ওয়াল্লাহি ! আমাদের ক্ষমা করুন !!

সাকিব মুস্তানসির

ওয়াল্লাহি ! আমাদের ক্ষমা করুন !!

গ্রুপে প্রায়ই একটু বেশি বয়েসী মেয়ের বিয়ের জন্য পাত্র চেয়ে পোস্ট আসে।
সেই পোস্টগুলোতে আমাদের ভাইদের জনপ্রিয় কিছু কমেন্ট আপনাদের জন্য দেয়া হলো –

****
সবকিছু পছন্দ হয়েছে, কিন্তু বয়সে আমার থেকে বড়। নাহয় ট্রাই করতাম।
আমি কি একবার ট্রাই করবো,সবকিছু পছন্দ !
এতো বছর কি করল? আবার এখন পাত্র কাজে?
পাত্র ডির্ভোসি হলে চলবে ?
দ্বিতীয়তে দিলে নিতাম !
আমি এমন মেয়ে খুঁজতাছি, কিন্তুু আমার আগের একটি সন্তান আছে।যদি রাজি থাকেন
ইনশাআল্লাহ পরির্পূণভাবে সন্মান দেওয়ার চেষ্টা করবো, আমীন।
[ প্রতিটা কমেন্টই ফাইজলামি করে করা ]
****

এই কমেন্টগুলো পড়ে আপনি অবাক হচ্ছেন ! আরো অবাক হবেন যখন জানবেন এই
কমেন্টগুলোর হুতা অধিকাংশই মাদরাসায় পড়ুয়া !! আল্লাহ এঁদের বুঝ দাও ।

বাংলাদেশের সামাজিকতা, প্রেক্ষাপট সম্পর্কে যারা একটু খুঁজ খবর রাখেন
তাঁরা জানার কথা বাংলাদেশে বিবাহ উপযুক্ত মেয়ের সংখ্যা ছেলেদের থেকে অনেক
বেশি ফলে অনেক মেয়েদের বয়স বেড়ে যাচ্ছে কিন্তু বিয়ে হচ্ছে না। বাবা-মা
আত্মীয়রা জানতুর চেষ্টা করেও তাঁদের মেয়েদের পাত্রস্থ করতে ব্যার্থ হচ্ছেন ।
এটা তাঁদের কোন দোষ নয় বরং আল্লাহর ইচ্ছেরই প্রতিফলন। আমি একজন মুসলমান
হিসেবে দৃঢ় বিশ্বাস করি যা কিছু হয় সবই আল্লাহর পক্ষ থেকে।

একটা
পরিবারের একজন মেয়ের বয়স বেড়ে যাওয়া, বিয়া না হওয়াটা কতটা ভয়াবহ,
লাঞ্চনাকর, বিব্রতকর তা ভুক্তভুগী মাত্রই জানেন যার সামান্যই মাত্র আমরা
দেখে শুনে অনুভব করতে পারি। এই সামান্য অনুভবই আমাদের কলিজায় কাঁপন ধরিয়ে
দেয়। কষ্টের স্রোত বয়ে যায় শরীরে। আমাদের নোংরা সমাজে ঐ পরিবারটি কিভাবে
আছে ভাবতে গা শিউরে উঠে । মন থেকে দোয়া আসে ঐ পরিবারের জন্য। সেই অসহায়
বোনটির জন্য। অথচ আমাদের ভাইয়েরা কি করছি ? অসহায় এই পরিবারের প্রতি, এই
বোনটির প্রতি হিংস্র জন্তুরমত তেড়ে আসছি আমরা ! সহায়তায় পরিবর্তে
কটুবাক্যবানে জর্জরিত করছি শতক্ষত নিয়ে বেঁচে থাকা এই পরিবারটিকে, এই
বোনটিকে !! অথচ আমরা মানুষ! সৃষ্টির সেরা জীব !! নবীর ওয়ারাসাতের দাবীদার
!!! আমরা কি জানি আমাদের আচরণে কষ্ট পেয়ে যদি এই পরিবারের পক্ষ থেকে এই
বোনটির হৃদয় থেকে কোন বদদোয়া চলে আসে তবে আল্লাহ এই বদদোয়া বৃথা করবেন না ?
বান্দার অসহায়ত্বের সুযোগ নিয়ে যারা বীরত্ব ফলাতে আসে এসব বীরদের আমরা
কাপুরুষ বলি, কুলাঙ্গার বলি। অন্যের বিপদে যারা আনন্দ খুঁজে তাঁদের মত
নোংরা কিট আর হয়না।

নিকাহ গ্রুপ শুধুমাত্র বিয়ের বিজ্ঞাপনের জন্য
নয় বরং বিবাহ বিষয়ক সচেতনতা বৃদ্ধি, আমাদের পারস্পরিক সহযোগীতা, সহমর্মিতা,
সামাজিক কুসংস্কার দূর করার জন্যও কাজ করে চলছে প্রতিনিয়ত কিন্তু এই পথে
বারবার বাঁধা সৃষ্টি করছেন আমাদেরই কিছু ভাই !!

প্রিয় ভাই! আপনাদের
মনে কিসের এতো কষ্ট ! কষ্টে জর্জরিত মন নিয়ে নিজেদের কষ্ট ছড়িয়ে দিতে
চাইছেন সবার মাঝে ! কেন ভাই ? নিজের মনের কষ্টকে চাঁপা দিয়ে সুখকে অন্যের
মাঝে ছড়িয়ে দিন দেখবেন আপনার মনের ভেতরের কষ্ট কমে যাচ্ছে আর তার জায়গা
নিচ্ছে জান্নাতি সুখ।

রমজানের অন্যতম শিক্ষা সংযম। প্রিয় ভাইয়েরা
আসুন আমরা সংযমের শিক্ষা নেই। নিজেকে নিয়ন্ত্রণ করতে শিখি। অন্যকে সম্মান ও
ভালোবাসতে শিখি। আপনাদের কাছে হাতজোড় করে আকুতি করছি আল্লাহর ওয়াস্তে
অন্যের মনঃকষ্টের কারণ হবেন না নইলে সামান্য কিছু আনন্দ পেতে গিয়ে আপনার
দুনিয়া আখেরাত সব বরবাদ হয়ে যাবে।বান্দার ইজ্জৎ আভ্রু সম্মান তার সবচেয়ে বড়
হক। বান্দার এই হক যারা নষ্ট করবেন তাঁরা রোজ কিয়ামতে কঠিন পাকরাও এর
সম্মুখীন হবেন তার আল্লাহর পাকরাওকে ভয় করুন।

ওয়াল্লাহি ! আমাদের ক্ষমা করুন !!
যদি গ্রুপ থেকে উপকৃত হতে না পাড়েন তবে গ্রুপ ছেঁড়ে চলেযান। আপনিও ভালো থাকুন আমাদেরও ভালো থাকতে দিন।

[ এটা কোন নোটিশ নয় আপনাদের কাছে অনুরোধ মাত্র। ভিবিষ্যতে এমন কমেন্ট করা প্রতিটা সদস্যকে বিনা নোটিশে ব্যান করা হবে। ]

https://www.facebook.com/groups/135917810481128/permalink/250345262371715/?comment_id=250423429030565&notif_id=1527152085934520&notif_t=group_comment_reply

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 5 (টি রেটিং)

Rate This

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 5 (টি রেটিং)