সৌদী আরবের সাথে মিল রেখে রোজা/ইদ পালন অসম্ভব

যে কারনে সৌদী আরবের সাথে মিল রেখে রোজা/ইদ পালন অসম্ভব

21 April 2019

অধুনা বাংলাদেশের কতক লোক সৌদী আরবের সাথে মিল রেখে একই দিনে রোজা, ইদ ইত্যাদি উদযাপন করতে মরিয়া হয়ে উঠেছেন। কিন্তু এটি কিভাবে সম্ভব? সৌদী আরবের সাথে বাংলাদেশের সময়ের পার্থক্য, বাংলাদেশের যোগাযোগ ব্যবস্থা, গ্রামাঞ্চলে খবর প্রদানের জটিলতা – এ বিষয়গুলোকে সামনে রাখলে এব্যবস্থা আদৌ বাস্তবায়নযোগ্য মনে হয় কি?

আমি সৌদী আরবে ছিলাম ৩১ বছর। দীর্ঘ এ সময়ে, কোন কোন বছর এমন হয়েছে যে,  রোজার ইদের চাদ দেখার খবর সংবাদ মাধ্যমে এসেছে মাগরিবের এক থেকে দেড় ঘন্টা পর। 

মনে করুন: আকাশ মেঘলা থাকার কারনে সৌদী আরবে চাদ দেখার খবর প্রকাশিত হলো রাত ৮টায়। এর মানে হচ্ছে বাংলাদেশে এ সংবাদ পৌছাবে রাত ১১টায়। ঢাকা শহরে না হয় আপনি ১০ থেকে ১৫ মিনিটের মধ্যে এখবর পৌছে দিলেন। কিন্তু গ্রামাঞ্চলে? ধরুন, আপনি তাদের নিকট অবশ্যই খবরটা ঐ রাতে পৌছাবেন। আপনাকে রাত ১টা ২টা অবধি শত শত ফোন করতে হবে, বাড়ী বাড়ী যেতে হবে। তাই নয় কি?

রাত ১২টা ১টায় মানুষকে ঘুম থেকে জাগিয়ে তুলে, মানুষকে এভাবে কষ্ট দিয়ে, একই দিনে রোজা রাখা, ঈদ করা কি খুবই জরুরী? মানবতার দ্বীন ‘ইসলাম’ কি এমনটা সমর্থন করতে পারে? 

প্রিয় পাঠক, আপনার জ্ঞান ও বিবেক যদি সাক্ষ্য দেয় যে, আমার কথাগুলো বাস্তব এবং যুক্তিসম্মত, দেশের মানুষকে এক অনিবায ফিতনা ও কষ্টের কবল থেকে বাচানো জরুরী – তাহলে অনুগ্রহপুবক আমার এ লেখাটি শেয়ার করুন। নিজেরা লিখেও সরকারকে ভুল পদক্ষেপ নেয়া থেকে বিরত রাখুন।

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 5 (টি রেটিং)

Rate This

আপনার রেটিং: None গড় রেটিং: 5 (টি রেটিং)