এসো বুক ভেঙে দেই

ভীষন ব্যস্ততায় দিন কাটছে। ব্লগে আসার একদম সময় পাচ্ছিনা। এ জাতীয় মন্তব্য দেখলে একসময় ভীষন মেজাজ খারাপ লাগতো। আরো বাপু, তুমি খুব গুরুত্বপূর্ণ মানুষ তা না হয় বুঝলাম। এত ভাব দেখানোর কি আছে।

দুভাগ্যক্রমে আমাকে এখন সে ভাব দেখাতে হয় বলে কুন্ঠা বোধ করি। পরিস্থিতির মুখোমুখি না হলে আসলে বাস্তবতা উপলব্ধি করা যায় না। মফস্বলের মানুষ ঢাকায় এলে স্বজনের উপর ভীষন বিরক্ত হয়ে গাঁয়ে ফিরে যায়। কোথায় একটু ঘুরে ফিরে দেখাবে , শখ করে এখানে সেখানে নিয়ে যাবে তা নয়, সকালে বের হয় রাতে ঘরে আসে। সারাদিন কি সব করে। এরা কি মানুষ না কি...!

ঢাকায় বসে লন্ডনের মানুষগুলোর ব্যস্ততা অনুভব করা সহজ নয়। ছাত্ররা বুঝবেনা চাকুরীজীবীর ঝামেলা। যদিও ছাত্র জীবনে মনে হয় যেন এসব লোকগুলো ভীষন স্বার্থপর। 

মাঝে মাঝে ব্লগে এসে বসি। মাঝে মাঝে বলাটা হয়তো ভুল। বরং বলা উচিত কদাচিৎ। একটু কি সময় দেয়া যায় না ! কারো এ প্রশ্ন বা আবদারের জবাবে অপছন্দের উত্তরটিকেই ঘুরিয়ে ফিরিয়ে বলতে হয়। অন্য সকল বিকল্প আমাদের নাগাল থেকে অনেক দুরে সরে পড়েছে।

হয়তো কোন এক সৌভাগ্যক্ষনে, কারো সহমর্মিতা বা সহযোগীতার প্রভাবে সামান্য একটু ফুসরত মিললো, বিদ্যুৎ কি আমাকে দু সেকেন্ড সময় দেবে লগ ইন হওয়ার! এ প্রশ্নের উত্তরে নিশ্চিতভাবে হ্যা বলার মতো বুকের পাটা নেই কারো। মন্তব্য করা বরং শিকেয় উঠুক।

বন্ধুত্ব ধরে রাখতে না পারার চেয়ে বন্ধুত্ব না করাই ভালো। অন্তত একটি অভিযোগ থেকে রেহাই পাওয়া যাবে। প্রিয় সহব্লগার বৃন্দ আমাকে বন্ধু ভাবতে যাবেন না। আমি হয়তো বড়জোর আপনাদের লেখা পড়তেই পারবো। নানাবিধ বিপত্তি এড়িয়ে মন্তব্য করার সুযোগ ...... মনে হয় পাবোই না।

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 5 (3টি রেটিং)

এ বুক ভাঙ্গতে চাও, ভাঙ্গতে পারো...
অনুরোধ, শুধু এই ঘর ভেঙ্গ না।  Smiling

আপনার ব্যস্ততায় বরং শিকেয় উঠুক!

-

বিনয় জ্ঞানীলোকের অনেকগুলো ভাল স্বভাবের একটি

আপনার অনুরোধ রক্ষা করা হইলো।

ঘর ভেঙে দেবো এতটা নির্দয় আর হলাম না।

-

কি দেখো দাড়িয়ে একা !

ব্যস্ততা ভাল জিনিস। তবে বিসর্গে কমেন্ট করা মনে হয় কোন ব্যাপার না। এই দেখেন না! আমি একটা কমেন্ট করে ফেল্লাম।

শুধু ব্যস্ততা হলে আর সমস্যা ছিলোনা। এর সাথে যখন আরো কিছু যোগ হয়ে যায় তখনই ইহা ব্যাপার হয়ে ওঠে।

 

যাহোক, এখন ব্যাপার হচ্ছে.... আপনার কমেন্টের জবাবে আমিও একটা কমেন্ট করে ফেলিলাম।

-

কি দেখো দাড়িয়ে একা !

সময়গুলো কাজে লাগুক।

-

"প্রচার কর আমার পক্ষ হতে, যদি একটি কথাও (জানা) থাকে।" -আল হাদীস

ঠিক বলেছেন
এজন্যই মাঝে মাঝে মনে হয় ব্লগিংয়ের পেছনে অহেতুক সময় নস্ট না করি।

-

কি দেখো দাড়িয়ে একা !

যখন সময় পান তখন আসবেন, কমেন্টগুলোও মূল্যবান! 

ব্লগিংকে এক ধরনের সুখস্মৃতি মনে হয়। তাই সময় পেলে আসতে ভালই লাগে।

এবং.. আসলে দুটো কমেন্ট করাই যায়।

-

কি দেখো দাড়িয়ে একা !

হুমমম..

কিন্তু ভাই সাহেব, কমেন্ট করতে হলে তো লেখাটা পড়া লাগে!

-

বিনয় জ্ঞানীলোকের অনেকগুলো ভাল স্বভাবের একটি

লেখা না পড়েও কিছু কমেন্ট করা যায় Sticking out tongue
যেমন:

লেখা ভালো হয়েছে।

আরও নিয়মিত লেখা চাই..

 

ইত্যাদি।

আরো আছে।

যেমন

আপনাকে দেখে ভালো লাগছে।

অনেক দিন পরে এলেন।

হুম...

-

কি দেখো দাড়িয়ে একা !

কমেন্ট করতে হলে তো লেখাটা পড়া লাগে!
আমরাও তো তাই জানতাম।
প্রশ্ন হচ্ছে আপনার কি না পড়েই কমেন্ট করার অভ্যাস আছে নাকি। 

-

কি দেখো দাড়িয়ে একা !

শিরোনামটা পছন্দ হয়েছে

লেখা পছন্দ হয়নি সেটা নাইবা বললেন।

-

কি দেখো দাড়িয়ে একা !

Rate This

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 5 (3টি রেটিং)