নামকরণে পরামর্শ – পব চার।

নামকরণে পরামর্শ – পব চার।

৭৪- সাবের (সোয়াদ+আলিফ+বা+রা) অর্থ: ধৈযশীল। আইয়ুব আ: এর লাকব।

৭৫- সাদেক (সোয়াদ+আলিফ+দাল+ক্কাফ) অর্থ: সত্যবাদী

৭৬- সালেহ (সোয়াদ+আলিফ+লাম+হা)অর্থ: ন্যায়পরায়ণ

৭৭- সালাহ (সোয়াদ+লামআলিফ+হা) অর্থ: সততা

৭৮- সুহাইব (সোয়াদ+হা+ইয়া+বা) অর্থ: লালচে রং

৭৯- আদেল। অর্থ: ন্যায়পরায়ণ

৮০- আতেফ। অর্থ: স্নেহশীল, দয়ালু

৮১- আসেম। (আইন+আলিফ+সোয়াদ+মীম) অর্থ: রক্ষক, অভিভাবক

৮২- আযযাম। অর্থ: দৃঢ় প্রতিজ্ঞ ব্যক্তি

৮৩- আফিফ। অর্থ: পূণ্যবান

৮৪- আলা (আইন+লামআলিফ+হামযা আলাস সতর) উন্নত।

৮৫- গালিব। অর্থ: জয়ী

৮৬- ফাতেহ। অর্থ: বিজয়ী

৮৭- ফায়েয। অর্থ: কৃতকায।

৮৮- ফাইয়াদ (ফা+ইয়া+আলিফ+ধোয়াদ)অর্থ: উদার

৮৯- ফয়সল। (ফা+ইয়া+সোয়াদ+লাম) অর্থ: মধ্যস্থতাকারী

৯০- নায়েফ। অর্থ: উন্নত

৯১- নাবিল। অর্থ: মহানুভব

৯২- নাদিম। অর্থ: অন্তরংগ বন্ধু

৯৩- নাসিম। অর্থ: মৃদু সমীরণ

৯৪- নাসিব। অর্থ: অভিজাত, উচ্চবংশীয়

মেয়েদের নাম:

৯৫- বাদরিয়া। অর্থ: পুর্ণশশী

৯৬- বারিরা। অর্থ: কর্তব্যপরায়ণা

৯৭- তামান্না। অর্থ: আশা, বাসনা

৯৮- জাওহারা। অর্থ: হীরা, মুল্যবান পাথর

৯৯- হামিদা (হা+আলিফ+মিম+দাল+গোল তা) অর্থ: প্রশংসাকারিণী

১০০- হামীদা (হা+মিম+ইয়া+দাল+গোল তা) অর্থ: প্রশংসিতা

১০১- হানুনা। অর্থ: স্নেহশীলা, দয়াবতী

১০২- রায়েদা (রা+আলিফ+হামযা আলাস সতর+দাল+গোল তা)অর্থ: নেত্রী

১০৩- যাইনাব। অর্থ: সুগন্ধময় ফুল

১০৪- সালমা (সীন+লাম+মিম+গোল তা)অর্থ: সুশ্রী মেয়ে

১০৫- সালমা (সীন+লাম+মিম+আলিফ মাকসুরা বা খাটো আলিফ) অর্থ: একটি গাছের নাম, সুন্দরী স্ত্রীলোক

১০৬- সালওয়া। অর্থ: সান্তনা।

১০৭- সাবেরা। অর্থ: ধৈযশীলা

১০৮- সাফীয়া। (সোয়াদ+আলিফ+ফা+ইয়া+গোল তা)অর্থ: নির্মলা, পবিত্রা

১০৯- আবীর। অর্থ: সুগন্ধ

১১০- আযীযা। অর্থ: সম্মানীতা, প্রিয়তমা

১১১- আফিফা। অর্থ: পবিত্রা

১১২- মারিয়া। অর্থ: শুভ্র। (রাসুলুল্লাহ সা: এর এক স্ত্রীর নাম)

১১৩- মুহসিনা (মিম+হা+সোয়াদ+নুন+গোল তা)অর্থ: সুরক্ষিতা, নিস্কলংক।

১১৪- মুহসিনা (মিম+হা+সিন+নুন+গোল তা)অর্থ: পরোপকারিণী, দয়ালু।

১১৫- মারদীয়া। অর্থ: পরিতৃপ্তা, সন্তোষ্ট

১১৬- মুনীরা। অর্থ: দীপ্তীময়ী, আলোকজ্জলা

১১৭- নাবীলা। অর্থ: মহানুভবা

১১৮- নাওয়াল। অর্থ: উপহার

১১৯- নারজীস। অর্থ: সুগন্ধযুক্ত ফুল

১২০- হানীয়া। অর্থ: সুখী, আরামদায়ক।

ঋণস্বীকার: বই “নামকরণে ইসলামী পদ্ধতি”। লেখক: বাশীর বিন মুহাম্মাদ আল-মা’সুমী। মাক্কাতুল মুকাররামা, উম্মুল কোরা ইউনিভার্সিটি, সৌদী আরব।

আপনার রেটিং: None

Rate This

আপনার রেটিং: None