্রকাশ করল বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবির।
আহা, এটা যদি এখনো থাকতো!

লেখা ভালো লেগেছে।

Rate This

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 5 (2টি রেটিং)