আসুন ভাল কাজ করি (২য় পর্ব)

সূচনাতেঃ- আমরা তো সময়কে নানান ভাবে কাটাই, যার যেভাবে ভাল লাগে। আজ না হয় একটু সময় আল্লাহর জন্য ব্যয় করি। আসুন একটা সুন্দর হাদীস পড়ি, এবং এর মর্মার্থ বুঝতে চেষ্টা করি যে, এই হাদীসে আমাদের জন্য কি শিক্ষনীয় বিষয় আছে, যা আমরা আমলে আনতে পারি। এবং পেতে পারি অদেখা অনেক অনেক নেকী।


হাদীস শরীফঃ- হযরত আবু হুরায়রা (রাযিঃ) হতে বর্ণিত আছে যে, রাসূলুল্লাহ (সঃ) এরশাদ করেছেন, (বনী ইসরাইলের) এক ব্যক্তি মনে মনে বলল, আমি আজ (রাতে গোপনে) ছদকা করব। সুতরাং

প্রথম রাতেঃ- সদকার মাল নিয়ে বের হল এবং অজ্ঞাতসারে এক চোরের হাতে দিয়ে দিলো। সকালে লোকজনের মধ্যে আলোচনা হল যে, রাত্রে চোরকে সদকা দেয়া হয়েছে। সদকা দানকারী বলল, হে আল্লাহ! চোরকে সদকা দেয়ার মধ্যেও আপনার প্রশংসা। কেন না তার থেকেও আরও খারাপ ব্যক্তিকে যদি দেয়া হত আমি কি করতে পারতাম? অতঃপর সে দৃঢ়সংকল্প করল যে, আজ রাত্রেও অবশ্যই আমি সদকা করবো। (কেন না পূর্বের সদকা তো নষ্ট হয়ে গেছে)।

দ্বিতীয় রাতেঃ- দ্বিতীয় রাত্রে আবার সদকার মাল নিয়ে বের হল, এবং অজ্ঞাতসারে সদকা, এক ব্যভিচারিণী মেয়েলোককে দিয়ে দিলো। সকালে আলোচনা হল রাত্রে এক ব্যভিচারিণী মেয়েলোককে সদকা দেয়া হয়েছে। সে বলল, হে আল্লাহ ব্যভিচিরিণী মেয়েলোককে সদকা দেয়ার মধ্যেও আপনার প্রশংসা। (কেন না আমার মাল তো এই উপযুক্তও ছিল না)। তৃতীয়বার সদকা করার ইচ্ছা করল যে, আজ রাত্রে অবশ্যই সদকা করবো। অতঃপর রাত্রে সদকার মাল নিয়ে বের হল।

তৃতীয়রাত্রেঃ- সদকার মাল নিয়ে বের হয়ে এক ধনী ব্যক্তিকে দিয়ে দিলো। সকালে আলোচনা হল রাত্রে এক ধনী ব্যক্তিকে সদকা দেয়া হয়েছে। সদকা দানকারী বলল, হে আল্লাহ! ধনী ব্যক্তিকে সদকা দেয়ার মধ্যেও আপনার প্রশংসা। (কেন না আমার মাল তো এরুপ ব্যক্তিকে দেয়ার ও উপযুক্ত ছিল না)।

দানের ব্যখ্যাঃ- স্বপ্নে বলে দেয়া হল যে, (তোমার সদকা কবুল হয়েছে)। তোমার সদকা চোরের উপর এজন্য করানো হয়েছে যে, হতে পারে যে, সে চুরির অভ্যাস হতে তওবা করে নিবে। ব্যভিচারিণী মেয়েলোকের উপর এজন্য যে, হতে পারে সে ব্যভিচার হতে তওবা করে নিবে। (যখন সে দেখবে যে, ব্যভিচার ছাড়াও আল্লাহ তা’য়ালা দান করেন। তখন তার অনুভুতি আসবে)। আর ধনী ব্যক্তির উপর এজন্য, যাতে সে শিক্ষা লাভ করে (যে, আল্লাহ তা’য়ালার বান্দাগণ কিভাবে গোপনে সদকা করে; এই কারনে) হতে পারে সেও ঐসমস্ত মাল হতে যা আল্লাহ তা’য়ালা তাকে দান করেছেন। তা আল্লাহর পথে খরচ করতে আরম্ভ করবেন।

