যে বস্তুর ব্যয় হ্রাস পায় তার উৎপাদনও হ্রাস পায়

আল্লাহ তায়ালা মানুষ ও জীব জন্তুর জন্যে যে সমস্ত ব্যবহায বস্তু সৃষ্টি করেছেন, সেগুলো যে পযন্ত ব্যয়িত হতে থাকে, সে পযন্ত আল্লাহর পক্ষ হতে সেগুলোর পরিপুরকও সৃষ্টি হতে থাকে। যে বস্তু বেশী ব্যয়িত হয় আল্লাহ তায়ালা তার উৎপাদনও বাড়িয়ে দেন। 

জীব-জানোয়ারের মধ্যে ছাগল ও গরু সবাধিক ব্যয়িত হয়। এগুলো যবেহ করে গোশত খাওয়া হয়। কুরবানী, কাফফারা, আকিকা প্রভৃতিতে যবেহ করা হয়। এগুলো যত বেশী কাজে লাগে আল্লাহ সে অনুপাতে সেগুলোর উৎপাদনও বৃদ্ধি করেন। আমরা সবত্রই এটা প্রত্যক্ষ করি।

সবদা ছুরির নীচে থাকা সত্বেও দুনিয়াতে ছাগলের সংখ্যা বেশী। কুকুর ও বিড়ালের সংখ্যা এত নয়। অথচ এগুলোর সংখ্যাই বেশী হওয়ার কথা ছিল, কারন এরা একই গর্ভ থেকে চার পাচটি পযন্ত বাচ্চা প্রসব করে। গরু ছাগল বেশীর চেয়ে বেশী দু’টি বাচ্চা প্রসব করে। তদুপরি এগুলোকে সবদাই যবেহ করা হয়। পক্ষান্তরে কুকুর বিড়ালকে কেউ হাতও লাগায়না। এতদসত্বেও এটা অনস্বীকায যে, দুনিয়াতে গরু ছাগলের সংখ্যা কুকুর বিড়ালের তুলনায় অনেক বেশী। 

প্রতিবেশী রাষ্ট্র ভারতে যেদিন থেকে গো-হত্যা নিষিদ্ধ হয়েছে সেদিন থেকে সেখানে গরুর উৎপাদনও অপেক্ষাকৃত হ্রাস পেয়েছে। নতুবা যবেহ না হবার কারনে প্রতিটি বস্তি ও বাড়ী গরুতে ভরপুর থাকা উচিত ছিল।

আরবরা যখন থেকে পরিবহনের কাজে উটের ব্যবহার কমিয়ে দিয়েছে, তখন থেকে সেখানে উটের উৎপাদনও হ্রাস পেয়েছে। 

কুরবানীর মোকাবেলায় অর্থনৈতিক মন্দা সৃষ্টির আশংকা ব্যক্ত করে আজকাল যে বিধর্মীসুলভ আলোচনার অবতারণা করা হয় তা আসলে অসার। 

- তাফসীর মা’আরিফুল কুরআন, সুরা সাবা। পৃ: ১১১৪। 

আপনার রেটিং: None

Rate This

আপনার রেটিং: None