(বোখারী শরীফ)

 ফায়দাঃ- এই ব্যক্তির এখলাসের কারনে তিনটি সদকাই আল্লাহ তা’য়ালা কবুল করে নিয়েছেন।

শিক্ষণীয় বিষয় হলঃ- বুঝা গেল কেউ ছহীহ নিয়্যত করে চোর, ব্যভিচারিণী মহিলা, ও ধনী ব্যক্তিকে সদকা করলেও আল্লাহ তা’য়ালা তা কবুল করে নেন। আমাদের জন্য শিক্ষণীয় হল আমরাও যদি কাউকে কিছু দান করি বা সদকা করি তবে আগে নিজেদের নিয়্যতকে যাচাই বাছাই করে নিতে হবে। যে, আমরা কার জন্য সদকা করছি? সুনামের জন্য নাকি আল্লাহর রাজী খুশির জন্য, যাতে আমাদের সামান্য সদকা হলেও তা একমাত্র আল্লাহকে রাজী খুশি করার জন্যই হয়।

পরিশেষেঃ- আল্লাহ তা’য়ালা আমাদেরকে সদকা করার মত মন মানষিকতা তৈরি করে দিন। এবং নিয়্যতকে ছহীহ করে দিন। আর কবুল করে নিন।

আমিন।

 

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 5 (2টি রেটিং)

সালাম

খুব সুন্দর  কাহিনী  ।  রাসূল  সাল্লাললাহু  আলাইহে  ওয়াসাল্লাম বলেছেন , অবশ্যই  কাজের ফলাফল  নিয়তের উপর নির্ভরশীল

*****

সালাম

আপনাকে যাযায়ে খায়ের, মন্তব্য করার জন্য

-

▬▬▬▬▬▬▬▬ஜ۩۞۩ஜ▬▬▬▬▬▬▬▬
                         স্বপ্নের বাঁধন                      
▬▬▬▬▬▬▬▬ஜ۩۞۩ஜ▬▬▬▬▬▬▬▬

চমৎকার কাহিনী। শিক্ষনীয়ও বটে।

সালাম

আপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ

-

▬▬▬▬▬▬▬▬ஜ۩۞۩ஜ▬▬▬▬▬▬▬▬
                         স্বপ্নের বাঁধন                      
▬▬▬▬▬▬▬▬ஜ۩۞۩ஜ▬▬▬▬▬▬▬▬

প্রতিটা ভালো কাজ কবুল হওয়ার পেছনে সহি নেয়াত থাকার দরকার। ধন্যবাদ আপনাকে ১ টি শিক্ষণীয় হাদিস লেখার জন্য।

-

imam

সালাম

আপনাকে ধন্যবাদ

অবশ্যই প্রতিটি কাজের শুরুতে নিয়্যতকে যাচাই বাছাই করে নেয়া আবশ্যক, আল্লাহ আমাদের সবাইকে ছহীহ নিয়্যত করার তৌফিক দিন।

আমিন।

-

▬▬▬▬▬▬▬▬ஜ۩۞۩ஜ▬▬▬▬▬▬▬▬
                         স্বপ্নের বাঁধন                      
▬▬▬▬▬▬▬▬ஜ۩۞۩ஜ▬▬▬▬▬▬▬▬

হে আল্লাহ আমাদের ভালো কাজ বেশি বেশি করার তৌফিক দান করুন। আমীন। সুন্দর পোস্ট এর জন্য আন্তরিক ধন্যবাদ।

সালাম

আল্লাহ আপনাকে যাযায়ে খায়ের দান করুন।

আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ মন্তব্য করার জন্য

-

▬▬▬▬▬▬▬▬ஜ۩۞۩ஜ▬▬▬▬▬▬▬▬
                         স্বপ্নের বাঁধন                      
▬▬▬▬▬▬▬▬ஜ۩۞۩ஜ▬▬▬▬▬▬▬▬

Rate This

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 5 (2টি রেটিং)